ঢাকা, বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

যে প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে প্রয়োজন দুই তৃতীয়াংশ আসন

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ সোমবার, ০৭:৩০ পিএম
যে প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে প্রয়োজন দুই তৃতীয়াংশ আসন

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট যে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছে সেগুলোর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ প্রতিশ্রুতিগুলো বাস্তবায়নের জন্য জাতীয় সংসদে দুই তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রয়োজন হবে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আগামী নির্বাচনে দুই তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেলে সংবিধান সংশোধনও হবে না এবং প্রতিশ্রুতিগুলোর বাস্তবায়নও হবে না।  

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ১৪ টি প্রতিশ্রুতির ঘোষণা প্রদান করেছে। এই ১৪ টি প্রতিশ্রুতির ৩ নম্বরে ক্ষমতার ভারসাম্যের কথা বলা হয়েছে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ক্ষমতার ভারসাম্যের বিষয়ে যে প্রতিশ্রুতির কথা বলেছে সেগুলো হচ্ছে:

  • নির্বাচনকালীন সরকারের বিধান তৈরি করা, নির্বাচন কমিশনকে পূর্ণাঙ্গ স্বাধীনতা দেয়াসহ অন্যান্য পদক্ষেপ নেয়ার মাধ্যমে মুক্তভাবে মানুষের ভোটাধিকার প্রয়োগের অধিকার নিশ্চিত করা হবে।

  • সংসদে একটি উচ্চকক্ষ সৃষ্টি করা হবে। সবার সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে ৭০ অনুচ্ছেদের পরিবর্তন আনা হবে।

  • প্রধানমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রপতির ক্ষমতার ভারসাম্য আনা হবে। একটানা পরপর দুই মেয়াদের বেশি প্রধানমন্ত্রী থাকা যাবে না।

  • সংসদের ডেপুটি স্পিকার বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যদের মধ্য থেকে নির্বাচিত হবে।

  • সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সভাপতির পদ সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী রাজনৈতিক বিরোধীদলের জন্য নির্দিষ্ট থাকবে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট কর্তৃক ঘোষিত এই প্রতিশ্রুতিগুলো বাস্তবায়ন করতে গেলে সংবিধান সংশোধন করতে হবে। সুতরাং দেখা যাচ্ছে এই প্রতিশ্রুতিগুলো বাস্তবায়ন করতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে সংসদে দুই তৃতীয়াংশ আসন পেতেই হবে। তা না হলে মৌলিক এই প্রতিশ্রুতিগুলো শুধুমাত্র প্রতিশ্রুতি হয়েই থেকে যাবে, বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না।  

বাংলা ইনসাইডার/আরকে