ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৫ আগস্ট ২০২১, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

বেগম জিয়ার বিদেশ যাওয়ার প্রয়োজন নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯ মে ২০২১ রবিবার, ১০:৪৯ এএম
বেগম জিয়ার বিদেশ যাওয়ার প্রয়োজন নেই

বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়ার প্রয়োজন নেই। বেগম জিয়ার পক্ষ থেকে তার ভাই শামীম ইস্কান্দার গত ৫ মে যে আবেদনটি করেছিলেন সে আবেদনটি সরকার গ্রহণ করেনি।

সরকারের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো বলছে, আইন মন্ত্রণালয় এবং সরকারের নীতিনির্ধারকরা সবকিছু বিবেচনা করে বেগম খালেদা জিয়ার আপাতত উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ যাত্রার প্রয়োজন নেই বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন। আর এটি কিছুক্ষণের মধ্যে বেগম খালেদা জিয়াকে জানিয়ে দেয়া হবে। 

উল্লেখ্য, বেগম খালেদা জিয়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সরকারের পক্ষ থেকে এভারকেয়ার হাসপাতালের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে বেগম খালেদা জিয়ার গত তিন দিনের অবস্থা অনেক ভালো। তিনি বাসায় যাওয়ার মতো অবস্থায় আছেন। তার করোনা পরীক্ষার ফলাফলও নেগেটিভ এসেছে।

হাসপাতাল সূত্র বলছে, তার অক্সিজেন স্যাচুরেশন লেভেল এখন ৯৯ এবং এটি স্বাভাবিক। তাছাড়া এভারকেয়ার হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক প্যানেলের কেউই তার বিদেশে চিকিৎসার ব্যাপারে পক্ষপাতী নয়। শুধুমাত্র বেগম খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও বিএনপির নেতৃবৃন্দ ছাড়া কেউই খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়ার পক্ষে অভিমত দিচ্ছে না। সরকারকে এভারকেয়ার হাসপাতাল জানিয়েছে, খালেদা জিয়া ভালো আছেন। এই অবস্থায় তার বিদেশে যাওয়ার দরকার নেই। 

এর আগে সরকার সর্বোচ্চ উদারতা দেখিয়ে গত বছরের ২৫ মার্চ খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত করেছেন এবং তিন বার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়িয়েছেন। এখন খালেদা জিয়া উন্মুক্ত জীবনযাপন করছেন এবং দেশের যেকোনো হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে পারছেন। শুধু তাই নয় খালেদা জিয়া যখন জেলে ছিলেন তখনও তার জন্য একজন গৃহকর্মী দেয়া হয়েছিলো আইনের ব্যত্যয় ঘটিয়ে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, আইন মন্ত্রণালয় খালেদা জিয়ার আবেদনটি পরীক্ষা নিরীক্ষা করে এর অসম্পন্ন এবং ত্রুটিগুলোকে চিহ্নিত করে এ ব্যাপারে নেতিবাচক মতামত দিয়েছেন। খালেদা জিয়ার পক্ষে তার ভাই শামীম ইস্কান্দার যে আবেদন করেছিলেন সেখানে খালেদা জিয়া কোন দেশে যাবেন সেটি উল্লেখ করেননি, কতদিন থাকবেন সেটি উল্লেখ করেননি এবং চিকিৎসকদের মতামতও সন্নিবেশ করা হয়নি। এরপর সরকারের পক্ষে এভারকেয়ার হাসপাতালে যোগাযোগ করা হয়েছিলো। সেই প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতেই বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়ার প্রয়োজনীয়তা নেই বলে সরকার মনে করছে।