ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

‘সুস্থ হওয়ার পর করোনা রোগীর অন্য সমস্যা দেখা দিতে পারে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৩ জুলাই ২০২০ সোমবার, ০৩:৫৯ পিএম
‘সুস্থ হওয়ার পর করোনা রোগীর অন্য সমস্যা দেখা দিতে পারে’

প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ বলেছেন, ‘একজন করোনা রোগী সুস্থ হওয়ার পর তার মধ্যে আরও কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে এটাতে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। এটা আস্তে আস্তে কেটে যাবে। একজন করোনা রোগী সুস্থ হওয়ার পরও চিকিৎসকের পরামর্শের আওতায় তাকে কিছুদিন থাকতে হবে।’ বাংলা ইনসাইডারের সঙ্গে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে প্রতিদিনের আলাপচারিতায় অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘করোনাটা এখন আমাদের দেশেই শুধু নয়, সারা বিশ্বে এখন নতুন। প্রতিদিন এটা নিয়ে নতুন নতুন তথ্য আবিষ্কার হচ্ছে, নতুন নতুন তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। এ বিষয়টা নিয়েই এখনও কাজ চলছে এবং চূড়ান্ত কোনো কিছুই আমাদের হাতে নেই। তবে যারা করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন, তাদের মধ্যে আমরা কিছু সমস্যা লক্ষ্য করছি।’

প্রবীণ এই মেডিসিন বিশেষজ্ঞ বলেন যে, ‘মৃদু আক্রান্ত হওয়ার পরও যখন দেখা যাচ্ছে, তিনি নেগেটিভ রিপোর্ট আসছে, অর্থাৎ তিনি সুস্থ, তারপরও তার শরীরের মধ্যে নানারকম সমস্যা দেখা দিচ্ছে।’

ডা. আব্দুল্লাহ বলেন যে, করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পর তার যেকোনো অঙ্গ, যেমন- হার্ট, লিভার, কিডনি, ব্রেনে সমস্যা দেখা দিতে পারে। এছাড়া অনেকের রক্ত জমাট হয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, আমরা কিছু কিছু রোগী দেখছি, যারা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হচ্ছেন। তাদের মধ্যে মানসিক অবসাদ দেখা দিচ্ছে, স্মৃতিভ্রম দেখা দিচ্ছে, অল্পতে তারা রেগে যাচ্ছেন, অনেকের মানসিক সমস্যাও দেখা দিচ্ছে। তবে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক মনে করেন যে, এতে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। কারণ এটি অল্প কিছু সময় পরই ভালো হয়ে যায় এবং আস্তে আস্তে সে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারে।

তবে ডা. আব্দুল্লাহ বলেন যে, যারা বিভিন্ন দীর্ঘমেয়াদী রোগে আক্রান্ত যেমন- হৃদরোগ, কিডনী রোগ কিংবা ডায়াবেটিসের রোগী তাদের জন্য করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পরে আরো সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী একটি পূর্ণাংগ পদ্ধতি মেনে জীবনযাপন করতে হবে। কারণ যেকোন সময় অন্য রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটতে পারে। একজন ব্যক্তি যখন সুস্থ হয়ে উঠবেন, করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসবে তখন তিনি একবারে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে না এসে বরং যেন একটু সময় নেন। চিকিৎসকের কাছে পরামর্শ নিয়ে তিনি ধাপে ধাপে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবেন। এই সময় তার খাদ্যাভ্যাস অত্যন্ত জরুরী। বেশি করে পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে, প্রচুর বিশ্রাম নিতে হবে যেন তিনি ক্লান্তি দূর করতে পারেন।

ডা. আব্দুল্লাহ বলেন, বাংলাদেশে যার করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে তাদের অধিকাংশই মৃদু উপসর্গবাহী। সুস্থ হওয়ার পরে যদি তাদের মধ্যে শারীরিক সমস্যাগুলো দেখা দেয় তাহলে তাতে ভয়ের কিছু নেই। এই সময় তারা যেকোন চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে পারে।

তিনি মনে করেন যে, করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পরেও একজন মানুষের মনোবল রাখতে হবে এবং মানসিক দৃঢ়তাই করোনার সঙ্গে যুদ্ধে সবচেয়ে বড় অস্ত্র।