কালার ইনসাইড

‘কঙ্গনার গালের মতো মসৃণ রাস্তা বানাব’, কংগ্রেস নেতার মন্তব্যে তোলপাড়

প্রকাশ: ০৯:১৩ পিএম, ১৫ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

‘অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের গালের মতো মসৃণ রাস্তা বানিয়ে’ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিতর্কে জড়ালেন ভারতের ঝাড়খণ্ডের এক কংগ্রেস বিধায়ক। নিজের বিধানসভা কেন্দ্রের জন্য ১৪টি নতুন রাস্তা বানানোর কথা জানানোর সময়ই তিনি বলেন, ‘রাস্তাগুলো হবে কঙ্গনার গালের মতোই মসৃণ।’ স্বাভাবিকভাবেই তার এমন মন্তব্যকে ঘিরে বিতর্ক শুরু হয়ে গেছে। ইতোমধ্যেই নেতার ওই ঘোষণার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

ঝাড়খণ্ডের জামতাড়া বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক ড. ইরফান আনসারি। ভিডিওয় তাকে বলতে শোনা যায়, ‘‘আমি আপনাদের কথা দিচ্ছি জামতাড়ার রাস্তাগুলো অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের গালের মতো মসৃণ হয়ে উঠবে। ১৪টি রাস্তার কাজ শিগগিরই শুরু হবে।’’

গত সপ্তাহেই বিতর্কে জড়িয়েছিলেন ওই কংগ্রেস নেতা। তিনি বলে বসেছিলেন, ‘বেশিক্ষণ মাস্ক পরে থাকলে স্বাসকষ্ট হতে পারে। তাই সারক্ষণ মাস্ক পরে থাকার দরকার নেই।’ ভারতে যখন হু হু করে বাড়ছে ওমিক্রনের দাপট, সেই পরিস্থিতিতে একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে এমন ভুল বার্তা দেওয়ার জন্য সমালোচনার মুখে পড়েন আনসারি। এবার কঙ্গনার গালের সঙ্গে রাস্তার তুলনা করে নতুন করে বিতর্ক বাঁধালেন তিনি।

এদিকে সম্প্রতি নায়িকাদের সঙ্গে রাস্তার মসৃণতার তুলনা বারবারই উঠে আসতে দেখা গিয়েছে রাজনীতিবিদদের মুখে। কিছুদিন আগেই মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী ও শিব সেনা নেতা গুলাবরাও পাটি হেমা মালিনীর গালের সঙ্গে তার বিধানসভা এলাকার রাস্তার তুলনা করেছিলেন। পরে অবশ্য তিনি তার মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়েছিলেন। আবার ২০২১ সালের নভেম্বরে রাজস্থানের মন্ত্রী রাজেন্দ্র সিং ক্যাটরিনা কাইফের গালের সঙ্গে রাস্তার তুলনা করেছিলেন। এরও বহু বছর আগে লালুপ্রসাদ যাদব হেমা মালিনীর গালের সঙ্গে বিহারের রাস্তার তুলনা করে বিতর্কে পড়েছিলেন।  

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন, হিন্দুস্তান টাইমস

কঙ্গনা রানাওয়াত  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

নতুন মা প্রিয়াঙ্কা সম্পর্কে যা বললেন আনুশকা

প্রকাশ: ১০:৩১ এএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

সম্প্রতি, নেটমাধ্যমে মা হওয়ার খবর জানিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। জানিয়েছিলেন, সারোগেসিক মাধ্যমে মা-বাবা হলেন তিনি আর নিক। গভীর রাতেও সেই খবর হু হু করে ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে শনিবার সকাল থেকে তা নিয়ে আলোচনা আরও বাড়ে। বহু বলিউড তারকা সোশ্যাল মিডিয়ায় শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এই যুগলকে।

বলিউডের থেকে হলিউডে সময় বেশি দিলেও, এখানেও প্রিয়াঙ্কার বন্ধুর সংখ্যা কম নয়। লারা ভূপতি, পূজা হেগড়ে, নেহা ধুপিয়া থেকে আলিয়া ভাট, ভিকি কৌশল— অনেকেই শুভেচ্ছাবার্তা পাঠিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়াতেই। 

এবার সেই তালিকায় যোগ হলো আনুশকা শর্মার নাম। নিজের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে বিরাট-পত্নী লিখেছেন, 'প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এবং নিক জোনাস, দু'জনের জন্যেই রইল শুভেচ্ছা। অনাস্বাদিত আনন্দ ভাগের অভিজ্ঞতা এবং ভালোবাসা তো বটেই, পাশাপাশি রাত জাগার জন্যও একেবারে প্রস্তুত হয়ে থেকো। আর পুঁচকেটিকেও অফুরান ভালোবাসা।'


