ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

‘এ লজ্জা কার?’

সৈয়দ মীর নজরুল ইসলাম
প্রকাশিত: ০৩ নভেম্বর ২০১৭ শুক্রবার, ১০:০৫ পিএম
‘এ লজ্জা কার?’

সেবক-সেবিকার মায়া আদরে
ডাক্তারদের ছুঁরি কাঁচির তলে নয়?
হাসপাতালের অসহায় করিডোরে
আজো পারভীনদের বাচ্চা প্রসব হয়!

হাসপাতালের বেডে পাখার তলে নয়?
আজো পারভীন আয়েশার বাচ্চা হয়!
গণ মানুষের পায়ের ধূলোয়,
জংধরা ধূলোভরা গাড়ি পার্কিংয়ালয়।

মৃত্যু যন্ত্রণায় অসহায় মায়ের আর্তনাদে,
কত শিশু মারা যায় কেঁদে কেঁদে!
মারা যায় টাকার অভাবে বিনা চিকিৎসায়,
সেবার তেমন আর দোষ কোথায়?

টাকা না দিতে পেরে!
মায়ের অসহায় আর্তনাদে গেলো মরে,
গাড়ি পার্কিংয়ে জন্ম নেওয়া শিশুটা।
ভালোই হলো সে দেখলোনা পৃথিবীর কদর্যতা?

দেখলোনা মা`র অসহায়ত্বে চোখে অঝোর জলে,
ভেঁজা আঁচলে আকুতি মিনতি ভাসে উবে।
কারও আছে ভুরি ভুরি, কারো শূন্য থলে!
বলো! এ বৈষম্য দূর হবে কবে?

আজকাল কত শত ডিজিটাল ব্যবস্থা
তবুও টাকার অভাবে মারা গেলো বাচ্চাটা?
কোথায় আজ বহ্নিশিখায় আলোকচ্ছটা!
লজ্জিত মানবতায় কোথায় আজ মানবতা?

আজো পারভীনরা বড়ই অসহায়!
টাকার অভাবে প্রাণের সন্তান মারা যায়?
এ দায়, এ লজ্জা কার?
এ দায় তোমার আমার সবার।

অভাগার অসহায়ত্বে এ দায় জাতিসত্তার!
এ দায় এ লজ্জা সমগ্র মানবতার?
বলছি ভাই! একবিন্দুও মিথ্যে নয় বলো!
এসো! অভাব বৈশম্যহীন ধরনী সাজাই চলো।