ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

আজিজুল ৮ বছর আগের মামলায় গ্রেফতার; ‘খুঁজে’ পাচ্ছিল না পুলিশ

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০২১ সোমবার, ১০:০১ পিএম
আজিজুল ৮ বছর আগের মামলায় গ্রেফতার; ‘খুঁজে’ পাচ্ছিল না পুলিশ

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী আট বছর আগে করা মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছেন । ২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরে তাণ্ডবের ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে পল্টন থানায় মামলাটি করেছিল। ওই মামলার ১৫৭ নম্বর আসামি ছিলেন তিনি। আদালতে দেওয়া প্রতিবেদনে পুলিশ বলেছে, ৫ মে সমাবেশ চলাকালে আজিজুল হক ইসলামাবাদী সরকার উৎখাত করার জন্য বিভিন্ন রকম উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়েছিলেন।

মামলায় আজিজুল হক ইসলামাবাদীকে গ্রেপ্তারের পর সাত দিনের রিমান্ডে পেয়েছে পুলিশ। চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাস জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এই রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

মামলার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই সমাবেশ চলাকালে বেলা আনুমানিক চারটায় ৬ নম্বর পুরানা পল্টন এলাকায় উপপুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-পূর্ব) অফিসের সামনে অতর্কিতভাবে হেফাজতে ইসলাম, জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের কয়েক হাজার নেতা–কর্মী বাঁশ ও কাঠের লাঠিসোঁটা, লোহার রড ও অবৈধ অস্ত্র দেখিয়ে সরকারবিরোধী মিছিল করেন। তাঁরা পুলিশকে লক্ষ্য করে প্রথমে গুলি ছোড়েন এবং বোমা বিস্ফোরণ ঘটান।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে,  চার-পাঁচ জায়গায় ট্রাফিক কার্যালয়ের নিচতলা ও দোতলার কক্ষগুলোতে থাকা বিভিন্ন অফিস সরঞ্জাম ও মালামাল এবং পুলিশ কর্মকর্তাদের ব্যবহৃত ১৩টি সরকারি গাড়ি আগুনে পুড়িয়ে দেন। বাংলাদেশের মতো একটি স্বাধীন গণতান্ত্রিক দেশের সরকারকে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে উৎখাত করার জন্য আজিজুল হকসহ ১৮ দলীয় নেতাদের প্রত্যক্ষ মদদ আছে বলে প্রতীয়মান হয়। গ্রেপ্তারের পর আজিজুল হক ইসলামাবাদীকে বিধি মোতাবেক মামলার বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তিনি এ ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।

এত দিন পর গ্রেপ্তারের কারণ জানতে চাইলে আতিকুল ইসলাম বলেন, আজিজুল হককে গ্রেপ্তারের সব চেষ্টাই চলছিল। কিন্তু পুলিশ তাঁকে খুঁজে পাচ্ছিল না। এখন তাঁকে পেয়ে গ্রেপ্তার করেছে।