ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ৯ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

বেসরকারি হাসপাতালে টিকা বিক্রি: প্রধানমন্ত্রীর না

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ সোমবার, ০৪:৫৯ পিএম
বেসরকারি হাসপাতালে টিকা বিক্রি: প্রধানমন্ত্রীর না

বেসরকারি হাসপাতালে টিকা বিক্রির যে পরিকল্পনা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গ্রহণ করেছিল সেই পরিকল্পনা নাকচ করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে যে, প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব  ড. আহমদ কায়কাউসকে প্রধানমন্ত্রী জানিয়ে দিয়েছেন যে সরকার টিকা বিক্রি করবে না। টিকা জনগণের অধিকার এবং যেহেতু আমি জনগণকে ওয়াদা দিয়েছি যে বিনামূল্যে সব মানুষকে টিকা দিব কাজেই টিকা বেসরকারি হাসপাতালে বিক্রি করতে দেওয়া হবে না।

বেসরকারি মেডিকেল কলেজ অ্যাসোসিয়েশন এর পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছে আবদার করা হয়েছিল যে, তারা বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে টিকা প্রদান করতে চায় এবং তখন স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রস্তাব দিয়েছিলেন যে, বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে একটি নির্দিষ্ট দামে টিকা বিক্রির জন্য দেওয়া হবে। সরকার যে দামে টিকা কিনেছে তার থেকে ২ ডলার বেশি মূল্যে বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে টিকা বিক্রির প্রস্তাবনা প্রধানমন্ত্রীর বিবেচনার জন্য দেওয়া হয়েছিল।  কিন্তু স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই প্রস্তাবের বিরোধীতা করেছিলেন স্বয়ং স্বাস্থ্য সচিব মো. আবদুল মান্নান। এবং শেষ পর্যন্ত এটি প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত গড়িয়েছিল।

বেসরকারি হাসপাতালে টিকা বিক্রি করা যৌক্তিক হবে কিনা এ বিষয়ে শেষপর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী বেসরকারি হাসপাতালে টিকা বিক্রির বিষয়ে মতমত দেন নি। বাংলাদেশে গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে এবং প্রথম দিকে মানুষের এ টিকা নেয়ার বিষয়ে আড়ষ্টতা থাকলেও এখন মানুষ ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে টিকা নিচ্ছে এবং প্রতিদিন দেড় থেকে দুই লাখ মানুষ টিকা গ্রহণ করছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রগুলো বলছে যে, চল্লিশোর্ধ্ব বয়সের টিকাদান শেষ করার পরে ধীরে ধীরে ১৮ বছর পর্যন্ত যে সমস্ত নাগরিক আছেন তাদের সবাইকেই এ টিকার আওতাভুক্ত করা হবে এবং বছরব্যাপী এই টিকা প্রদান কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।  এর ফলে বাংলাদেশ করোনা থেকে মুক্তি পাবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে যে, বাংলাদেশ প্রথম পর্যায়ের টিকা প্রদানের পরই বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে এই টিকার আওতায় আনা যায় কিনা সেটি বিবেচনা করবে।