ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ৯ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ড. কামাল সমীপে

মো: তৈমুর মল্লিক ভূঁইয়া
প্রকাশিত: ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ রবিবার, ০৩:০০ পিএম
ড. কামাল সমীপে

ড. কামাল যৌবনের উন্মাদনা পার করে আজ এমন একটি সময় পার করছে, যখন তার একস্থানে ২ মিনিট দাঁড়িয়ে থাকতে কষ্ট হয়, হাটাচলা করতে ৩য় লাঠির প্রয়োজন হয়। আল্লাহ্‌ আপনাকে সুস্থ রাখুন। কিন্তু ড. কামাল আমি আপনার মতো প্রজ্ঞার অধিকারী নই, আইনজ্ঞ নই। তবে রাজনীতিবিদ হিসাবে আপনাকে অভিহিত করার মতো মূর্খ নই। অন্তত রাজার নীতি হিসাবে পরিচিত যে রাজনীতি আমি সেটাকেই উল্লেখ করেছি। 

আমি যা লিখছি সেটা একজন অতি সাধারণ ভোটার, সাধারণ গণ্ডমূর্খ হিসাবে লিখছি। 

আপনার যৌবনের উন্মাদনায় বাংলাদেশ প্রশ্নে তেমন কোন সুখের স্মৃতি নেই। বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে একবারই প্রবেশ করেছিলেন বঙ্গবন্ধুর দয়ায়, তার ছেড়ে দেয়া আসনের বিনিময়ে। বাংলাদেশের সংবিধানের প্রণেতার খাতায় নাম উঠেছে সেই বঙ্গবন্ধুর দয়ায়। আপনি পদমর্যাদায় সিনিয়র হওয়ার জন্য সংবিধান প্রণয়নে একটি দলের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।  

আপনার জন্ম ভারতে, আপনি বিবাহ করেছেন পাকিস্তান। অথচ আপনার সারা জীবনের প্রাপ্তি বাঙালির ঘামে ভেজা অর্থে অর্জিত। 

জীবনের অধিকাংশ সময় পার করেছেন বিদেশের মাটিতে। বাংলাদেশের নির্বাচনকালীন রাজনৈতিক নেতা নয়, অনেকটাই লবিস্ট হিসাবে আপনাকে বিবেচিত করা যায়।  তবে লবিস্ট হলেও আপনি যখন কথা বলেন তখন মনে হয় স্বর্গের কোন দৈববাণী আছড়ে পড়ছে বাংলাদেশের মাটিতে। শুনতে বেশ ভালই লাগে। কিন্তু আপনার অতীত এবং কথা এই ২টির মধ্যে যে বিরাট একটি পার্থক্য আর কেউ না জানলেও আপনি অন্তত জানেন। যা সাধারণ মানুষ জানে না, তলিয়েও দেখে না। 

আপনিতো একজন বিশিষ্ট শিক্ষিত মানুষ।  কিন্তু আপনার বর্তমান রাজনৈতিক দর্শন নেতা, নেতৃত্ব, চেইন অব কমান্ড, বিভিন্ন সম্পর্কিত বিষয়ের সংজ্ঞাই পালটে দিয়েছে, আর সেটা আপনার দলের অনুসারী ডাক্তার সাহেব অনেকটা বদ্ধ উন্মাদের মতো টকশোতে বসে প্রচার করছে।  মানুষ তখন এই জাতীয় কথাকে অনেকটা ছাগলের ভ্যা ভ্যা শব্দের মতো মনে করে সেটা মনে হয় আপনি জানেন না। 

আপনার নিকটে প্রশ্ন,  নেতা ছাড়া বা কমান্ড ছাড়া কোন যুদ্ধ কি কাঙ্ক্ষিত জয় নিশ্চিত করে?  নেতা ছাড়া কি কোন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হয়? ইসলাম ধর্ম প্রচারে নবী করিম (স.) কী ছিলেন? খৃস্ট ধর্মের জিশুখ্রিস্ট কী ছিলেন? 

