ঢাকা, সোমবার, ১০ মে ২০২১, ২৭ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

অডিও ফাঁসে উজ্জীবিত আ.লীগ বেকায়দায় বিএনপি   

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৪ জুলাই ২০১৮ মঙ্গলবার, ০৫:৫২ পিএম
অডিও ফাঁসে উজ্জীবিত আ.লীগ বেকায়দায় বিএনপি   

ককটেল বিস্ফোরণের বিষয়ে বিএনপির দুই নেতার কথোপকথনের অডিও ফাঁসের পর বেকায়দায় পড়েছে রাজশাহী বিএনপি। অপরদিকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আরও উজ্জীবিত হয়ে তাঁদের নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। 

গত মঙ্গলবার রাজশাহীর সাগরপাড়ায় বিএনপি প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের পথসভায় তিনটি ককটেল বিস্ফোরণ হয়। বিএনপির পক্ষ থেকে তখন এ ঘটনায় আওয়ামী লীগকে দায়ী করা হয়। তবে অডিও ফাঁস হওয়ার পর দেখা যায় এ ঘটনার সঙ্গে বিএনপি জড়িত। এর পর থেকেই রাজশাহীতে বিএনপি বেশ বিব্রতকর অবস্থার মধ্যে পড়েছে।

গত শনিবার দিবাগত রাতে এই বোমা বিস্টেম্ফারণের ঘটনায় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মন্টু এবং বিএনপির সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপুর সঙ্গে কথোপকথনের অডিও ফাঁস হয়। অডিও ফাঁসের পর পুলিশ মন্টুকে গ্রেফতার করেছে। এরপর থেকে বিএনপি নেতাকর্মীর মাঝে নতুন করে দেখা দিয়েছে গ্রেপ্তার আতঙ্ক।  

বিএনপি স্থানীয় কয়েকজন নেতার সাথে কথা বলে জানা যায়, এ ঘটনার পর বিএনপির দলীয় নেতাকর্মীরা অনেকটাই ভেঙে পড়েছেন। তাঁরা সিটি নির্বাচনে গ্রেপ্তারের ভয়ে মাঠে নামছেন না। এ অবস্থায় মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল সামান্য কিছু নেতাকর্মীকে নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। দলটির অধিকাংশ নেতাকেই দেখা যাচ্ছে না। এখনও জোটের অন্যাতম শরিক জামায়াতও মাঠে নামেনি বুলবুলের পক্ষে। 

অপরদিকে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এ এইচ এম খায়রুজ্জমান লিটনের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণা দেখা যায়, স্থানীয় নেতা-কর্মী ছাড়াও গাজীপুর ও খুলনায় নব নির্বাচিত দুই মেয়রকেও। আওয়ামী লীগের মেয়র পার্থী যেখানেই নির্বাচনী প্রচারণায় যাচ্ছেন, সেখানেই দেখা যাচ্ছে কিছুক্ষণের মধ্যে লোকে লোকারণ্য হয়ে পড়ছে।

স্থানীয় অনেক ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা যায়, সিটি নির্বাচনে খায়রুজ্জমান লিটনের সবথেকে বড় পুঁজি হলো, তিনি আগের মেয়াদে মেয়র থাকাকালে রাজশাহী সিটিতে অনেক দৃশ্যমান উন্নয়ন হয়েছে। কিন্তু বুলবুলের মেয়াদে তেমন কিছুই হয়নি। যে কারণে অনেক ভোটারদের ভাবনা যে, সিটি মেয়র যেই হোক না কেন তিনি যদি ক্ষমতাসীন দলের মেয়র না হায় তাহলে এলাকার উন্নয়ন সম্ভব না।    


বাংলা ইনসাইডার/আরকে/জেডএ