ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

টিকে থাকাই চ্যালেঞ্জ বিএনপি জোটের এবং অন্যান্য সংবাদ

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বর ২০১৮ শুক্রবার, ০৮:৪৯ এএম
টিকে থাকাই চ্যালেঞ্জ বিএনপি জোটের এবং অন্যান্য সংবাদ

বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট এবং নতুন গড়া জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে টিকে থাকতে পারবে কি না, সে প্রশ্ন এখন বড় হয়ে দেখা দিয়েছে। কারণ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েও এখনো স্বস্তিতে নেই দলগুলো। বরং ওই সব জোটের প্রার্থীরা শেষ পর্যন্ত নির্বিঘ্নে নির্বাচনী প্রচার চালাতে পারবেন কি না সেটাই তাঁদের বড় চিন্তা। এ ছাড়া গ্রেপ্তার আতঙ্ক কাটিয়ে জোটের কর্মীদের নির্বাচনী এলাকায় নেওয়া যাবে কি না, সে দুশ্চিন্তাও আছে বিএনপিসহ জোটের নেতাদের মধ্যে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বেশ কয়েকজন নেতার সঙ্গে কথা বলে এমনটি জানা গেছে। (কালের কন্ঠ)

অন্যান্য সংবাদ

ঐক্যফ্রন্টের ঘোষণা দেখে প্রার্থী দেবে আওয়ামী লীগ

দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করতে আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের সদস্যরা দফায় দফায় বৈঠক করছেন। এরই মধ্যে দুটি বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে দেশি-বিদেশি ৫/৬টি জনমত জরিপ রিপোর্ট বিশ্লেষণ করা হয়। আগামী ২২ নভেম্বরের মধ্যেই চূড়ান্ত করা হবে ৩০০ আসনে দলীয় প্রার্থী। তবে ঘোষণা করতে আরও দু-একদিন সময় নেবে ক্ষমতাসীন দলটি। কারণ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়ন দেখেই প্রার্থী ঘোষণা করতে চায় আওয়ামী লীগ। ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থীকে মোকাবিলা করার জন্য শক্তিশালী প্রার্থী দেওয়া হবে। সে কারণে চূড়ান্ত তালিকায় থাকলেও শেষ মুহূর্তে বাদ পড়তে পারেন কেউ কেউ। আবার কারও কারও কপাল খুলে যাওয়ার জোর সম্ভাবনা রয়েছে। দলের নীতি নির্ধারণী ফোরামের একাধিক নেতা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে। (বাংলাদেশ প্রতিদিন)

ফের হোঁচট খেল রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া

যে বিশ্ব চাপের মুখে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের ধাপে ধাপে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার রাজি হয়ে অভ্যর্থনা জানাতে বৃহস্পতিবার প্রস্তুত ছিল। শেষ পর্যন্ত তা ব্যর্থ হয়ে গেছে। ইতোপূর্বে কয়েক দফা উভয় দেশের প্রতিনিধি দলের বৈঠক শেষে বৃহস্পতিবার থেকে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন শুরু হওয়ার দিনক্ষণ ধার্য ছিল। প্রথম দফায় ৩০ পরিবারের দেড় শ’ জনকে প্রত্যাবাসন করার কথা ছিল। কিন্তু সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত তুমব্রুর জিরো পয়েন্টের ওপারে অপেক্ষার পর মিয়ানমার পক্ষ বলা যায় খালি হাতেই ফিরে গেছে। ফিরে যাওয়ার পূর্ব মুহূর্তে বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়কের সীমানা বরাবর এপার থেকে বিজিবির (বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড) একটি প্রতিনিধি দল গিয়ে ওপারে অপেক্ষমাণদের জানান দেয় প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে না। এপারের পক্ষের এমন ইঙ্গিত পেয়ে ওপারের পক্ষ গুটিয়ে ফেলে অভ্যর্থনার যাবতীয় প্রস্তুতি। এ ঘটনা নিয়ে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার আবুল কালাম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, রোহিঙ্গাদের অনীহার কারণে প্রত্যাবাসন শুরু হয়নি। প্রত্যাবাসনের পরবর্তী তারিখ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন। এ ঘটনার পর সন্ধ্যায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বিদেশী কূটনীতিক ও সাহায্য সংস্থার প্রতিনিধিদের এ বিষয়ে ব্রিফিং করেছেন। (জনকন্ঠ)

পুলিশের গাড়িতে আগুন দেয় ছাত্রদল নেতা

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বুধবার দুপুরে পুলিশের সঙ্গে দলটির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনায় তিনটি মামলা করেছে পুলিশ। এতে ৪৮৮ জনকে আসামি করা হয়েছে। আর এসব মামলায় মির্জা আব্বাসসহ ৬ নেতাকে হুকুমের আসামি করা হয়েছে। তিন মামলায় পুলিশ ৬৬ জনকে গ্রেপ্তার করে। এদের মধ্যে গতকাল রাতে মহানগর পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে নিপু চৌধুরীকে। সঙ্গীতশিল্পী ও বিএনপি নেত্রী বেবী নাজনীনকে আটক করা হলেও পরে ছেড়ে দেওয়া হয়।

সংঘর্ষের সময় পুলিশের গাড়িতে আগুন দেওয়া যুবককে শনাক্ত করা গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, দিয়াশলাই দিয়ে আগুন দেওয়া ওই যুবক পল্টন থানা ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শাহজালাল খন্দকার। গতকাল বৃহস্পতিবার ইত্তেফাককে এ তথ্য জানান, ঢাকা মহানগর পুলিশের মতিঝিল জোনের উপ কমিশনার (ডিসি) আনোয়ার হোসেন। (ইত্তেফাক)

বাংলা ইনসাইডার/এএইচসি