ঢাকা, সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

১০ বছরে পা রাখলো বাংলাদেশ প্রতিদিন

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০১৯ শুক্রবার, ০১:৪০ পিএম
১০ বছরে পা রাখলো বাংলাদেশ প্রতিদিন

দেশের শীর্ষস্থানীয় জনপ্রিয় দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন দশম বছরে পা রাখলো। ঠিক নয় বছর আগে ‘এলাম এবং জয় করলাম’ অভিধার সার্থক রূপায়ণ ঘটেছিল নতুন প্রজন্মের এ দৈনিকটির অভ্যুদয়ে। তেমন কোনো পূর্বপ্রস্তুতি ছাড়াই পথচলা শুরু করে দৈনিকটি। কিন্তু দেশবাসীর কাছে আশা ভরসার আশ্রয়স্থল হতে বেশি সময় লাগেনি বাংলাদেশ প্রতিদিন এর।

মূলত পাঠকদের ভালোবাসাই তাদের এগিয়ে যাওয়ার মূল পাথেয় ছিল এবং আছে। চালুর প্রথম বছরেই প্রচারসংখ্যার শীর্ষে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ প্রতিদিন। সবার ভালোবাসা আর আকাঙ্ক্ষায় প্রতিদিন একটু একটু করে সম্প্রসারিত হয়েছে তারা। প্রতিদিন বেড়েছে পাঠক সংখ্যা। বাংলাদেশ প্রতিদিনের পথচলায় শুধু সত্য আর বস্তুনিষ্ঠতার নির্দেশনাকে অনুসরণ করে এতদূর এগিয়েছে তারা।

সবচেয়ে বড় পাথেয় ছিল মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, গণতন্ত্র এবং সমৃদ্ধ দেশ গড়ার প্রত্যয়। বাংলাদেশ প্রতিদিন চলার পথে কারও সঙ্গে প্রতিযোগিতা নয়, নিজেকে প্রতিনিয়ত অতিক্রম করাকে করণীয় কর্তব্য হিসেবে বেছে নিয়েছে। নেতিবাচক ধ্যান-ধারণাকে পাশ কাটিয়ে প্রতিক্ষেত্রেই ইতিবাচক থাকায় চেষ্টায় কাজ করেছে তারা, এখনো করছে। প্রচারসংখ্যায় শীর্ষে থেকেই শুধু নয়, আরও বেশি দায়িত্বশীল হওয়াটাই তাদের কাছে মূখ্য দায়িত্ব।

বর্ষপূর্তি উপলক্ষে গতকাল সন্ধ্যায় রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় বাংলাদেশ প্রতিদিন কার্যালয়ে কেক কাটেন বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহান। সম্পাদক নঈম নিজামসহ বাংলাদেশ প্রতিদিন পরিবারের সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন অনুষ্ঠানে। দের নিয়ে কেক কাটেন তিনি। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রতিদিনের নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমান, কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, নির্বাহী সম্পাদক মোস্তফা কামাল, নিউজ টোয়েন্টিফোরের ইনচার্জ হাসনাইন খুরশিদ, বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোরের সম্পাদক জুয়েল মাজহার, ডেইলি সানের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক নাদিম কাদির প্রমুখ।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহান বলেন, ‘বাংলাদেশ প্রতিদিন ১০ বছরে পা রাখছে এটা আমাদের সবার জন্য আনন্দের। এটা আমাদের সন্তানের মতো। বাংলাদেশের এক নম্বর কাগজ। বাংলাদেশ প্রতিদিনের এ অবস্থান ধরে রেখে উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করছি।’ স্বাগত বক্তব্যে নঈম নিজাম বলেন, ‘প্রযুক্তির এই যুগে প্রিন্ট মিডিয়ার সাফল্য ধরে রাখা বড় চ্যালেঞ্জ। বাংলাদেশ প্রতিদিন সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে দেশের শীর্ষ দৈনিকের অবস্থান ধরে রেখেছে। সবার ঐকান্তিক প্রচেষ্টা ও ভালোবাসায় বাংলাদেশ প্রতিদিন আরও এগিয়ে যাবে- এ প্রত্যাশাই করি।’

দশম জন্মদিনে আগামী দিনগুলোতে তাদের জন্য রইলো শুভেচ্ছা এবং শুভকামনা।

 

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