ঢাকা, সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

হাইকোর্টে খালেদার প্রার্থিতা বাতিলের রিটের শুনানি শেষ, রায় কাল

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ সোমবার, ০৪:২৬ পিএম
হাইকোর্টে খালেদার প্রার্থিতা বাতিলের রিটের শুনানি শেষ, রায় কাল

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার তিন আসনে মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে করা রিটের শুনানি শেষ হয়েছে। আগামীকাল মঙ্গলবার রায় ঘোষণা করা হবে।

গতকাল রোববার সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ সোমবার আদেশের দিন ধার্য করেন।  খালেদা জিয়ার রিট আবেদনের বিষয়টি খালেদা জিয়ার আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলী আদালতকে অবহিত করেন।  এ সময় ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, নওশাদ জমির ও অ্যাডভোকেট ফারুক হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার জন্য বগুড়া-৬, বগুড়া-৭ ও ফেনী-১ আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা দেন বেগম খালেদা জিয়া।  ২ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের শুরুর দিনে ফেনী জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মো. ওয়াহিদুজ্জামান ফেনী-১ আসনের খালেদার মনোনয়নপত্রটি বাতিল ঘোষণা করেন।  অন্যদিকে বগুড়া-৬ ও বগুড়া-৭ আসনে তার মনোনয়নপত্র বাতিলের ঘোষণা দেন বগুড়া জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা।

এরপর ৫ ডিসেম্বর চেয়ারপারসনের তিনজন আইনজীবী অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার, ব্যারিস্টার নওশাদ জমির ও ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বগুড়া ৭ ও ৬ এবং ফেনী-১ আসনে  খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা বহালে আপিল করেছেন।  ব্যারিস্টার নওশাদ জমির বগুড়া-৬, অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার বগুড়া-৭ ও ব্যারিস্টার কায়সার কামাল ফেনী-১ আসনের জন্য ইসিতে আপিল করেন।      

গত ৮ ডিসেম্বর শুনানি শেষে খালেদা জিয়ার ফেনী-১, বগুড়া-৬ এবং বগুড়া-৭ আসনের মনোনয়নপত্র বাতিল করে নির্বাচন কমিশন।  আপিল শুনানিতে চার-এক ভোটে খালেদার মনোনয়ন বাতিলের সিদ্ধান্ত হয়। এরপরই খালেদা প্রার্থিতা ফিরে পেতে হাইকোর্টে রিট করে খালেদার আইনজীবীরা।

দুই দফা প্রার্থিতা বাতিলের পর হাইকোর্টে রিট করেন খালেদার আইনজীবীরা।  আগামীকাল শুনানির রায় খালেদা জিয়ার পক্ষে থাকলে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে আর কোন বাধা থাকবে না।  তবে রায় বিপক্ষে গেলে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার আর কোন সুযোগ অবশিষ্ট থাকবে না।

বাংলা ইনসাইডার/এমআর