ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

উদ্বোধন হলো ‘গঙ্গাচড়া শেখ হাসিনা সেতু’

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ রবিবার, ০২:০২ পিএম
উদ্বোধন হলো ‘গঙ্গাচড়া শেখ হাসিনা সেতু’

‘গঙ্গাচড়া শেখ হাসিনা সেতু’-র উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বেলা১২টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী সেতুটির উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনের পর পরই সেতুটি যান ও জনসাধারণের চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে।

মহিপুর-কাকিনা পয়েন্টে এলজিইডির বাস্তবায়নে নবনির্মিত ৮৫০ মিটার দৈর্ঘের এই সেতু নির্মাণকালে দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতু হিসেবে প্রচার করা হয়েছিল। পরে রংপুরের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন ও গঙ্গাচড়া উপজেলাবাসীর দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্নের বাস্তবরূপ দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতাস্বরূপ তাঁর নামে নতুন এই সেতুর নামকরণ করা হয়েছে।

ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘যোগাযোগ ব্যবস্থা যত ভালো হবে, মানুষের আর্থিক অবস্থা ততোই ভালো হবে। সেইসঙ্গে দারিদ্রতা হ্রাস পাবে। তাঁর সরকার সেই লক্ষে্যই কাজ করছে।’

এ সময় নেপাল, ভুটান ও ভারতের সঙ্গে আন্তঃযোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তির কথাও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিস্তার এক পাশে রংপুর, আরেক পাশে লালমনিরহাট। এজন্য লালমনিরহাটের বুড়িমারী স্থলবন্দরসহ চারটি উপজেলার লোকজনকে রংপুরসহ সারাদেশে যাতায়াত করতে প্রায় ৫০ কিলোমিটার ঘুরতে হতো। এ সেতু নির্মাণের ফলে তাদের এই ৫০ কিলোমিটার পথের যাত্রা, সময় ও অর্থ সাশ্রয় হবে এবং একসময়ের ‘মঙ্গাপ্রবণ’ এ এলাকার আমূল পরিবর্তন ঘটবে বলে আশা প্রকাশ করা হচ্ছে।

‘গঙ্গাচড়া শেখ হাসিনা সেতু’ নির্মাণে ১২৩ কোটি ৮৬ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে। ৮৫০ মিটার দৈর্ঘ্য ও ফুটপাতসহ ৯ দশমিক ৬ মিটার প্রস্থের সেতুতে ১৬টি পিলার, দুটি অ্যাপার্টমেন্ট ও ১৭টি স্প্যানে ৮৫টি গার্ডার রয়েছে। এর বাইরে সেতু রক্ষায় উভয় পাশে এক হাজার ৩০০ মিটার নদীশাসন বাঁধ নির্মাণ করা হয়েছে। সেতুর সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনে লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কের কাকিনা থেকে সেতু পর্যন্ত নির্মাণ করা হয়েছে ৫ দশমিক ২৮ কিলোমিটার সড়ক। তিতাসের ওপর সেতুটি চালু হওয়ায় বাঞ্ছারামপুর, নবীনগর, হোমনা ও মুরাদনগর উপজেলার যোগাযোগ ব্যবস্থা দারুণভাবে বদলে যাবে বলে আশা করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

এর আগে ভিডিও কনফারেন্সে রংপুর ও গাজীপুর মহানগর পুলিশের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় জঙ্গিবাদ দমনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রশংসা করেন তিনি।

বাংলা ইনসাইডার/বিকে/জেডএ