ঢাকা, রোববার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

জিয়া অরফানেজ মামলার রায় আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৮:০০ এএম
জিয়া অরফানেজ মামলার রায় আজ

সময়ের সবচেয়ে আলোচিত মামলা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলা। এর অন্যতম আসামি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। দীর্ঘ এক দশক ধরে চলা মামলাটির রায় ঘোষিত হবে আজ। মামলাটি ঘিরে জনমনে আগ্রহের শেষ নেই। আজকের এই দিনে মামলাটির খুঁটিনাটি আরেকবার জানালাম।

২০০৮ সালের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় জিয়া অরফানেজ মামলার শুরু হয়। ওই বছরের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা করে দুদক। এতিমদের সহায়তা করার উদ্দেশ্যে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকাআত্মসাৎ করার অভিযোগ এনে মামলাটি করা হয়।

২০০৯ সালের ৫ আগস্ট মামলায় খালেদা জিয়া, তার বড় ছেলে তারেক রহমান, মাগুরার বিএনপির সাবেক সাংসদ কাজী সালিমুল হক কামাল, সাবেক মুখ্য সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিনআহমেদ ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ভাগনে মমিনুর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়।

২০১০ সালের ৫ আগস্ট উল্লিখিত অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের উপ-পরিচালক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হারুন-অর-রশীদ।

২০১২ সালের ১৬ জানুয়ারি হারুন-অর-রশীদ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ২০১৪ সালের ১৯ মার্চ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক বাসুদেব রায়।

২০১৪ সালের ২০ ও ২১ ডিসেম্বর অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন শুরু করেন তার আইনজীবীরা।

২০১৭ সালের ১৯ ডিসেম্বর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার যুক্তি আবারও উপস্থাপন শুরু হয়। এ দিন রাষ্ট্রপক্ষ খালেদা জিয়াসহ সব আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি চেয়ে যুক্তি উপস্থাপন শেষ করেন। এরপর ২০, ২১, ২৬, ২৭ ও ২৮ ডিসেম্বর এবং ৩, ৪, ১০ ও ১১ জানুয়ারি বেগম জিয়ার পক্ষে যুক্ত উপস্থাপন করেন তাঁর আইনজীবীরা।

১১ জানুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদার পক্ষে যুক্তি উপস্থান করেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। এ দিন তার যুক্তি উপস্থাপন শেষ না হওয়ায় পরবর্তী যুক্তি উপস্থাপনের জন্য ১৬জানুয়ারি দিন ধার্য করেন আদালত।

১৬ জানুয়ারি এরপর যুক্তি শেষ না হওয়ায় যুক্তি উপস্থাপন শেষ না হওয়ায় পরবর্তী যুক্তি উপস্থাপনের জন্য ১৭, ১৮ ও ২৩ জানুয়ারি যুক্তি উপস্থাপন করেন তার আইনজীবী। ২৩ জানুয়ারি যুক্তি উপস্থাপন শেষ না হওয়ায় ২৪ জানুয়ারি যুক্তি উপস্থাপন করেন আইনজীবীরা।

২৫ জানুয়ারি দীর্ঘযুক্তি তর্কের সমাপ্তি ঘটিয়ে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় রায় ঘোষণার তারিখ নির্ধারণ করেন ৮ ফেব্রুয়ারি। উভয় পক্ষের যুক্তিতর্কের শুনানি শেষে বকশীবাজার কারা অধিদফতরের প্যারেড গ্রাউন্ডে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান রায় ঘোষণার এ দিন ধার্য করেন।

আজই সেই ৮ জানুয়ারি ২০১৮। বাংলাদেশের ইতিহাসে অন্যতম একটি দিন যেখানে দেশের কোনো প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষিত হতে যাচ্ছে। এই রায় দেশের আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার ইতিহাসে এক মাইল ফলক হিসেবেই মত বিশেষজ্ঞদের।

 

বাংলা ইনসাইডার/জেডএ