ঢাকা, বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কী কথা তাহার সাথে?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৩ আগস্ট ২০১৭ রবিবার, ০৩:০৭ পিএম
কী কথা তাহার সাথে?

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিন্‌হার সঙ্গে একান্তে বৈঠক করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। গতকাল রাতে এই বৈঠক হয়েছে।

ষোড়শ সংশোধনী সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে বাতিল হওয়াকে কেন্দ্র করে দেশজুড়ে তোলপাড়।এই নিয়ে বিচার বিভাগ ও আইন বিভাগের মধ্যে দ্বন্দ্ব চরমে। এমন সময় ক্ষমতাসীন দলের অন্যতম শীর্ষ নেতার সঙ্গে বিচার বিভাগের শীর্ষ ব্যক্তির এমন সাক্ষাৎ নিয়ে জনমনে ব্যাপক আগ্রহ। সবার প্রশ্ন একই, কী কথা হলো তাঁদের মধ্যে? 

গতকাল শনিবার রাত ৮ টা ১০ মিনিটে প্রধান বিচারপতির সঙ্গে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের বৈঠক হয়। এর আগে ওই দিনই সন্ধ্যায় ওবায়দুল কাদের প্রধান বিচারপতিকে ফোন করেন। ওই সময় প্রধান বিচারপতি তাঁকে নৈশ্যভোজের আমন্ত্রণ জানান।

জানা গেছে, প্রধান বিচারপতির ও আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের মধ্যেকার নৈশ্যভোজে আর অপর কেউ উপস্থিত ছিলেন না।

নৈশভোজের কী আলোচনা হয়েছে এ সম্পর্কে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন,     ‘এটি ছিল সৌজন্য সাক্ষাৎ। একন্তই ব্যক্তিগত কিছু কথা হয়েছে।’

বৈঠকের বিস্তারিত এর বেশি কিছু জানাননি আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

অবশ্য একাধিক সূত্রে জানা গেছে, প্রধান বিচারপতি ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে আলোচনার অন্যতম বিষয় ষোড়শ সংশোধনী বাতিল পরবর্তী দেশের বর্তমান পরিস্থিতি। বিচারের রায় নিয়ে আলোচনা হলেও এর সমালোচনা নিয়ে অনুযোগ করেন প্রধান বিচারপতি।

প্রধান বিচারপতির অনুযোগ, ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় অনেকে না পড়েই অনেকে সমালোচনা করেছেন। রায়ের কোথায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজবুর রহমানকে নিয়ে অশোভন কিছু বলা হয়নি। বরং মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে তুলে ধরেছে এই রায়ে।

ষোড়শ সংশোধনীর বিষয়ে সংসদের তুমূল আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতি অন্য বিচারপতিদের সঙ্গে বসবেন বলে জানা গেছে। ওই আলোচনায় সমসাময়িক বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হবে।

উচ্চ আদালতের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে নিতে ২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর সংবিধানের ৯৬ অনুচ্ছেদ সংশোধনের প্রস্তাব সংসদে পাস হয়। এটিই ষোড়শ সংশোধনী হিসেবে পরিচিত। ২০১৬ সালে সুপ্রিম কোর্টের নয়জন আইনজীবীর এক রিট আবেদনে হাই কোর্ট সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী ‘অবৈধ’ ঘোষণা করে। চলতি বছরের ৩ জুলাই সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগও ওই রায় বহাল থাকে। চলতি আগস্টের ১ তারিখে ষোড়শ সংশোধনী ‘অবৈধ’ ঘোষণার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করে সুপ্রিম কোর্ট।

ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার রায় প্রকাশের পর থেকেই জনমনে এর ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। জাতীয় সংসদে রায়ের তীব্র সমালোচনা হয়। অনেক মন্ত্রী-এমপি প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ দাবি করে।

ষোড়শসংশোধনী বাতিলের প্রতিবাদে বাঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের ডাকে আজ বেলা একটায় সারাদেশে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করছে আইনজীবীরা। আগামী ১৬ ও ১৭ আগস্ট দিনের একই সময়ে এই কর্মসূচি পালিত পলিত হবে। 

 

বাংলা ইনসাইডার/জেডএ