ঢাকা, শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ৫ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

সিটি নির্বাচন নিয়ে অনিশ্চয়তায় বিএনপি, আ. লীগের তোড়জোড় শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ৩১ মার্চ ২০১৮ শনিবার, ০৪:৪০ পিএম
সিটি নির্বাচন নিয়ে অনিশ্চয়তায় বিএনপি, আ. লীগের তোড়জোড় শুরু

গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নেবে কিনা তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয়ে আছে বিএনপির। অপরদিকে নির্বাচনের জন্য প্রার্থী চূড়ান্ত করতে এরই মধ্যে তোড়জোড় শুরু করেছে আওয়ামী লীগ।

দুই সিটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ১৫ মে। আজ শনিবার সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়ন দাখিলের শেষ সময় ১২ এপ্রিল। আর মনোনয়ন যাচাই-বাছাই হবে ১৫ ও ১৬ এপ্রিল। মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৩ এপ্রিল।

বিএনপির কারান্তরীণ চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এজন্য তাঁকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়ার একটি আবেদন প্রস্তুত করা হয়েছে। এদিকে বেগম জিয়ার প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী এখন ঢাকায়। বৃহস্পতিবার রাতে সৈয়দা শর্মিলা রহমান সিঁথি ঢাকায় এসেছেন। শুক্রবার বিকেলে তিনি তাঁর কারাবন্দী শাশুড়ির সঙ্গে দেখা করেছেন। এখন তাঁকে বিদেশ নেওয়ার প্রক্রিয়ায় ব্যস্ত বিএনপি। এমন সময়ে খুলনা-গাজীপুর সিটি নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিয়ে বিএনপির সিনিয়র নেতাদের মধ্যে মতপার্থক্য আছে। এখনো অনিশ্চয়তার দোলাচালে দুলছে দুই সিটিতে বিএনপির অংশগ্রহণ।

আজই সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ওই বৈঠকে ঠিক করা হবে দুই সিটি নির্বাচনে মনোনয়নের জন্য স্থানীয় সরকার মেনোনয়ন বিষয়ে আওয়ামী লীগের কমিটির বৈঠকের দিনক্ষণ। একাধিক সূত্রে জানা গেছে, এই সপ্তাহেই প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন কমিটির বৈঠক হতে পারে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুই সিটিতেই প্রার্থিতা নিয়ে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন স্থানীয় গ্রুপের মধ্যে মতবিরোধ আছে। গাজীপুরে প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে আছেন আজমত উল্লাহ, ও জাহাঙ্গীর আলম। আর খুলনায় মনোনয়ন পাওয়ার দৌঁড়ে আছে তালুকদার আবদুল খালেক ও শেখ জুয়েল। অবশ্য তালুকদার আব্দুল খালেককে এবার নিবাচনে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে তাঁর অনীহার কথা জানিয়েছেন। তবে জনপ্রিয়তার জন্য তাঁকেই হয়তো দল থেকে নির্বাচন করতে বলা হতে পারে।


বাংলা ইনসাইডার/জেডএ/জেডএ