ঢাকা, শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মির্জা ফখরুল কোন দেশের হয়ে যুদ্ধ করেছিলেন?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮ রবিবার, ০৬:৫০ পিএম
মির্জা ফখরুল কোন দেশের হয়ে যুদ্ধ করেছিলেন?

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের প্রচারিত ভিডিও বার্তার জবাব দিয়েছেন মোহাম্মদ এ আরাফাত।   

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কর্তৃক প্রচারিত একটি ভিডিওতে নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে উপস্থাপন করে তরুণ ভোটারদের উদ্দেশে একটি বক্তব্য প্রচার করেছেন। তাঁর সেই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে পাল্টা প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন মোহাম্মদ এ আরাফাত।  

গণমাধ্যমে প্রকাশিত আরাফাত মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কোন দেশের হয়ে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন? সেই যুদ্ধে কারা তার সঙ্গী ছিল? ১৯৭১ সাল এবং ২০১৮ সালের যুদ্ধ কি একই যুদ্ধ, এবং সেই একই জামায়াত, যুদ্ধাপরাধী এবং রাজাকার কি তার উভয় যুদ্ধের সঙ্গী?’

তিনি বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে আরও বলেন, ‘১৯৭২-৭৫ আমলে আওয়ামী লীগ সরকার যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরু করেছিল এবং জামায়াতকে নিষিদ্ধ করেছিল। মির্জা ফখরুলের দল যুদ্ধাপরাধের বিচার বন্ধ করে দিয়ে রাজাকারদের পুনর্বাসন করেছিল বাংলাদেশে। শুধু তাই নয়, দীর্ঘ ৩৭ বছর পর আওয়ামী লীগ যখন আবারও ২০০৯ সালে যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরু করলো, মির্জা ফখরুলের দল তখন সমস্ত শক্তি দিয়ে এই বিচার প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করেছে।’

‘৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনেও মির্জা ফখরুলের দল রাজাকার জামায়াতকে তাদের ধানের শীষ দিয়ে নির্বাচনে নিয়ে এসেছে। মুক্তিযুদ্ধবিরোধী রাজাকারদের সঙ্গে নিয়ে মির্জা ফখরুল কোন যুদ্ধের ডাক দিচ্ছেন?’

‘মির্জা ফখরুল কি ভেবেছেন নতুন প্রজন্ম কিছুই বোঝে না? আসলে তিনি নিজেই বোকার স্বর্গে বাস করছেন। নতুন প্রজন্ম ভোট দেবে, অবশ্যই ভোট দেবে এবং বুঝে শুনেই ভোট দেবে। ভোটের মাধ্যমে নতুন প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষ শক্তি এবং তার পৃষ্ঠপোষকদের প্রত্যাখ্যান করবে।’

বাংলা ইনসাইডার/আরকে