ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ জুলাই ২০২০, ১৮ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Bangla Insider

২০ কোটি টাকার বেশি খরচ কবুল করলেন ঢামেক পরিচালক

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১ জুলাই ২০২০ বুধবার, ১২:০২ পিএম
২০ কোটি টাকার বেশি খরচ কবুল করলেন ঢামেক পরিচালক

করোনাভাইরাস চিকিৎসায় নিয়োজিত চিকিৎসক, নার্স ও কর্মীদের ২০ কোটি টাকার বেশি খরচ কবুল করে নিলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন। সবই স্বীকার করেছেন তিনি, কিন্তু একটি ঘুরিয়ে।  

আজ সংবাদ সম্মেলনে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন বলেছেন, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাস চিকিৎসায় নিয়োজিত চিকিৎসক, নার্স ও কর্মীদের থাকা খাওয়া ও অন্যান্য বিল বাবদ তারা অর্থ মন্ত্রণালয়ে ২০ কোটি টাকা চেয়েছিলেন। অর্থ মন্ত্রণালয় সেটার অনুমোদন দিয়েছে। অর্থাৎ অর্থ মন্ত্রণালয়ে যে তারা ২০ কোটি টাকা চেয়েছিলেন এক মাসের খরচের জন্য সেটা তিনি পরোক্ষভাবে কবুল করে নিলেন। বারবার খাওয়ার বিল কথাটাকে হাতিয়ার বানিয়ে ঢামেক কর্তৃপক্ষ নিজেদের বাঁচাতে চাইছে। অথচ অর্থ মন্ত্রণালয় কখনো বলেনি যে শুধু খাওয়ার খরচ বাবদ এটা চাওয়া হয়েছিল। বরং অর্থ মন্ত্রণালয় বলেছে যে, থাকা খাওয়া এবং আনুষাঙ্গিক খরচ বাবদ অর্থ চাওয়া হয়েছে।

ঢামেক পরিচালক আজ বললেন যে, ২৬ কোটি টাকা তাদের প্রাক্কলন ব্যয় ধরা হয়েছে। তাহলে কি ২০ কোটির জায়গায় ২৬ কোটি টাকা বাড়িয়ে নিতেই তিনি এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছেন?

বলা হয়েছে যে, ৩ হাজার ৮০০ এর বেশি চিকিৎসক নার্স এবং স্বাস্থ্য কর্মীরা সেখানে চিকিৎসা দিয়েছেন। তাহলে প্রশ্ন ওঠে যে কতজন রোগীর তারা চিকিৎসা দিয়েছেন এত লোকবল দিয়ে। সে সম্পর্কে ঢামেক পরিচালক কোনো তথ্য প্রকাশ করেননি।

একটি সংকটের সময় যখন চিকিৎসায় বেশি ব্যয় করার কথা, যেখানে অক্সিজেন ফ্লো নেই, পর্যাপ্ত আইসিইউ নেই, সেখানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকদের থাকা খাওয়ার খরচ যখন ২৬ কোটি টাকা হয়, তখন তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠাটাই স্বাভাবিক। যথাযথভাবেই অর্থ মন্ত্রণালয় এ নিয়ে আপত্তি করেছিল। যথাযথভাবেই সংসদে প্রধানমন্ত্রী এ নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছিলেন। অথচ আজ সংবাদ সম্মেলনে সবকিছু স্বীকার করেও নিজেদের সাফাই গাইলেন পরিচালক। তাহলে সিএমএসডি’র মতো কি ঢাকা মেডিকেল কলেজের পরিচালকও প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য খণ্ডন করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছেন?

প্রসঙ্গত যে, বাংলা ইনসাইডার এ নিয়ে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসকদের ১ মাসে থাকা-খাওয়ার খরচ ২০ কোটি শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ করে। এরপরই বিষয়টি সবার নজরে আসে।