ঢাকা, রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

বিশ্বসেরা দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশ হবে বাংলাদেশ

অর্থনীতি ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪ অক্টোবর ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০২:০০ পিএম
বিশ্বসেরা দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশ হবে বাংলাদেশ

বিশ্বের উন্নত দেশগুলোকে পেছনে ফেলে ২০৩০ সাল নাগাদ ২৬ তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ হবে বাংলাদেশ। শুধু তাই নয়, আগামী দশকে এদেশ পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশে পরিণত হবে। হংকং অ্যান্ড সাংহাই ব্যাংকিং করপোরেশন (এইচএসবিসি) এর ‘২০৩০ সালের বিশ্ব :৭৫টি দেশের জন্য এইচএসবিসির প্রক্ষেপণ’ শীর্ষক প্রতিবেদনে এমন পূর্বাভাসই দেওয়া হয়েছে।

শীর্ষস্থানীয় ব্যাংকিং ও আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান এইচএসবিসি’র পূর্বাভাস অনুযায়ী, ২০৩০ সাল নাগাদ বিশ্বের উন্নত, উন্নয়নশীল ও উদীয়মান ৭৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের জিডিপি সবচেয়ে বেশি হারে বাড়বে। জিডিপির দিক থেকে বর্তমানে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান ৪২তম। এইচএসবিসি বলছে, ২০৩০ সালে ১৬ ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশ উঠে আসবে ২৬তম অবস্থানে।

এইচএসবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৮ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত পরবর্তী পাঁচ বছরে বাংলাদেশের গড় প্রবৃদ্ধি হবে ৭ দশমিক ৩ শতাংশ হারে। আর পরের পাঁচ বছর অর্থাৎ ২০২৩ থেকে ২০২৮ সাল পর্যন্ত এদেশের গড় প্রবৃদ্ধি হবে ৭ শতাংশ হারে। সব মিলিয়ে আগামী এক যুগে বাংলাদেশে গড়ে ৭ দশমিক ১ শতাংশ হারে প্রবৃদ্ধি হবে। প্রতিষ্ঠানটির মতে এই সময়ে বাংলাদেশের মতো এত বেশি হারে প্রবৃদ্ধি আর কোনো দেশের হবে না। এশিয়ার দেশ ফিলিপাইন, পাকিস্তান, ভিয়েতনাম ও মালয়েশিয়ার অবস্থান শক্তিশালী হলেও বাংলাদেশের থেকে পিছিয়ে থাকবে দেশগুলো।

এইচএসবিসি’র প্রতিবেদন অনুযায়ী, আগামী ১২ বছরে ফিলিপাইন ১১ ধাপ এগিয়ে বর্তমানের ৩৮তম অবস্থান থেকে ২৭তম অবস্থানে উঠে আসবে। পাকিস্তান ১০ ধাপ এগিয়ে ৪০ থেকে ৩০-এ উঠবে। ভিয়েতনাম ৮ ধাপ এগিয়ে ৪৭ থেকে চলে আসবে ৩৯-এ। আর মালয়েশিয়া ৫ ধাপ এগিয়ে ৩৪ থেকে ২৯-এ উঠে আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

২০৩০ সাল নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রকে হটিয়ে চীন শীর্ষ অর্থনীতির দেশ হবে বলে জানিয়েছে এইচএসবিসি। দুইয়ে নেমে আসবে যুক্তরাষ্ট্র। বর্তমানে সপ্তম অবস্থানে থাকা ভারত উঠে আসবে তিনে। সেক্ষেত্রে জাপান চলে যাবে চারে। আর জার্মানি চতুর্থ অবস্থান থেকে পঞ্চম স্থানে গিয়ে দাঁড়াবে।

আগামী ১২ বছরে আফ্রিকার দেশগুলোও বর্তমানে অবস্থার থেকে শক্তিশালী অবস্থানে উঠে আসবে বলে মনে করছে এইচএসবিসি। কর্মোক্ষম জনগোষ্ঠী বৃদ্ধির  কারনেই অঞ্চলটির অগ্রগতি হবে বলে জানিয়েছে তাঁরা। প্রতিষ্ঠানটি বলছে, ২০৩০ সাল নাগাদ আফ্রিকার কর্মোক্ষম মানুষের সংখ্যা চীনের থেকেও বেশি হবে। সেখানে প্রতিবছর ২ দশমিক ৫ শতাংশ হারে জনশক্তি বৃদ্ধি পাবে। অন্যদিকে ইউরোপে  দশমিক পাঁচ শতাংশ হারে জনশক্তি কমতে থাকবে। মূলত এ কারণেই অর্থনীতিতে ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশ পিছিয়ে পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। অস্ট্রিয়া এবং নরওয়ের মতো দেশগুলো শীর্ষ ৩০ অর্থনীতির দেশের তালিকা থেকে বাইরে চলে যাবে। আর ডেনমার্ক শীর্ষ ৪০’ এর তালিকাতেও থাকবে না বলে পূর্বাভাস দিয়েছে এইচএসবিসি।

বাংলা ইনসাইডার/এএইচসি/জেডএ