ঢাকা, শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ক্ষমা চাইল ভিকারুননিসার পরিচালনা কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৩:৫৯ পিএম
ক্ষমা চাইল ভিকারুননিসার পরিচালনা কমিটি

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী অরিত্রি অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় তার মা-বাবার কাছে পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে ক্ষমা চেয়েছেন কমিটির সভাপতি গোলাম আশরাফ তালুকদার।  আজ বৃহস্পতিবার তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা মর্মাহত।  আমরা এ ঘটনার জন্য অরিত্রীর বাবা-মায়ের কাছে ক্ষমা চাই।’

অরিত্রীর আত্মহত্যার ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির ক্লাশ ও পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করা হয়।  কিন্তু ছয় দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আন্দোলন অব্যাহত রাখে শিক্ষার্থীরা।  শিক্ষা মন্ত্রণালয় লিখিতভাবে আশ্বাস দেওয়ার পরই শুধুমাত্র তারা আন্দোলন থেকে সরে যাবে বলে জানায়।  কোনো শিক্ষার্থীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হবে না-এমন নিশ্চয়তা দেওয়া, কথায় কথায় শিক্ষার্থীদের টিসির হুমকি না দেওয়া, প্রত্যেক ক্লাশে মনোবিদের ব্যবস্থা রাখা, আন্দোলনকারী কারও বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না নেওয়া প্রভৃতি দাবির বিষয়ে লিখিত প্রতিশ্রুতি চায় ছাত্রীরা। এসময় তারা পরিচালনা পর্ষদের পদত্যাগ দাবি করে।   এরই প্রেক্ষিতে আজ দুপুরে গোলাম আশরাফ তালুকদার ক্ষমা চাওয়ার বিষয়টি জানান।

পরিচালনা কমিটির সদস্যদের পদত্যাগের দাবির বিষয়ে গোলাম আশরাফ বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানের বৃহৎ স্বার্থে পদত্যাগ করতে হলে আমি পদত্যাগ করব।  পুরো পরিচালনা কমিটির পদত্যাগের বিষয়টি বোর্ডের মিটিংয়ে উত্থাপন করা হবে।  তারপর যে সিদ্ধান্ত হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘শিক্ষকদের গ্রেপ্তার বা অন্যান্য বিষয় আইনগত প্রক্রিয়ার মাধ্যমে চলছে।  আমিও চাই, এটি আইনগত প্রক্রিয়ায় চলুক।  এই ধরনের ঘটনা আইনের প্রক্রিয়ায় আনা উচিত, যেন ভবিষ্যতে কোনো বাবা–মায়ের বুক খালি না হয়।’ কাল ও পরশু পরীক্ষার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা চাই, শিক্ষার্থীরা ফিরে আসুক। তবে কাউকে জোর করা যাবে না। তারা নিজের ইচ্ছায় পরীক্ষা দিক।’

গত সোমবার দুপুরে শান্তিনগরের নিজ বাসা থেকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী অরিত্রি অধিকারীর (১৫) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। পরীক্ষাকেন্দ্রে মোবাইল ফোন রাখার অভিযোগে তার বাবা-মাকে স্কুল কর্তৃপক্ষ অপমান করায় সে আত্মহত্যা করে বলে জানা যায়। এরপরই বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে ভিকারুননিসার শিক্ষার্থীরা। ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে তৃতীয় দিনের মতো আন্দোলন করছে তারা।

বাংলা ইনসাইডার/এমআর/জেডএ