ঢাকা, বুধবার, ২০ জানুয়ারি ২০২১, ৭ মাঘ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ভাগ্যবান বাচ্চু, নিরুদ্দেশ মিঠু

মাহমুদুল হাসান তুহিন
প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০২১ বৃহস্পতিবার, ০৯:০০ পিএম
ভাগ্যবান বাচ্চু, নিরুদ্দেশ মিঠু

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দৃশ্যমান অনেকগুলো ব্যাপারে যথেষ্ট তৎপরতা দেখিয়েছে। যদিও দুর্নীতির অনেকগুলো মামলা এখনো নিষ্পত্তির অপেক্ষায় আছে। কিন্তু দুদক পিকে হালদারের ব্যাপারে ঠিক যতটা তৎপর, ঠিক তেমনিই যদি সব দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে তৎপর হতো তাহলে তা দেশের জন্য হতো মঙ্গলজনক। যারা বিদেশে টাকা প্রচার করেছে, অর্থ আত্মসাৎ করেছে তাদের অনেকেই আছেন ধরাছোঁয়ার বাহিরে।

বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারি বাংলাদেশে দুর্নীতির একটি বড় বিজ্ঞাপন। বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারিতে শেখ আব্দুল হাই বাচ্চুর নাম উঠে এসেছে বহুবার। জানা যায়, তিনি চেয়ারম্যান থাকাকালেই বেসিক ব্যাংকের প্রায় সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা লোপাট হয়েছে৷ বিভিন্ন মহল থেকে বারবার বলা হয়েছে যে আব্দুল হাই বাচ্চুকে কেন আইনের আওতায় এনে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। তারপরও এখন পর্যন্ত ধরাছোঁয়ার বাহিরে তিনি। আব্দুল হাই বাচ্চুর কারণে বেসিক ব্যাংকের সবগুলো মামলাই ঝুলে আছে।

অন্যদিকে স্বাস্থ্যখাতের ব্যাপক দুর্নীতি, লুটপাট, অনিয়ম হয়েছে। দুর্নীতি, লুটপাট, অনিয়মের অন্যতম হোতা হলো মোতাজ্জেরুল ইসলাম মিঠু। মিঠুকে দুর্নীতি দমন কমিশন একবার ছাড়পত্র দিল। তারপর তাকে আবার ডাকা হলো। দুর্নীতি দমন কমিশনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখালো। পিকে হালদারের মত মিঠুও বিদেশে যেয়ে বসে আছে। মোতাজ্জেরুল ইসলাম মিঠু একটি ব্যাংক থেকে টাকা নিয়ে এবং ঋণ খেলাপি করে বিদেশে পলাতক।

পিকে হালদারকে যদি ধরা হয়, তাহলে মিঠুকে কেন ধরা হয়নি। এখনো মিঠু বেনামে ৩২ টি কোম্পানি দিয়ে স্বাস্থ্যখাতে নানারকম দুর্নীতি, লুটপাট, অনিয়ম করে যাচ্ছে। পিকে হালদারের ব্যাপারে দুদক যতটা সরব, মিঠুর ব্যাপারে দুদক ততটাই নীরব।

এদিকে আরেক দুর্নীতিবাজ জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আব্দুল আজিজ ব্যাংক থেকে টাকা লুট করে বিদেশে পলাতক রয়েছে। জানা যায়, ৯১৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকা বিদেশে পাচারের মামলার আসামি আব্দুল আজিজকে গ্রেপ্তারের জন্য খুঁজছেন শুল্ক গোয়েন্দারা। কিন্তু তার টাকা উদ্বারের ব্যাপারেও কোন তৎপরতা নেই। কাজেই দেশের মানুষের প্রত্যাশা যে আইন সবার জন্য সমান হবে। যেসব দুর্নীতিবাজরা বাংলাদেশের অর্থনীতিকে হুমকির মুখে ফেলেছে, দেশের বিপুল পরিমান টাকা বিদেশে পাচার করেছে তাদের ব্যাপারেও পিকে হালদারের বিরুদ্ধে যেমন তৎপর দুদক, অন্যদের বিরুদ্ধেও সমান তৎপর হতে হবে। এতে করে দেশের দুর্নীতি, অর্থ পাচারের রোধে অনেক অগ্রগতি হবে।

বিষয়: দুদক