ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন 

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২ আগস্ট ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৫:২৩ পিএম
দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন 

ঢাকায় বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনার প্রতিবাদে রাজধানী প্রায় অচল হয়ে পড়েছে। নিরাপদ সড়কের দাবিতে ঢাকায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা জানিয়ে দেশের অন্যান্য স্থানেও শিক্ষার্থীরা আন্দোলন ও বিক্ষোভ করেছে।

গত ২৯ জুলাই দুপুরে রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে এমইএস বাস স্ট্যান্ডে জাবালে নূর পরিবহনের বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হন। এঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১০/১৫ জন শিক্ষার্থী।

দুই শিক্ষার্থীর নিহতের ঘটনায় ঢাকায় প্রথম দিন থেকেই আন্দোলন করছে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। আজ আন্দোলনের পঞ্চম দিনে দেশের অনেক স্থানেই আন্দোলন করছে বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা।

সড়কে নিরাপত্তা বৃদ্ধি ও বাস চালকদের নির্দিষ্ট কর্মঘণ্টা নিশ্চিত করার দাবিতে আন্দোলন করছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীরা। আজ বৃহস্পতিবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা থাকলেও দুপুর ১২ টার থেকে রাবি কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন শিক্ষার্থীরা।

নাটোরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে। আজ বেলা ১১টার দিকে নাটোর প্রেসক্লাবের সামনে থেকে শিক্ষার্থীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি নাটোরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে আবার প্রেসক্লাবের সামনে আসে। এরপর প্রেসক্লাবে শিক্ষার্থীরা একটি মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করে। মানববন্ধনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের ক্ষতিপূরণ এবং দায়ী ব্যক্তিদের সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়ার দাবি জানান শিক্ষার্থীরা। 

দিনাজপুরে ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ দাবিতে আন্দোলন করেছে শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত শহরের লিলিমোড়ে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন করে দিনাজপুরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

নিরাপদ সড়ক, ঘাতক বাস চালকদের বিচার এবং নৌমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের(বেরোবি) শিক্ষার্থীরা। বেলা ১১টা থেকে পার্কমোড়ে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন পালন করে শিক্ষার্থীরা। এ সময় শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন দাবি-দাওয়া সম্মলিত প্লেকার্ডসহ মানব্বন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।

বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনার প্রতিবাদে বরগুনায় আন্দোলনে নেমেছে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী। বেলা ১১টার দিকে বৃষ্টি উপেক্ষা করেই বরগুনার টাউনহল ও বরগুনা প্রেসক্লাব সংলগ্ন রোড এলাকায় সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন করে তারা। এ সময় বরগুনা পুলিশ সুপার বিজয় বসাক দাবি পূরণের আশ্বাস দিলে সড়ক থেকে সরে যায় শিক্ষার্থীরা।  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ করেছে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণ থেকে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করে। বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে এসে শেষ হয়। এরপর এখানে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

চুয়াডাঙ্গায় সড়কে অবস্থান করে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে শিক্ষার্থীরা। সকালে শহরের শহীদ হাসান চত্বর ও সরকারি কলেজের সামনে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। এ সময় সড়ক দুটিতে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। 

কুষ্টিয়ায় নিরাপদ সড়ক ও ঘাতক বাস চালকদের ফাঁসি এবং সড়কে নিরাপত্তা বৃদ্ধির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসুচি পালন করেছে ছাত্র-ছাত্রীরা। সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত শহরের মজমপুর গেটে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

নিরাপদ সড়ক ও শিক্ষার্থী হত্যার বিচারের দাবিতে মেহেরপুরে মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মেহেরপুর প্রেসক্লাবের সামনে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা মানববন্ধনে অংশ নেয়।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সকলেরই দাবি প্রায় একই ধরণের, ঘাতক বাস চালকদের সর্বোচ্চ শাস্তি প্রদান। সড়কে নিরাপত্তা বৃদ্ধিসহ নয় দফা দাবিতে তাঁরা আন্দোলন করছেন।  

বাংলাইনসাইডার/আরকে/জেডএ