ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

উলফা- তারেকের নতুন ষড়যন্ত্র!

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ শুক্রবার, ০২:০৩ পিএম
উলফা- তারেকের নতুন ষড়যন্ত্র!

 

ভারতের আসামের উলফা নেতারা আবার বাংলাদেশের রাজনীতিতে সক্রিয় হবার খবর পাওয়া গেছে। তারা আওয়ামী লীগের কিছু ডেডিকেটেড কর্মী ও মাঝারী একাধিক নেতাদের সাথে যোগাযোগ করে তাঁদের মধ্য থেকে খন্দকার মোস্তাকের সন্ধান করছে বলে জানা গেছে। 

Aichen khan (আইচেন খং)নামের এক উলফা নেতা বিদেশে পলাতক বিএনপি নেতা তারেক জিয়ার সাথে যোগাযোগের মাধ্যমে একটা নতুন পরিকল্পনা নিয়েছেন বলে দাবি করেছেন। তিনি মাঝে মাঝে নিজেকে আন্ডারওয়ার্ল্ডের জেনারেল জম্বি কালাশিনকভ একে ৪৭ হিসাবে পরিচয় দেন। বাংলাদেশে ধরা পড়া ১০ ট্রাক অস্ত্রের সুদ সহ বর্তমান মূল্য ৬ বিলিয়ন ডলার বলে তিনি দাবি করেন। তিনি জানান যে, তারেক রহমানের পক্ষ থেকে আসামের নাগরিক আইচেন খংকে বাংলাদেশে ধরা পড়া ১০ ট্রাক অস্ত্রের টাকা পরিশোধ করতে চাপ দিতে বলা হচ্ছে। তারেক জিয়া বাংলাদেশের বর্তমান সরকারের কাছ থেকে ৬ বিলিয়ন ডলার নিয়ে তা থেকে তার অংশ পরিশোধের জোর দাবি করছেন। কারণ তারেক জিয়া এই অস্ত্র ব্যবসায় অর্থ বিনিয়োগ করেছিলেন। অস্ত্র কেনার বাকী টাকা উলফা নেতাদের চাঁদা তোলার মাধ্যমে সংগ্রহ করা হয়। বাংলাদেশ সরকার টাকা না দিলে, আইচেন খংকে ব্রহ্মপুত্র নদের মাধ্যমে পানিবাহিত রোগের জীবাণু বা ভাইরাস ছড়িয়ে দিতে চাপ দিচ্ছেন। এছাড়া আসাম সীমান্তের বাংলাদেশী অংশে সাধারণ মানুষকে হত্যার মাধ্যমে অস্থিরতা সৃষ্টি করে পরবর্তী জাতীয় নির্বাচনে বিএনপিকে ক্ষমতায় আনার পরিবেশ তৈরি করা কথা বলা হচ্ছে। আর বিএনপি ক্ষমতায় না আসতে পারলে বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে হত্যারও একটা বিকল্প পরিকল্পনার কথা বলছেন আইচেন খং।    

উলফা নেতার দাবি হচ্ছে শেখ হাসিনা সরকার যদি বাংলাদেশে ধরা পড়া ১০ ট্রাক অস্ত্রের মূল্য বাবদ ৬ বিলিয়ন ডলার পরিশোধ না করে তাহলে উলফা নাতারা বাংলাদেশী সন্ত্রাসীদের সহায়তায় সরকারের মাঝে ঘাপটি মেরে  থাকা তাঁদের তথা বিএনপি-জামায়াতের এজেন্ট ও নব্য মোস্তাকদের সহায়তায় বাঙ্গালীদের লাশ ফেলবে। আইচেন খং তারেক রহমানের সাথে বৈঠক করে এই পরিকল্পনা চূড়ান্ত করেছেন বলে দাবি করা হয়। উল্লেখ্য যে,  চট্টগ্রাম ইউরিয়া সার কারখানার ঘাটে ২০০৪ সালের ১ এপ্রিল রাতে ১০ ট্রাক অস্ত্রের চালান আটক করে বাংলাদেশ। এতে আওয়ামী লিগ পন্থী পুলিশ অফিসারদের দায়ী করে হয় উলফা নেতাদের পক্ষ থেকে।  

আইচেন খং তার ফেসবুক থেকে বাংলাদেশের কিছু আওয়ামী লীগ নেতার সাথে গত কয়েকদিনে শুধু ফেসবুকে লাইভ চ্যাট করেই ক্ষান্ত হন নি, মাঝে মাঝে +১৪০৭৬৫৫০০১২, ও +১২২০৮৪২৩৭২৩ থেকে ফোন করেছেন বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে দাবি করা হয়েছে। 

উলফা নেতা দাবি করেন যে, বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বিএনপি নেতা কর্মীর বাইরেও তাঁদের অনেক মিডিয়া কর্মী আছে। যারা মানুষকে বিভ্রান্ত করার জন্য বিভিন্ন জনপ্রিয় মিডিয়ায় নিউজ করবে বলে আইচেন খং এর সাথে এক বৈঠকে তারেক জিয়া নিশ্চিত করেছেন। বাংলাদেশের একটি গোয়েন্দা সূত্রে এই খবরকে নতুন ষড়যন্ত্র এবং খুব উদ্বেগের বিষয় বলে দাবি করা হয়েছে।