ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ৭ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ছাত্রলীগের সঙ্গে পল্টি নিলেন নুরুরা?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২ মার্চ ২০১৯ মঙ্গলবার, ১০:১৭ পিএম
ছাত্রলীগের সঙ্গে পল্টি নিলেন নুরুরা?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন নিয়ে নাটকীয়তা যেন শেষ হচ্ছেই না। ফল ঘোষণার পর ভিপি পদে পুনর্নির্বাচনের দাবি করে বিক্ষোভ করে ছাত্রলীগ। অপরদিকে সংবাদ সম্মেলন করে ভিপি ও সমাজসেবা সম্পাদক পদ ছাড়া বাকি পদগুলোতে পুনর্নির্বাচন দাবি জানান ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর। ক্যাম্পাসে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়াও হয়।

পরে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন নুরকে মেনে নিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। দুজনে কোলাকুলি করলে সবাই পরিবেশ শান্ত হয়ে গেল বলে ধরে নিয়েছিল। ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি থেকে সরে আসেন ভিপি নুরুল হক। কিন্তু আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকে পরিস্থিতি পাল্টে যেতে শুরু করেছে।

ডাকসুর নবনির্বাচিত সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হক বলেন, ‘ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের যে ঘোষণা দিয়েছিলাম, তা থেকে আমরা সরে এসেছি। তবে পুনর্নির্বাচনের দাবি অব্যাহত থাকবে। আমরা শিক্ষার্থীদের রায় মেনে নিয়ে শিক্ষার্থীদের স্বার্থে এক সঙ্গে কাজ করব।’

এই ঘোষণার কিছু পরে ডাকসুর সহসভাপতি নুরুল হক এবং নির্বাচনে অংশ নেওয়া অন্য প্যানেলের নেতারা আলোচনায় বসেন। বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, সন্ধ্যায় ডাকসু নির্বাচন অংশ নেওয়া পাঁচ জোটের নেতারা আলোচনা করেন। সেখানে তাঁরা উপাচার্যের পদত্যাগপূর্বক পুনরায় ডাকসু নির্বাচন চেয়েছেন। এই দাবিতে কাল বুধবার দুপুর ১২টায় রাজু ভাস্কর্যে সমবেত হয়ে উপাচার্যের কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জোটের নেতারা। আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে তাঁদের দাবি মেনে না নিলে কঠোর কর্মসূচি দেওয়ারও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

ছাত্রলীগের সভাপতি ও ডাকসু নির্বাচনে ভিপি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের সঙ্গে কোলাকুলি নিয়ে নুরু বলেন,‘ ক্ষমতাসীনেরা যখন সুবিধাজনক মনে করে, যখন আমাদের লাগে, তখন বুকে টেনে নেয়। আবার যখন মনে করে শত্রু, তখন মারে। তার উদাহরণ গতকালও আমরা দেখেছি। বেগম রোকেয়া হলে ছাত্রলীগ নেত্রীরা আমাদের মেরেছে। গত ৩০ জুনও তারা আমাকে মেরেছিল। আজকেও শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি হিসেবে আমি টিএসসিতে এসেছিলাম, কিন্তু আমাকে তারা ধাওয়া দিয়েছে। তাদের মুখে মধু, অন্তরে বিষ। তাদের বিশ্বাস করাটা খুব টাফ।’

সন্ধ্যার পরে নুরুর এমন কথা তাহলে কি ইঙ্গিত দিচ্ছে? সেটা হয়তো নুরুল হক নুরু ও তার দলের লোকজন আগামীকাল খোলাসা করবেন।


বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