ঢাকা, সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ঈদ যাত্রায় দুর্ভোগে ঘরমুখো মানুষ

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ২১ আগস্ট ২০১৮ মঙ্গলবার, ১২:২৪ পিএম
ঈদ যাত্রায় দুর্ভোগে ঘরমুখো মানুষ

পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে সড়ক পথে চট্টগ্রাম রওয়ানা হয়েছিলেন আসিফ সাহেব। আগে থেকেই নাইট কোচের টিকেট কিনে রেখেছিলেন তিনি। গতকাল সোমবার অফিস শেষে খুশি মনে বাসে উঠে পড়েছিলেন আসিফ সাহেব। পাঁচ-ছয় ঘন্টার জার্নি, সকাল হতেই পোঁছে যাবেন এমন আশা ছিল তাঁর। কিন্তু জ্যামে পড়ে ছয় ঘন্টার জার্নি গিয়ে পৌঁছালো ১২ ঘন্টার জার্নিতে।

শুধু আসিফ সাহেবই নয়, নাড়ির টানে বাড়ি ফিরতে গিয়ে ভোগান্তিতে পড়ছে ঘরমুখো অধিকাংশ মানুষ। কোরবানির পশুবাহী ট্রাক ও ঘরমুখো মানুষের আধিক্যের কারণে এমনিতেই রাস্তায় যানবাহনের বাড়তি চাপ রয়েছে। তার ওপর রাস্তার ধারে কোরবানির পশুর হাট বসায় দেশের সড়ক-মহাসড়কগুলোতে যানজট প্রকট আকার ধারণ করেছে। এছাড়া বাস মালিকরা অনেক ক্ষেত্রে সময় মতো বাস ছাড়ছেন না, অনেক সময়য় চাইছেন বাড়তি ভাড়া। এতেও ভোগান্তিতে পড়ছে ঘরমুখো মানুষ।

এছাড়া এবারের ঈদুল আজহায় ফেরি সংকট বিরাট সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌপথে পানির গভীরতা কমে যাওয়ায় বড় ফেরি চলাচল বন্ধ আছে। আবার পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ফেরি চলাচল করলেও তীব্র স্রোতের কারণে ফেরি চলছে ধীরগতিতে। ফলে উভয় ঘাটের দুই পারে যানবাহন দাঁড়িয়ে থাকছে ঘন্টার পর ঘন্টা।

এবারের ঈদ যাত্রায় স্বস্তি নেই রেল পথেও। ঢাকা থেকে প্রায় সব কয়টি ট্রেন দেরি করে ছাড়ছে। ফলে স্টেশনে দীর্গ সময় অপেক্ষা করতে করতে হাঁপিয়ে উথছে মানুষ। এমনকি গতকাল সোমবার রাত ১০টা ৫৫ মিনিটের দিনাজপুর ঈদ স্পেশাল ট্রেন নয় ঘণ্টা দেরি করে আজ মঙ্গলবার সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে কমলাপুর স্টেশন ছেড়ে যায়। ১৬-১৭ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে টিকেট সংগ্রহ করার পর এমন ভোগান্তিতে তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন রেল যাত্রীরা।

সব মিলিয়ে এবারের ঈদ যাত্রা যাত্রীদের জন্য সুখকর হবে না, এমনটাই মনে হচ্ছে।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচটি