ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ৩ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

আন্তর্জাতিক মহলের আস্থা আওয়ামী লীগেই

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১ শনিবার, ০৮:৫৮ পিএম
আন্তর্জাতিক মহলের আস্থা আওয়ামী লীগেই

সরকার নানামুখী ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করছে। বিশেষ করে ১ ফেব্রুয়ারি আল জাজিরায় প্রকাশিত হয় বিতর্কিত প্রতিবেদন ‘অল দ্যা প্রাইম মিনিস্টারস ম্যান’। এই প্রতিবেদনটিকে ঘিরে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সরকারের বিরুদ্ধে উস্কানির চেষ্টা করছে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সরকারের সমর্থন এবং গ্রহণযোগ্যতা যেন নষ্ট হয়, সেটিই ছিল এই প্রতিবেদনের মূল লক্ষ্য। শুধু আল জাজিরার প্রতিবেদন নয়, একই সময়ে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যমে সরকার বিরোধী প্রচারণা এখন তুঙ্গে। এই সমস্ত প্রচারণার মূল লক্ষ্য হলো দেশ, আন্তর্জাতিক মহল এবং বাংলাদেশের নিচু দেশগুলোর মধ্যে এক ধরনের অস্বস্তি এবং সরকারের উপর তাদের অনাস্থা তৈরি করা। কিন্তু এত কিছু সত্ত্বেও আন্তর্জাতিক মহলের আস্থা এখনো পর্যন্ত আওয়ামী লীগের উপর রয়েছে। এ প্রতিবেদনগুলো তাদের মধ্যে তেমন কোনো রেখাপাত করতে পারেনি এবং এই প্রতিবেদনের ফলে তারা সরকারের উপর অসন্তুষ্ট হয়েছে, এমন কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি। বরং গুরুত্বপূর্ণ দেশগুলো আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যেতে চায় এবং বাংলাদেশের যে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চলছে সে উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের অংশীদার হতে চায়।

বাংলাদেশের প্রধান মিত্র দেশ হলো ভারত। বাংলাদেশের রাজনীতিতে ভারতের প্রভাব অনস্বীকার্য। বিশেষ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ইউরোপের দেশগুলোও বাংলাদেশের ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে ভারতের উপর নির্ভরশীল।ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক সাম্প্রতিক সময়ে যে টানাপোড়ন এবং অস্বস্তি গুলো ছিল, তা মোটামুটি কেটে গেছে। আগামী ২৬শে মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বাংলাদেশ সফরে আসছেন। এতে দেখা যায়, বাংলাদেশে ভারত আওয়ামী লীগের কোনো বিকল্প ভাবছে না। বিশেষ করে বিচ্ছিন্নতাবাদী দমন, জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদী দমন, জামায়াতের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্ক এবং তারেক জিয়ার ইমেজ ইত্যাদি কারণে ভারতের সামনে কোনো বিকল্প নেই। ভারত মনে করছে যে, বাংলাদেশে তাদের একমাত্র বন্ধু হলো আওয়ামী লীগ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকার পরিবর্তনের ফলে অনেকে মনে করেছিল যে, বাংলাদেশের ব্যাপারে তারা আবার নতুন করে সামগ্রিক সম্পর্কের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করবে। কিন্তু বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে তারা বাংলাদেশের ব্যাপারে ভারত নীতি অনুসরণ করতে চায় এবং ভারতকে পাশে রেখে বাংলাদেশের ব্যাপারে সক্রিয় কর্মকাণ্ড করতে চায়। আর এ কারণেই এধরণের প্রতিবেদনগুলো নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোন প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।

কূটনৈতিক মহল মনে করছেন যে, একটি প্রতিবেদন এবং কিছু অপপ্রচার দিয়ে কূটনৈতিক সম্পর্কে চিড় ধরানো যায় না। একটি রাষ্ট্রের সঙ্গে আরেকটি রাষ্ট্রের সম্পর্কে যে ভিত্তিমূল, সেখানে আঘাত করা যায় না। বরং একটি সম্পর্ক তৈরি হয় দুই দেশের নীতি, কৌশল, বাণিজ্য, অর্থনীতি ইত্যাদির উপর। সেদিক থেকে এখনও কূটনৈতিকরা মনে করেন যে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকারের কোনো বিকল্প নেই। ত্রুটি-বিচ্যুতি স্বত্বেও আওয়ামী লীগ সরকার যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে করোনা পরিস্থিতি যেভাবে মোকাবেলা করা হয়েছে, তাতে আন্তর্জাতিক মহল এখন পর্যন্ত আওয়ামী লীগের উপর আস্থা রাখতে চায়।