ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

সোমবার জামিন পাবেন খালেদা?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮ মার্চ ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৮:০০ পিএম
সোমবার জামিন পাবেন খালেদা?

বেগম জিয়া কি সোমবার জামিনে মুক্তি পাচ্ছেন? নাকি তাঁকে অন্য মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হবে? বাংলাদেশের রাজনীতিতে এটি এখন সবচেয়ে আলোচিত প্রশ্ন। বৃহস্পতিবার হাইকোর্ট বেগম জিয়ার জামিনের ব্যাপারে ১১ মার্চ, রোববার আদেশের দিন ধার্য করেছেন। বৃহস্পতিবার বিচারপতি এনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিম এই আদেশ দিয়েছেন।

আদাল সূত্রে প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, নিম্ন আদালতের নথি আগামী রোববার হাইকোর্টে পৌঁছাতে পারে। সেক্ষেত্রে আদালত রোববার বা সোমবার আদেশ দিতে পারেন। অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম অবশ্য বলেছেন, রোববার আদেশ দেওয়া হবে এমন খবর তাঁর জানা নেই। অন্যদিকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদিন বলেন, ‘আমি আজ হাইকোর্টে নিম্ন আদালতের নথি পৌঁছানোর বিষয়টি উপস্থাপন করেছিলাম। এই পরিপ্রেক্ষিতেই আগামী রোববার হাইকোর্ট আদেশের জন্য নির্ধারণ করেছেন ‘

আইনজীবীরা মনে করছেন, স্বাভাবিক প্রক্রিয়াতেই এই মামলায় তিনি রোববার না হলে সোমবার নাগাদ জামিন পাবেন। কিন্তু জিয়া অরফানেজ মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন পেলেই তিনি বেরুতে পারবেন কিনা তা নিয়ে বিএনপির মধ্যেই সংশয় রয়েছে। কুমিল্লার বাস পোড়ানোর দুটি মামলায় বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে। পল্টনের নাশকতা মামলা, ভুয়া জন্মদিন পালন এবং মুক্তিযুদ্ধের শহীদের সংখ্যা নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্যের মামলাতেও বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে। এর মধ্যে কুমিল্লার মামলা দুটির কার্যক্রম স্থগিত করলেও আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেছে। এরকম বাস্তবতায় সরকারের সঙ্গে আপোষ সমঝোতা ছাড়া বেগম জিয়ার মুক্তি কঠিন, এমনটাই মনে করেছেন বিএনপির শীর্ষ নেতারা।

সরকারের সঙ্গে বিএনপির সমঝোতার চেষ্টা চলছে। আলোচনা অনেক দূর এগিয়েছে বলেও একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। বিএনপির একজন শীর্ষস্থানীয় নেতা বেলেছেন,‘বেগম জিয়া নির্বাচন করতে পারবেন কিনা, সেই প্রশ্নেই সমঝোতা চূড়ান্ত হয়নি। তবে উভয় পক্ষই এ প্রসঙ্গটি আদালতের উপর ছেড়ে দেওয়ার পক্ষে। হাইকোর্ট বা আপিল বিভাগ যদি বেগম জিয়াকে নির্বাচনের অযোগ্য করেন। তাহলে তিনি নির্বাচন করবেন না। আবার উক্ত আদালত যদি তাঁকে নির্বাচন করার সুযোগ দেয় তাহলে 

বেগম জিয়া নির্বাচন করবেন। নির্বাচন করুন আর নাই করুন, জামিন পেলেই বেগম জিয়া স্বল্পতম সময়ের মধ্যে চিকিৎসার জন্য লন্ডন যাবেন। কিন্তু বিভিন্ন সূত্রে খবরে জানা গেছে, বেগম জিয়া যার ভরসায় লন্ডন যেতে চান, তাঁরই এই সমঝোতায় সায় নেই। বৃহস্পতিবারও তারেক জিয়া বিএনপির নেতাদের বলেছেন, সরকারের সঙ্গে এরকম সমঝোতা হবে আত্মঘাতী  এবং দলের জন্য ভয়াবহ। বিএনপির নেতারা তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করছে যে, এরকম সমঝোতা ছাড়া তাঁদের সামনে আর কোনো পথ খোলা নেই। তারেক জিয়াকে এটাও বলা হয়েছে সমঝোতা ছাড়া বেগম জিয়ার মুক্তি কঠিন।

তারেক জিয়া মানুক আর নাই মানুক বেগম জিয়া সমঝোতার সব কিছু চূড়ান্ত করতে কাজ এগিয়ে নিচ্ছেন। বুধবার বিএনপির আট নেতার সঙ্গে সাক্ষাতের পর বৃহস্পতিবার তিনি দেখা করলেন, তাঁর ৫ আইনজীবীর সঙ্গে। এখানেও মূল বিষয় হয়ে উঠেছে সমঝোতা। বেগম জিয়া আইনজীবীদের কাছে সমঝোতার ভিত্তিতে তাঁর জামিন, রাজনীতি এবং নির্বাচন করা না করার সম্পর্কে জানতে চান। বেগম আইনজীবীদের তাঁর জামিনের কার্যক্রম দ্রুত এগিয়ে নেওয়ারও পরামর্শ দিয়েছেন।

তবে, শেষ পর্যন্ত বেগম জিয়া জামিন পাবেন তখনই যখন বিএনপি- সরকার নির্বাচন প্রশ্নে একটি সমঝোতায় আসবে।     

 

বাংলা ইনসাইডার