ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ট্রাকবোঝাই ওএমএসের চাল-গম-আটা জব্দ, দুজন আটক

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ রবিবার, ১০:৫৯ এএম
ট্রাকবোঝাই ওএমএসের চাল-গম-আটা জব্দ, দুজন আটক

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দ ট্রাকবোঝাই ওএমএসের চাল, গম ও আটা জব্দ করেছে র‍্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। এই ঘটনায় খাদ্য গুদামের ম্যানেজারসহ দুজনকে আটক করা হয়েছে। গতকাল শনিবার রাতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত এই অভিযান চালায়।

র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, রাজধানীর তেজগাঁওয়ের সিএসডি খাদ্যগুদাম থেকে ৮টি ট্রাকে করে ১১৫ টন চাল, গম ও আটা পাচার করে বাজারে বিক্রির পাঁয়তারা করছিল একটি সংঘবদ্ধ চক্র। এর সূত্র ধরে অভিযান চালিয়ে মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেট থেকে উদ্ধার করা হয় ওএমএসের কয়েক হাজার বস্তা চাল-আটা-গম।

নির্ধারিত মূল্যে দৈনিক ২ টন চাল ও একটন আটা বিক্রির শর্তে হতদরিদ্রদের মাঝে স্বল্পমূল্যে আটা ও চাল খোলাবাজারে বিক্রির জন্য ঢাকায় ১৪১টি স্থান নির্ধারন করে দিয়েছে সরকার। কিন্তু বেশ কয়েকদিন ধরে কেন্দ্রীয় খাদ্য গুদাম থেকে চাল-আটা স্পটগুলোতে না পৌঁছানোয় শনিবার রাত ১০ টার পর থেকেই অভিযান শুরু করে র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। তাৎক্ষণিকভাবে পরীক্ষা করে গুদামের নথিপত্রে অনেক অসঙ্গতি খুঁজে পায় তাঁরা। এর আগে কেন্দ্রীয় খাদ্য গুদাম থেকে সন্ধ্যার পর ৮ টি ট্রাক বের হতে দেখা যায়, যদিও বিকেল পাঁচটার পরে কেন্দ্রীয় খাদ্য গুদাম থেকে কোনো ট্রাক বের হওয়ার নিয়ম নেই। পথিমধ্যেই ট্রাকগুলো আটক করে ১১৬ টন ওএমএসের আটা জব্দ করে র‍্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় ২০ নং গোডাউনের ইন্সপেক্টর মনিয়ার হোসেনকে আটক করে র‌্যাব।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর কেন্দ্রীয় খাদ্য গুদামের ম্যানেজারকে নিয়ে মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটে অভিযানে যায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। সেখানে গিয়ে কেন্দ্রীয় খাদ্য গুদামের সিল দেয়া কয়েক হাজার বস্তা ওএমএসের আটা ও চাল পড়ে থাকতে দেখা যায়।

এই ঘটনায় খাদ্য গুদামের ব্যবস্থাপক সব দায় অস্বীকার করেন। তবে ব্যবস্থাপককে আটক করে র‍্যাব। আটক হওয়া দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচটি