ঢাকা, বুধবার, ১৯ মে ২০২১, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

দেশের শিক্ষার মান নির্ভর করে গবেষণায়: ড. জাফর ইকবাল

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ এপ্রিল ২০২১ মঙ্গলবার, ১২:৩১ পিএম
দেশের শিক্ষার মান নির্ভর করে গবেষণায়: ড. জাফর ইকবাল

একটি দেশের শিক্ষার মান শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর গবেষণার ওপর নির্ভর করে বলে মন্তব্য করেছেন অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।

সোমবার (১২ এপ্রিল) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় রিসার্চ অ্যান্ড হায়ার স্ট্যাডিজ সোসাইটি (সিইউআরএইচএস) আয়োজিত  রিসার্চ ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামের সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে ড. জাফর ইকবাল বলেন, পৃথিবীতে দুই রকম মানুষ রয়েছে। একদল গবেষণা করে, আরেকদল গবেষণার ফলাফল ভোগ করে। মূলত গবেষকরা মানবকল্যাণে এ কাজ করে থাকেন। যত বেশি গবেষণা হবে, দেশে তত বেশি উন্নয়ন হবে। গবেষণার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান সম্ভব। প্রতিটা সমাধানই একেকটা আনন্দ।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের ছাত্ররা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে গবেষণায় নিজেদের মেধা প্রমাণ করে চলেছে। দেশেও দিন দিন গবেষণার অনুদানের পরিমাণ বাড়ছে। এতে দেশে কাজের ক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে।  

বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা ও প্রকাশনা দফতরের পরিচালক অধ্যাপক ড. আবদুল্লাহ আল ফারুক এবং ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. অলক পাল।  

ডা. আবদুল্লাহ আল ফারুক বলেন, কোভিড পরিস্থিতি দেখিয়ে দিয়েছে গবেষণা কতটা গুরুত্বপূর্ণ। গবেষণার মূল উদ্দেশ্য হবে মানুষের কল্যাণ সাধন। দেশে গবেষণার সুযোগ তৈরি হচ্ছে এবং তা কাজে লাগাতে হবে। এজন্য সিইউআরএইচএস`র মতো সংগঠনগুলোকে আরও বেশি এগিয়ে আসতে হবে।

দেশের তরুণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে গবেষণা ও উদ্ভাবনের অনুপ্রেরণা সৃষ্টির লক্ষ্যে চার মাসব্যাপী ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়। এ আয়োজনে অংশ নেন দেশের ২৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২০ জন শিক্ষার্থী।  এ আয়োজন সম্পর্কে বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন সিইউআরএইচএস`র মডারেটর ও চবি জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক ড. আদনান মান্নান, ফলিত রসায়নের শিক্ষক ড. সুমন বড়ুয়া, ফিন্যান্স বিভাগের শিক্ষক ড. অনুপম দাশগুপ্ত এবং ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক ড. কাজী তানভির আহাম্মদ।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক ড. নাইম হাসান চৌধুরী, সিইউআরএইচএস’র সভাপতি তাকবির হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক তানজিলুর রহমান, এশিয়ান উইম্যান ইউনিভার্সিটির ছাত্রী সায়মা জাফরিন ও  চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের ছাত্রী সুস্মিতা দে পিংকি।