ঢাকা, বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

আউটসোর্সিং কাজের সেরা যত সাইট

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮ আগস্ট ২০২০ শনিবার, ১০:০০ এএম
আউটসোর্সিং কাজের সেরা যত সাইট

বাংলাদেশে তরুণদের অনেকেই এখন আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে উপার্জন করছেন। ঘরে বসে ফ্রিল্যান্সিং হিসেবে কাজ করার ক্ষেত্র যেমন বাড়ছে, সেইসাথে তরুণরাও এমন কাজের দিকে আকৃষ্ট হচ্ছে। এখানে ধরা বাঁধা কোন অফিস টাইম নেই। নেই বসের কটু কথা শোনার কোন ঝামেলা। সেইসাথে আয়ও মন্দ না। তাছাড়া, প্রথাগত সব চাকরিতে খুঁজতে গিয়ে রয়েছে তীব্র প্রতিযোগিতার ঝামেলা। ফলে সবকিছু মিলিয়ে এই ধরণের কাজের প্রতি ঝোঁক বাড়ছে দিনকে দিন। আর করোনা প্রাদুর্ভাবের এই সময়ে অনেক প্রতিষ্ঠানই খরচ বাঁচাতে ফ্রিল্যান্সারদের দিয়ে কাজ করাচ্ছেন। সামনের দিনগুলোতে এমন কাজের চাহিদা আরও বাড়বে বলেই ধারণা করা যায়। ফ্রিল্যান্সারদের এমন কাজের জন্য রয়েছে বেশ কিছু জনপ্রিয় ওয়েব সাইট। চলুন জেনে নেওয়া যাক এমন কিছু ওয়েবসাইটের বিষয়ে।    

ফ্রি-ল্যান্সার

আউটসোর্সিং কাজের জন্য একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হল ফ্রি-ল্যান্সার। আপনার যদি প্রতিযোগীতামূলক কাজের মানসিকতা থাকে। সেইসাথে যদি নিজেকে আউটসোর্সিং কাজের জন্য প্রস্তুত করে নিয়ে থাকেন। তাহলে প্রি-ল্যান্সার আপনার জন্য কাজের স্বাধীনতা রেখে দিয়েছে। আপনি অনায়াসে এ সুযোগ নিয়ে কাজ করতে পারেন। অন্যান্য ওয়েবসাইটগুলোর সঙ্গে এ সাইটের সবচেয়ে বড় ভিন্নতা হচ্ছে, এখানে আপনাকে অন্য প্রি-ল্যান্সারদের সাথে প্রতিযোগীতা করে নিজের দক্ষতা প্রমাণ করতে হবে। আর তাতেই খুলে যাবে আপনার আয়ের উৎস।

কলেজ রিক্রু্টার

নাম দেখেই হয়তো বুঝতে পারছেন এই সাইট হচ্ছে কলেজ ছাত্রদের জন্য। এখানে সবাই সবার সহকর্মী। সবাই সবাইকে সাহায্য-সহযোগিতা করে থাকে টিপস্ দিয়ে এবং কাজ পাইয়ে দিয়ে। তাই আপনাকে এখানে অন্যদের সঙ্গে সম্পর্ক পাতানো এবং সে সম্পর্ককে গাঢ করতে হবে। তবে এটা আপনার প্রধান কাজ নয়। প্রধান কাজ হল ক্লায়েন্টের কাজ করা। এখানে ক্লায়েন্টরা আসে কিছুটা কম টাকায় কাজ করিয়ে নেয়ার জন্য। আর যারা কাজ করে দেয় তাদের বেশিরভাগই স্টুডেন্ট। কারণ সাইটা প্রধানত স্টুডেন্টদের জন্যই করা। আউটসোর্সিং কাজে যাদের একটু দক্ষতা কম, তাদের জন্য এই সাইট হতে পারে সেরা পছন্দ।

আপওয়ার্ক

ফ্রিল্যান্সারদের জন্য বলতে গেলে সবচেয়ে জনপ্রিয় সাইট হল আপওয়ার্ক। এখানে ছোট বড়, স্বল্প-মেয়াদী এবং দীর্ঘ মেয়াদী লক্ষ লক্ষ কাজ রয়েছে। আপওয়ার্কে ফিক্সড্ রেট এবং ঘন্টা হিসেবে কাজ করা যায়। ফিক্সড্ রেটের ক্ষেত্রে ক্লায়েন্টরা পুরো কাজটি শেষ করার জন্য একটা নির্দিষ্ট অ্যামাউন্ট উল্লেখ করে দেয় আর ফ্রি-ল্যান্সাররা নিজ নিজ ডিমান্ডের সঙ্গে মিলে কাজটি করার জন্য প্রপোজাল দেয়। কাজ শেষ হয়ে গেলে ক্লায়েন্ট পেমেন্ট করে দেয়। তবে ফিক্সড্ অ্যামাউন্টের কাজের পেমেন্টের ক্ষেত্রে আপওয়ার্ক কোন দায় দায়িত্ব নেয় না। এখানে আপনার প্রোপাইলেই আপনি উল্লেখ করে দিতে পারেন যে দিনে আপনি কয় ঘন্টা কাজ করবেন। যত ঘন্টা খুশি আপনি তত ঘন্টাই কাজ করতে পারবেন। বাধা দেয়ার কেউ নেই। আপওয়ার্কে দক্ষ অদক্ষ সবার জন্যই কাজের সুবিধা রয়েছে।

টপটাল

জনপ্রিয় টপটাল ওয়েবসাইটটি মূলত টেকনোলোজি লাভারদের জন্য। আপনি যদি একজন সফট্ওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, ওয়েব ডেভেলপার বা সিস্টেম অ্যানালাইজার হয়ে থাকেন। তবে এ সাইটটি আপনার জন্য সবচেয়ে উপযোগী হবে। এখানে অন্যান্য কাজের সংখ্যা নাই বললেই চলে। সবই ডেভেলপমেন্ট রিলেটেড। এখানে ক্লায়েন্টের সংখ্যা নগন্য। কিন্তু জেপিমরগান, জেনডেক্স, এয়ারবিএনবিসহ বিশ্বের বাঘা বাঘা কোম্পানীগুলোই এই সাইটের প্রধান প্রধান ক্লায়েন্ট। এ রকম একটা ক্লায়েন্টের কাজ করতে পারলেই আপনার ক্যারিয়ার দাঁড়িয়ে যাবে। কিন্তু অতোটা সহজ নয়, যতটা ভাবছেন। আবার অতোটা কঠিনও নয়, যতটা ভয় পাচ্ছেন। টপটালের স্ক্রিন প্রপেসটা পার হতে পারলেই আপনি ইন্টারভিউ দেয়ার সুযোগ পাবেন। আর আপনার যদি যোগ্যতা থাকে, আপনি অবশ্যই ইন্টারভিউ দিয়ে টিকে যাবেন।