ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

নার্স সংকট

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ জুন ২০১৭ মঙ্গলবার, ০৭:৪৬ পিএম
নার্স সংকট

বিশ্বে বিভিন্ন দেশের স্বাস্থ্যখাত এগিয়ে যাওয়ার পেছনে মানসম্পন্ন চিকিৎসকদের পাশাপাশি নার্সদেরও বড় ভূমিকা আছে। বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতে উন্নতি করলেও নার্স সংকট সবসময় থেকেই যাচ্ছে। এর ফলে দেশের চিকিৎসাসেবার ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে।

সম্প্রতি বাংলাদেশ হেলথ বুলেটিন ২০১৬ এ দেওয়া বিভিন্ন তথ্য বিশ্লেষণ করলে দেশের নার্স সংকটের বিষয়টি উঠে আসে।

হেলথ বুলেটিনের তথ্যমতে, ২০১৫ সালে প্রথম শ্রেণির নার্সিংয়ে ৩১৩ টি ও নন নার্সিংয়ে একটি পদ খালি ছিল। নিয়োগের ক্ষেত্রে মাত্র ১৪৮ জন নার্সকে নেওয়া হয়। আর নন-নার্সিয়ের পদটি খালিই থাকে।

দ্বিতীয় শ্রেণির নার্সের ক্ষেত্রে ২১ হাজার ২৩৪ পদ খালি থাকলেও থাকলে নিয়োগ হয়েছে ১৬ হাজার ৮২ জন। আর নন নাসিংয়ে বরাদ্দ মাত্র ২০ জন থাকলেও নিয়োগ তার চেয়ে কম। মাত্র ৯ জন। তবে তৃতীয় শ্রেণির নাসিংয়ে যতটা আসন বরাদ্দ ছিল ততটাই পূরণ সম্ভব হয়েছে। কিন্তু নন-নার্সিংয়ে ৩৬৮ আসনের বিপরীতে নিয়োগ পেয়েছে ২৯৯ জন। চতুর্থ শ্রেণির নন নার্সিংয়ে নিয়োগ পেয়েছে ৬২৩ জন যার জন্য বরাদ্দ আসন ছিলো ৭০৪টি।

স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগের ২০১৫ সালের প্রতিবেদনে নারী পুরুষ বৈষম্য দেখা যায়। প্রথম শ্রেণিতে ডাক্তার নয় এমন পুরুষ ৭৫ দশমিক ৫৩ শতাংশ আর নারী অর্ধেকও নয় মাত্র ২৪ দশমিক ৪৭ শতাংশ। তৃতীয়, চতুর্থ শ্রেণীর ক্ষেত্রে নারীর সংখ্যা বেশ কম। তবে দ্বিতীয় শ্রেণিতে নারীর অনুপাত পুরুষের তুলনায় বেশি। এই শ্রেণিতে নারী সংখ্যা ৯২ দশমিক ৭০ শতাংশ আর পুরুষের সংখ্যা মাত্র ৭ দশমিক ৩০ শতাংশ।

মেডিকেল টেকনোলজি নিয়ে কথা রিপোর্টে দেখা যায়, ২০১৫ সালে মোট এই সেক্টরে মোট বরাদ্দ রাখা হয়েছিলো সাত হাজার ৭৯০ টি আসন। আর নিয়োগ দেওয়া হয় ৫ হাজার ৯৪৫টি আসন। আসন শূণ্য রয়েছে এক হাজার ৪৪৫ টি আসন। স্বাস্থ্য খাতে উন্নতি হওয়ায় স্বত্বেও আসন খালি রয়েছে?

 

বাংলা ইনসাইডার/টিআর