ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

বিদেশ থেকে সোনা আনায় সুবিধা বাড়ল

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৩ জুন ২০১৯ বৃহস্পতিবার, ০৪:২৩ পিএম
বিদেশ থেকে সোনা আনায় সুবিধা বাড়ল

বিদেশ থেকে সোনা আনার ক্ষেত্রে আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছর থেকে বাড়তি সুবিধা পাবেন যাত্রীরা। এ জন্য শুল্ক সুবিধা দিতে ‘ব্যাগেজ রুলস-এ পরিবর্তন আনা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট জাতীয় সংসদে পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল। যদিও অর্থমন্ত্রী বাজেট পেশ সম্পূর্ণ করতে পারেনি। প্রধানমন্ত্রী বাজেট পেশ করছেন।

বর্তমানে প্রতি ভরি সোনা আনার ক্ষেত্রে ৩ হাজার টাকা শুল্ক দিতে হয়। আগামী অর্থবছরে এটি ভরিপ্রতি ২ হাজার টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে। তবে বিদ্যমান অন্যান্য শর্ত অপরিবর্তিত থাকবে।

ব্যাগেজ রুলসের বিদ্যমান শর্ত অনুযায়ী, অবশ্যই যাত্রীদের বিদেশ থেকে আনা সোনা বার বা স্বর্ণপিণ্ড হতে হবে। একজন যাত্রী একসঙ্গে ১২টির বেশি সোনার বার আনতে পারবেন না।

বর্তমানে একজন যাত্রী সর্বোচ্চ ১০০ গ্রাম সোনার গয়না বিনা শুল্কে আনতে পারেন। এ ছাড়া শুল্ক দিয়ে সর্বোচ্চ ২৩৪ গ্রাম বা ২০ ভরি ওজনের সোনার বার আনতে পারেন। এই শর্ত অপরিবর্তিত রেখে শুল্ক কমানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

এবারের বাজেটে সর্বোচ্চ অর্থ ধরা হয়েছে যোগাযোগ ও পরিবহন খাতে। ৬৪ হাজার ৮ শত ২০ কোটি টাকা যোগাযোগ ও সড়ক পরিবহন খাতে ধার্য্য করা হয়েছে। বাজেটে দ্বিতীয় ব্যয় ধরা হয়েছে অভ্যন্তরীন সুদ পরিশোধে ৫৭ হাজার ৬৮ কোটি টাকা। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বরাদ্দ করা হয়েছে ২৮ হাজার ৫০ কোটি টাকা। প্রতিরক্ষা খাতে ৩২ হাজার ৫৫৮ কোটি টাকা। স্বাস্থ্যখাতে ২৫ হাজার ৭৩২ কোটি টাকা। কৃষিখাতে ২৮ হাজার ৩৫৩ কোটি টাকা বরাদ্দ ধরা হয়েছে।


উল্লেখ্য, রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৭৭ হাজার ৮১০ কোটি টাকা। এর মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের মাধ্যমে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৩ লাখ ২৫ হাজার ৬০০ কোটি টাকা, যা জিডিপির ১১ শতাংশ। এনবিআর বর্হিভূত রাজস্ব আয় ১৪ হাজার ৫০০ কোটি টাকা, যা জিডিপির ৫ শতাংশ। আর কর বর্হিভূত রাজস্ব আয় ৩৭ হাজার ৭১০ কোটি টাকা । এটি জিডিপির ১ দশমিক ৩ শতাংশ।