ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

বাংলাদেশ নিয়ে ঈর্ষায় পুড়ছে ভারত?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৮ অক্টোবর ২০২০ রবিবার, ০৭:৫৯ পিএম
বাংলাদেশ নিয়ে ঈর্ষায় পুড়ছে ভারত?

ভারতের গণমাধ্যমে এখন বাংলাদেশ চর্চা চলছে ধুমছে। পরপর দুটি আন্তর্জাতিক তথ্য যেন ভারতের ঘুম হারাম করে দিয়েছে। প্রথমটি, চলতি অর্থ বছরে মাথাপিছু আয় সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের পূর্বাভাস। আইএমএফ বলছে, চলতি অর্থ বছরে গড় মাথাপিছু আয়ে ভারতকে টপকে যাবে বাংলাদেশ। আইএমএফের এই তথ্যের ধাক্কা সামলাতে না সামলাতই, হাঙ্গার ইনডেক্স বা ক্ষুধা সূচক প্রকাশিত হলো। 

এতে দেখা গেলো, ক্ষুধা নিবারনেও ভারতকে পিছনে ফেলেছে বাংলাদেশ। শুধু তাই নয়, নোবেল জয়ী ভারতীয় অর্থনীতিবীদ অভিজিৎ ব্যানার্জী বলছেন, মানব উন্নয়নের সব সূচকেই অল্প কিছুদিনের মধ্যেই ভারতকে পেছনে ফেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আর এসব তথ্য যেন, ভারতে রীতিমতো ভূমিকম্প সৃষ্টি করেছে। প্রধান বিরোধী দলের নেতা রাহুল গান্ধী এনিয়ে মোদীর সমালোচনা করতে ছাড়েননি। ভারতের মূলধারার গণমাধ্যম গুলোতে, টকশোতে এনিয়ে চলছে, তুমুল কথার লড়াই। বলা হচ্ছে, করোনার জন্যই ভারতের এই বিপর্যয় এটি সঠিক নয়। মোদীর নীতি আগেই ভুল পথে ছিলো। এটি ভুল অর্থনৈতিক নীতি ও কৌশলের ফল। একটি অনুষ্ঠানে, একজন বললেন কোথায় ভারত চীনের উপরে যাবে, চীনের সাথে অর্থনৈতিক লড়াই করবে, ভারত তো বাংলাদেশের থেকেই পিছিয়ে। গত দ্ইু দিনে ভারতের গণমাধ্যমে যে মাতম, তাতে কোথাও বাংলাদেশের প্রতি শ্রদ্ধা নেই, বাংলাদেশের কৃতিত্বের স্বীকৃতি এবং প্রশংসা নেই। বরং আর্তনাদ এবং হাহাকার। ভারতের গড় মাথাপিছু আয় কমেছে, জিডিপির নেতিবাচক প্রবৃদ্ধি হয়েছে এগুলো যেন সহ্য করা যেত, যদি বাংলাদেশ এগিয়ে না যেতো। অর্থাৎ ভারতের অবস্থা নিয়ে যতোটা দু:খ তার চেয়ে দু:খ বাংলাদেশের উন্নতি দেখে। এযেন নিজে ফেল করার কষ্টের চেয়েও পাশের বন্ধুটির ফাষ্ট হওয়ার দু:খের মতোই ভয়ংকর। কিছুদিন আগে ভারতের এক প্রভাবশালী, কট্টরপন্থী বিজেপি নেতা বলেছিলেন, ভারতের সীমান্ত খুলে দিলে লাখ লাখ বাংলাদেশী ভারতে আশ্রয় নেবে। কিন্তু অর্থনীতি এখন ভিন্ন কথা বলছে। লাখ লাখ ভারতীয় কি এখন বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়ার পর্যায়ে এসেছে?

ভারত সব সময় বলে বাংলাদেশ সবার আগে। বাংলাদেশ ভারতের সবচেয়ে কাছের বন্ধু রাষ্ট্র। দুই দেশ উন্নয়নের অংশীদার। তাহলে, বাংলাদেশের সাফল্যে ভারতের এতো মাতম কেন? কেন ঈর্ষায় পুড়ছে ভারত? তাহলে ভারত কি সেই ‘বিগ্র ব্রাদার’ যে সব সময় পাশের দেশকে নিজের চেয়ে ছোট দেখতে চায়? এখন বাংলাদেশের উন্নয়নে ভারত কি বাংলাদেশকে চাপে ফেলতে চাইবে? এই প্রশ্ন এজন্যই উঠছে যে, উগ্র জাতীয়তাবাদের উত্থান পাশের দেশের উন্নতিকে পরাজয় মনে করে, প্রতিহিংসায় উম্মত্ত করে।