ঢাকা, শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

দেশের আরও তিনজনের শরীরে করোনার দক্ষিণ আফ্রিকার ধরন শনাক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০ জুন ২০২১ বৃহস্পতিবার, ০৮:২৬ এএম
দেশের আরও তিনজনের শরীরে করোনার দক্ষিণ আফ্রিকার ধরন শনাক্ত

দেশে আরও তিনজনের শরীরে করোনার দক্ষিণ আফ্রিকার ধরন (বিটা ধরন) শনাক্ত হয়েছে। এই তিনজনের একজন ঢাকার, একজন কুমিল্লা ও আরেকজন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাসিন্দা। তিনজনই পুরুষ। এ নিয়ে বাংলাদেশে মোট ২৮ জনের দেহে করোনার এই ধরন শনাক্ত হলো।

বুধবার (০৯ জুন) করোনাভাইরাসের জিনোমের উন্মুক্ত তথ্যভান্ডার জার্মানির গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ অন শেয়ারিং অল ইনফ্লুয়েঞ্জা ডেটার (জিআইএসএআইডি) ওয়েবসাইটে বাংলাদেশে করোনার এই ধরন শনাক্তের খবর প্রকাশিত হয়েছে।

বাংলাদেশে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসের পাঁচটি ধরন শনাক্ত হয়েছে। এগুলো হলো যুক্তরাজ্য, ব্রাজিল, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, নাইজেরিয়ায় পাওয়া ধরন। এর মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনার যুক্তরাজ্যের ধরনকে আলফা, ব্রাজিলের ধরনকে গামা, ভারতীয় ধরনকে ডেলটা, দক্ষিণ আফ্রিকার ধরনকে বিটা এবং নাইজেরিয়ার ধরনকে ইটা নামকরণ করেছে।

জিআইএসএআইডির সর্বশেষ তথ্য বলছে, বাংলাদেশে এ পর্যন্ত বিটা ধরন শনাক্ত হয়েছে ২৮ জনের মধ্যে। ৪৪ জনের মধ্যে করোনার ডেলটা ধরন শনাক্ত হয়েছে। করোনার আলফা ধরন শনাক্ত হয়েছে ৮৪ জনের মধ্যে। বাংলাদেশে ইটা ধরন মিলেছে ১৫ জনের মধ্যে এবং করোনার গামা ধরনের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে ১ ব্যক্তির মধ্যে।

দক্ষিণ আফ্রিকার ইস্টার্ন কেপ প্রদেশে গত বছর বিটা ধরনটি প্রথম পাওয়া যায়। এর নাম ‘৫০১.ভি২’। গত ৬ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে প্রথম করোনার এই ধরনের অস্তিত্বের প্রমাণ মেলে। ঢাকার বনানীর ৫৮ বছর বয়সী এক নারীর শরীরে এই ধরনটি পাওয়া যায়।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, করোনাভাইরাসের চরিত্র হচ্ছে এটি দ্রুত নিয়মিতভাবে রূপান্তর হয়। বিশ্বে করোনাভাইরাসের হাজারো মিউটেন্ট আছে। তবে গবেষকেরা দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া এই ধরন (ভেরিয়েন্ট) নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

বিষয়: করোনা