ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কী থাকছে অনুমোদন হওয়া সড়ক পরিবহন আইনে?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬ আগস্ট ২০১৮ সোমবার, ০২:৩৮ পিএম
কী থাকছে অনুমোদন হওয়া সড়ক পরিবহন আইনে?

সড়ক দুর্ঘটনায় সর্বোচ্চ পাঁচ বছর কারাদণ্ড ও পাঁচ লাখ টাকা জরিমানার বিধান রেখে সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ এর খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন করা হয়েছে। আজ সোমবার সকাল ১০টায় সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে শুরু হওয়া এই বৈঠকে আইনটির খসড়া অনুমোদন করা হয়। নতুন আইন অনুযায়ী গাড়ি চালিয়ে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে হত্যা করলে ধারা ৩০২ অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ডের বিধান থাকবে।

সাজার এই বিধানগুলো ছাড়াও আরও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিধানের কথা মন্ত্রিপরিষদ সচিব প্রেস ব্রিফিং এ উল্লেখ করেছেন। এর মধ্যে আছে বয়সের বাধ্যবাধকতা। ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান, নবায়ন, ঠিকানা পরিবর্তনের জন্য চালকের বয়স অন্তত ১৮ হতে হবে। তবে পেশাদার চালকের জন্য এই বয়স নির্ধারণ করা হয়েছে ২১ বছর। চালকের লেখাপড়ার যোগ্যতা কমপক্ষে অষ্টম শ্রেণি বা সমমানের হতে হবে। এটি আগের আইনে ছিল না।

নতুন আইনে একজন ড্রাইভারের জন্য ১২ পয়েন্ট বরাদ্দ থাকবে। নির্দিষ্ট ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করার সঙ্গে সঙ্গে এই পয়েন্ট এক এক করে কাটা যাবে। পয়েন্ট জিরো হয়ে গেলে ড্রাইভিং লাইসেন্স বাতিল হয়ে যাবে।

এছাড়া চালক অসুস্থ, অপ্রকৃতস্থ, শারীরিক বা মানসিকভাবে অক্ষম, মদ্যপ বা অপরাধী প্রমাণিত হলে কর্তৃপক্ষ তাঁর লাইসেন্স বাতিল করতে পারবে।

নতুন আইনে মোটরযানের সংখ্যা নির্ধারণ করা বিষয়েও বিধান যুক্ত করা হয়েছে। সড়ক পরিবহন আইন অনুযায়ী জনস্বার্থে যেকোনো এলাকায় সরকার মোটরযানের সংখ্যা নির্ধারণ করতে পারবে। নির্ধারিত সংখ্যার বেশি মোটরযান রাস্তায় নামতে পারবে না।

এছাড়া আইনের ৩৬ ধারায় অর্থনৈতিক লাইসেন্সের বিধান সংযুক্ত করা হয়েছে। এই ধারা অনুযায়ী সরকার ও সরকারের অনুমোদন ক্রমে কর্তৃপক্ষ যেকোনো মোটরযানের ইকোনমিক লাইসেন্স সরকারি প্রজ্ঞাপন দ্বারা নির্ধারণ করবে।

আইনের ৩৯ ধারায় সংযুক্ত করা হয়েছে কর্মঘণ্টার বিষয়টি। অনেক দিন ধরেই আলচনা চলছে ড্রাইভার, হেলপারদের যথাযথভাবে বিশ্রাম হয় না, যে কারণে দুর্ঘটনার আশঙ্কা বাড়ে। নতুন আইনে সরকারি গেজেটের প্রজ্ঞাপন দ্বারা বাংলাদেশ সরকার পরিবহন চালক,কন্ডাক্তার, হেল্পারদের কর্মঘণ্টা নির্ধারণ করে দেবে এবং নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান সেটি মনে চলবে।

এছাড়া নতুন আইনে ওজন সীমা নিয়ন্ত্রণ, মোটরযানের গতিসীমা নিয়ন্ত্রণ, শব্দমাত্রা নিয়ন্ত্রণ, মোটর যান পার্কিং এর নিয়ম সংক্রান্ত বিধিবিধানও অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচটি/জেডএ