ঢাকা, সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮ , ৪ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

নোয়াখালীর তিন রাজাকারের ফাঁসির আদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৮ মঙ্গলবার, ১২:৪৮ পিএম
নোয়াখালীর তিন রাজাকারের ফাঁসির আদেশ

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে নোয়াখালীর সুধারামের চার রাজাকারের মধ্যে তিন জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল। অপর একজনকে ২০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

১৩ মার্চ মঙ্গলবার বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এই আদেশ দেন। ট্রাইব্যুনালের অপর দুই সদস্য হলেন বিচারপতি আমির হোসেন ও আবু আহমেদ জমাদার।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন আমির হোসেন ওরফে আমির আলী, মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন ও আবুল কালাম ওরফে এ কে এম মনসুর। কারাদণ্ডপ্রাপ্ত হলেন আবদুল কুদ্দুস। আসামিদের মধ্যে আবুল কালাম ওরফে এ কে এম মনসুর বর্তমানে পলাতক। মামলার আরেক আসামি ইউসুফ আলী গ্রেফতার হওয়ার পর অসুস্থ অবস্থায় মারা যাওয়ায় তার নাম বাদ দেওয়া হয়।

আসামিদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের সময় ওই এলাকায় সংঘটিত হত্যা, গণহত্যা, অগ্নিসংযোগ ও লুণ্ঠনের তিনটি অভিযোগ রয়েছে। দণ্ডিতদের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণিত হয়।

গত ৬ ফেব্রুয়ারি এ মামলার উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায়ের জন্য অপেক্ষমান রাখা হয়েছিল। ৩৪ দিন পর গতকাল সোমবার রায়ের জন্য আজ মঙ্গলবার দিন ধার্য করেন বিচারক।

মামলায় প্রসিকিউশনের পক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর জাহিদ ইমাম ও রেজিয়া সুলতানা চমন। আসামি পক্ষে ছিলেন আইনজীবী তরিকুল ইসলাম, গাজী এমএইচ তামিম ও মাসুদ রানা। প্রসিকিউশন পক্ষে ১৫জন সাক্ষী দেন এবং এবং আসামিপক্ষ কোনো সাফাই সাক্ষী দেয়নি।

২০১৫ সালের ১৪ অক্টোবর নোয়াখালী ও লক্ষীপুর থেকে চার আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে ২০১৬ সালের ২০ জুন চার আসামিকে হত্যা, লুণ্ঠণ ও অগ্নিসংযোগের তিন ঘটনায় অভিযুক্ত করে চার্জ গঠন করেন ট্রাইব্যুনাল। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের সময় নোয়াখালীর সুধারামে ১১১জনকে হত্যা ও গণহত্যার তিনটি অভিযোগ পাওয়া যায়।

বাংলাইনসাইডার/আরকে/জেডএ