ধর্মের বাইরে গিয়ে বলি, উপসাগরীয় যুদ্ধ হয়েছিলো যৌথ ভাবে। যৌথ কমান্ডের একজন কমান্ডার ছিলো,  ২য় বিশ্বযুদ্ধে  শত্রু এবং মিত্র উভয় বাহিনীর কমান্ডার ছিলো। 

আপনিতো দেখি সব সীমানা অতিক্রম করে কোন ২য় পৃথিবীর ২য় সূত্র আবিষ্কার করতে চলেছেন?  একজন সাধারণ ভোটারের নিকট বলবেন কি, আপনাদের কমান্ডার কে? আপনাদের বিজয়ে কে হবে আপনাদের প্রধানমন্ত্রী? ভোটার হিসাবে এটুকু জানার অধিকার নিশ্চয়ই আমাদের আছে। 

আমিতো দেখছি, আপনাদের সাথে স্বাধীনতা বিরোধী শুধু নয়, খোদ রাজাকার আছে, বাম ডান সকলে আছে। কেবল নেই আপনি। গলা ফাটাচ্ছেন আপনি, অথচ আপনি ৩/৪ টা আসন নিয়ে সব ছেড়ে দিলেন রাজাকারের হাতে? স্বাধীনতা বিরোধীদের হাতে? আপনি নিজে শারীরিক সমস্যায় নির্বাচন করলেন না, অথচ বাম ডান স্বাধীনতা বিরোধী প্রচারণায় দেখি আপনি পূর্ণ সুস্থ। 

আপনি অতীতে যা করেছেন সেটা নিয়ে কথা বলে লাভ নেই। কিন্তু বারবার আপনি জনগণের মালিকনার কথা বলছেন, ভোট কেন্দ্র পাহারার কথা বলছেন। কথাগুলো শুনে বুকটা ভরে যায়।  অথচ আজ আপনি বুদ্ধিজীবীদের সম্মান জানাতে গিয়ে সাংবাদিক ধমকালেন?  তাদের প্রশ্ন করলেন কত টাকার বিনিময়ে এই প্রশ্ন করছে? 

যদি সাংবাদিক আপনাকে কাউন্টার প্রশ্ন করে, কতটাকায় আপনি বিক্রি হয়েছেন স্বাধীনতা বিরোধী, রাজাকার সম্প্রদায় প্রতিষ্ঠার জন্য, তাহলে আপনার উত্তর কি হবে? 

আপনার দলের ডাক্তার সাহেবকে টকশোতে প্রশ্ন করা হয়েছিলো, শেখ হাসিনা নির্বাচন প্রচারণায় নেমেছে, আপনারা আপনাদের দলে শেখ হাসিনার মতো সমকক্ষ রাজনীতিবিদ দেখতে পান কি না। একজন শেখ হাসিনার কথা আর আপনাদের কথা এক ধারায় ওজন হবে কি না।

সে কি বলেছে জানেন? তিনি থিওরি উলটে দিয়েছেন, তিনি বলেছেন ড.কামাল, আসম রব, মাহমুদুর রহমান মান্না, মির্জা ফকরুল এদের সম্মিলিত কথা নিশ্চয় শেখ হাসিনার কথার চেয়ে শক্তিশালী। 

এমন শিশুসুলভ মেধার লোক নির্বাচিত করেছেন দলের জন্য, তার মুখ থেকে আর কিই বা শোনা যাবে। ড.কামাল সাহেব আপনি নিশ্চয় জানেন এক শেখ হাসিনা কোন পর্যায়ের রাজনীতিবিদ, কোন প্রজ্ঞা এবং মেধা নিয়ে তিনি এই পর্যায়ে এসেছেন। অবশ্য আপনি অনুধাবন করলেও সেটা স্বীকার করবেন না। কারণ আপনার নিকট রাজাকার প্রশ্নে আজকের হুমকি ধামকি সব প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দিয়েছে। 

ডা. বদরুদ্দোজাকে নিজের ঘরে বসিয়ে রেখে দৌড়ে গিয়ে ঐক্যফ্রন্ট ঘোষণায় আপনার স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তোলে সেটাকি আপনি জানেন?

আপনার উচিত ছিলো এ রকম শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে একটি সুস্থ সময় পার করা। আপনার চিন্তায় যে নকশা অংকিত হয়েছে, সেটা সকলেই এখন অবগত। আর তাই সত্যি যদি দেশে তেমন কোন অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির জন্ম হয়, তাহলে নিশ্চিত এই দায় আপনাকে বহন করতে হবে।  বাংলাদেশের মাটি স্বাধীনতার বিপরীতে ব্যবহার হবে না।

আপনি কি জানেন জামাতের প্রায় ৫০ জনের একটি দল স্কুলের বদ্ধ ঘরে গোপন বৈঠকের সময় ধরা পড়েছে? 

আপনি কি করেছেন, বুঝতে পারছেন?  আল্লাহ্‌ আপনাকে বোঝার তৌফিক দান করুন। (আমীন)

বাংলা ইনসাইডার