ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কামরানের নির্বাচনী ক্যাম্পে আগুন ও অন্যান্য সংবাদ

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৩ জুলাই ২০১৮ সোমবার, ০৩:১৮ পিএম
কামরানের নির্বাচনী ক্যাম্পে আগুন ও অন্যান্য সংবাদ

শান্তি, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির শহর হিসেবে হযরত শাহজালাল (রহ.), হযরত শাহপরাণ (রহ.) ও হযরত বোরহান উদ্দিনের (রহ.) স্মৃতিবিজড়িত আধ্যাত্মিক চেতনাসঞ্চারী নগরী সিলেটের সুনাম সর্বজনবিদিত। এই পুণ্যভূমিতে কখনই রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেনি। অথচ সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এ নগরেই আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের নির্বাচনী ক্যাম্প। এতে ভস্মীভূত হয়েছে নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী ব্যানার, প্লাস্টিকে মোড়ানো পোস্টার, লিফলেট, পর্দাসহ জরুরি কাগজপত্র। (সমকাল)

অন্যান্য সংবাদ

বড় ধরনের ঝুঁকিতে জনতা ব্যাংক

বড় ঝুঁকিতে পড়েছে সরকারি খাতের জনতা ব্যাংক। ঋণ জালিয়াতি, ঋণ আদায়ে অব্যাহত ব্যর্থতা, ভুয়া রফতানির বিপরীতে সরকারি অর্থ ছাড় ব্যাংকটিকে মহাদুর্নীতির ফাঁদে আটকে ফেলেছে। উপরন্তু বিপুল অঙ্কের খেলাপি ঋণ কিনে খেলাপিকে ফের লম্বা কিস্তিতে ঋণ দেয়ার মতো নজিরবিহীন ঘটনাও ঘটেছে। এভাবে সীমাহীন অনিয়ম, দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে ব্যাংকটিকে একেবারে খাদের কিনারে নিয়ে গেছে প্রভাবশালী একটি চক্র। যারা এ ব্যাংকের বড় সুবিধাভোগী। এ তালিকায় ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদ ছাড়াও শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তারা জড়িত। যাদের সব ধরনের সহায়তা দিয়েছে পর্দার আড়ালে থাকা রাজনৈতিক বড় শক্তির আধার। (যুগান্তর)

সহায়ক সেনাবাহিনী ।। গণতন্ত্র সুসংহত করতে

দেশের গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠিত এবং সুসংহত করতে সুশৃঙ্খল ও শক্তিশালী সেনাবাহিনী অত্যন্ত সহায়ক ভূমিকা পালন করে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সেনাসদর নির্বাচনী পর্ষদের বৈঠকে সুশৃঙ্খল ও শক্তিশালী সেনাবাহিনীর উপর গুরুত্বারোপ করে বলেছেন, ‘সুশিক্ষিত, কর্মক্ষম, সচেতন, বুদ্ধিমান এবং সর্বোপরি গণতন্ত্রকে সুসংহত করার জন্য দৃঢ় প্রত্যয়ের অধিকারী এরূপ যোগ্য অফিসারদের কাছে নেতৃত্ব ন্যস্ত করতে হবে।’ একটি দেশের গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠিত এবং সুসংহত করতে একটি সুশৃঙ্খল ও শক্তিশালী সেনাবাহিনী অত্যন্ত সহায়ক ভূমিকা পালন করে।’ (জনকণ্ঠ)

দুই নেতার কথোপকথন ফাঁস, একজন গ্রেফতার

রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের পথসভার অদূরে বোমা হামলার ঘটনায় দায় স্বীকার করেছেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মতিউর রহমান মন্টু। এ ঘটনায় নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় দায়ের করা বিস্ফোরক আইনের মামলায় গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বিএনপি নেতা মন্টু পুলিশকে বিস্তারিত খুলে বলেছেন বলে জানিয়েছেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার। গতকাল রবিবার দুপুরে নিজের দপ্তরের সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আরএমপি কমিশনার বলেন, ওই বোমা হামলাটি যে বিএনপির লোকজনই করেছিল, তা গ্রেফতারকৃত জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মন্টু মোবাইলে নিজ দলের কেন্দ্রীয় সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপুকে জানিয়েছেন। সেই অডিও ক্লিপের কথোপকথন ফাঁস হওয়ার পর মন্টুকে গ্রেফতার করা হয়। এদিকে ইত্তেফাকের সঙ্গে আলাপকালে এই ধরনের কথোপকথনে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন তাইফুল ইসলাম টিপু। (ইত্তেফাক)

নির্বাচনী প্রচারণার আড়ালে সংগঠিত হচ্ছে জামায়াত : নাশকতার আশঙ্কা বাড়ছে

রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে অনেকটা কৌশলী অবস্থান নিয়েছে জামায়াত। মেয়র পদে প্রকাশ্যে গণসংযোগ না করলেও কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রচারণার আড়ালে ধানের শীষের পক্ষে ভোট চাচ্ছে তারা। বিশেষ করে রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় এলাকার আশপাশে এবং নগরীর সীমান্তবর্তী মহল্লাগুলোতে তারা বিএনপি প্রার্থীর পক্ষে গণসংযোগ ও প্রচারণা চালাচ্ছেন। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে সংগঠিত হচ্ছেন তারা। বিএনপির পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে, দৃশ্যমান না হলেও জামায়াত তাদের সঙ্গে আছে, তাদের পক্ষে কাজ করছে। (ভোরের কাগজ)


বাংলা ইনসাইডার/এসএইচটি/জেডএ