ঢাকা, বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখবেন খালেদা

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৮ এপ্রিল ২০১৮ বুধবার, ০৮:০০ পিএম
প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখবেন খালেদা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চিঠি লিখবেন কারাবন্দী বেগম খালেদা জিয়া। আজ সকালে কারাগারে ডেপুটি জেলারসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ডেকে তিনি তাঁর প্রতি বিভিন্ন অবহেলার অভিযোগ তোলেন। বেগম জিয়া জানতে চান কাকে বললে এসব সমস্যার সমাধান হবে? উত্তরে জেল কর্তৃপক্ষ নীরব থাকলে, উত্তেজিত বেগম জিয়া বলেন, ‘আমি জানি কে এসব করাচ্ছে। তাঁকেই আমি চিঠি লিখবো। তিনি বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীকে জানাতে চাই আমার সঙ্গে কি করা হচ্ছে।’ জেল কর্তৃপক্ষ অবশ্য বলেছেন, ‘আইজি প্রিজন এর সঙ্গে কথা বলে সমস্যাগুলো সমাধানের উদ্যোগ নেবেন। এসব ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত যাওয়ার প্রয়োজন নেই। জেল কর্তৃপক্ষের কাছে বেগম জিয়া ৭ টি সমস্যার কথা উল্লেখ করেছেন, এগুলো হলো:

১. বেগম জিয়া অভিযোগ করেছেন, তাঁর হাঁটুর ব্যথা, হাতের ব্যথা বাড়ছেই। তাঁর সুচিকিৎসা হচ্ছে না। অবিলম্বে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের কাছে চিকিৎসার দাবি করেছেন বেগম জিয়া।

২. জেলখানায় খাবারের মান ক্রমশ: খারাপ হচ্ছে। ইচ্ছে করেই তাঁকে নিম্নমানের খাবার দেওয়া হচ্ছে। তিনি বাড়ি থেকে রান্না করা খাবারের অনুমতি চেয়েছেন।

৩. বেগম জিয়া বলেছেন, তাঁর থাকার ঘর স্যাঁতস্যাঁতে। সেখানে আলো বাতাস প্রবেশ করে না। অবিলম্বে তাঁকে আলো বাতাস যুক্ত একটি কারা কক্ষে স্থানান্তর করার দাবি করেছেন।

৪. বেগম জিয়া বলেছেন, তাঁর থাকার স্থানে প্রচুর মশার উপদ্রব। মশামুক্ত একটি পরিবেশে থাকতে চেয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া।

৫. বেগম জিয়া অভিযোগ করেছেন, তাঁর টয়লেট পুরোনো এবং ব্যবহারে অনুপযুক্ত।

৬. বিএনপি চেয়ারপারসন বলেছেন, কারাগারে বিদ্যুৎ থাকে না অথবা তাঁকে কষ্ট দেওয়ার জন্যেই বিদ্যুৎ বন্ধ করা হয়। তিনি কারা কক্ষে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ চেয়েছেন।

৭. বেগম জিয়া বলেছেন, তাঁর মামলার ব্যাপারে আলোচনার জন্য একদিন পর পর সাক্ষাতের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন।

কারা কর্তৃপক্ষ অবশ্য বেগম জিয়ার সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তারা বলেছেন, ডিভিশনপ্রাপ্ত একজন কয়েদি যে সুযোগ সুবিধা পান তারচেয়ে বেশি সুযোগ সুবিধা বেগম জিয়াকে দেওয়া হয়েছে। এতদিন পর্যন্ত বেগম জিয়া কারাগারে সুযোগ সুবিধা নিয়ে কোনো অভিযোগ করেননি। আকস্মিক ভাবে, এত অভিযোগ করার পেছনে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য আছে বলেও কারাগারের একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

অবশ্য বিএনপি নেতারা গত কিছুদিন ধরেই বেগম জিয়ার চিকিৎসাসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার অপ্রতুলতা নিয়ে কথা বলছিলেন। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বেগম জিয়াকে নিয়ে বিএনপি একের পর এক নাটক করছে। এতদিন অসুখ নিয়ে নাটক করল। এখন আবার নতুন নাটক শুরু হয়েছে।’ ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কারাগার আরাম আয়েশের জায়গা নয়। তারপরও বেগম জিয়াকে সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা দেওয়া হয়েছে। আর এটা দেওয়ার এখতিয়ার জেল কর্তৃপক্ষের।   




Read In English: https://bit.ly/2qGjpKu


বাংলা ইনসাইডার/জেডএ