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

সহযোগী চলচ্চিত্র শিল্পীরা ভোট দিতে পারবে না : হাইকোর্ট

প্রকাশ: ০৬:১৪ পিএম, ২৬ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির এবারের নির্বাচনে ভোট দিতে পারবেন না সহযোগী শিল্পীরা। এ ব্যাপারে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, আমাদের সমিতির সহশিল্পীরা যারা ভোটাধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন, তারা এবারের নির্বাচনে ভোট দিতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন হাইকোর্ট।

আদালতে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ূন, অ্যাডভোকেট আহসানুল করিম ও অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি। আবেদনকারী শিল্পীদের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট শাহ মঞ্জুরুল হক। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অরবিন্দু কুমার রায়।

আগামী ২৮ জানুয়ারি এফডিসিতে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির এই দ্বিবার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আসন্ন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের দুটি প্যানেল অংশ নিচ্ছে। একটিতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে রয়েছেন যথাক্রমে বরেণ্য অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন ও নায়িকা নিপুণ। অন্যটিতে আছেন মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান।

হাইকোর্ট   শিল্পী সমিতি  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

যা আছে কাঞ্চন- নিপুণ পরিষদের ইশতেহারে

প্রকাশ: ০৫:০৯ পিএম, ২৬ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

আগামী ২৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২৭তম দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। এ উপলক্ষে বুধবার (২৬ জানুয়ারি) গণমাধ্যমের জন্য আয়োজন করা হয় ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ পরিষদের পরিচিত পর্ব। প্রার্থীদের পরিচয় পর্বের জন্য এ আয়োজন হলেও এতে খুঁজে পাওয়া গেল না বেশিরভাগ প্রার্থীদেরকেই।

বেলা ১টায় আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে পদপ্রার্থী ২১ জনের মধ্যে উপস্থিত হলেন শুধু সাংগঠনিক পদের পাঁচজন ও দুইজন কার্যকরী সদস্য।

উপস্থিত ছিলেন সভাপতি পদপ্রার্থী ইলিয়াস কাঞ্চন, সহ-সভাপতি রিয়াজ, ডি এ তায়েব, কোষাধ্যক্ষ আজাদ, কার্যকরী পদের ফেরদৌস, কেয়া ও সীমান্ত।

বিষয়টি নিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘আর একদিন বাদেই আমাদের নির্বাচন। তাই আমরা কাজ ভাগ করে করছি। অনেকেই উপস্থিত হননি।’

এদিকে এই অভিনেতা সংবাদকর্মীদের সামনে তাদের ২২ দফা ইশতেহার তুলে ধরেন। এরমধ্যে জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এফডিসিতে আনা এবং শিল্পীদের প্রোফাইল তৈরিসহ কয়েকটি দিক।

ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘আমরা প্রথমেই চাই বঙ্গবন্ধুর তৈরি বিএফডিসিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আনতে। এছাড়াও শিল্পীদের জন্য তৈরি কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবহার, চলচ্চিত্রের সার্বিক অবস্থা তুলে ধরে এটি নির্মাণে ঋণের ব্যবস্থাও করতে চাই।’

২২টি পয়েন্টের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- বিএফডিসিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আনা, শিল্পীদের জন্য তৈরি কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবহার, চলচ্চিত্রের সার্বিক অবস্থা তুলে ধরে এটি নির্মাণে ঋণের ব্যবস্থা, বাতিল ও স্থগিত বা ভোটাধিকার বঞ্চিত শিল্পীদের তা ফিরিয়ে দেওয়া, শিল্পীদের মর্যাদা রক্ষায় কেউ একবার সদস্য হলে আজীবন সদস্য থাকবে, যেকোনও দুর্যোগ শিল্পীদের পাশে দাঁড়াবে সমিতি, সহায়তা গ্রহণকারীদের ছবি ও ভিডিও প্রকাশ না করা, পার্শ্ববর্তী দেশের শিল্পী সংগঠনের মধ্যে চুক্তি করে দেশের শিল্পীদের কর্মসংস্থান তৈরি করা, ওয়েবসাইট উন্নয়ন, শিল্পীদের প্রোফাইল তৈরি করা, বিশেষ করে নৃত্য ও অ্যাকশন শিল্পীদের প্রোফাইল তৈরি করে বিশ্বের বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রিতে পাঠানো, সভাপতিকে পদাধিকার সেন্সর বোর্ড বা তথ্য-সম্প্রচার বা সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন জায়গায় অধিষ্ঠিত করা।

ইলিয়াস কাঞ্চন জানান, ‘মর্যাদায় ও পর্দায় আমাদের শিল্পী’ স্লোগানে তারা এবারের নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। তারা নির্বাচিত হলে শিল্পীদের মর্যাদা ও পর্দায় তাদের কাজের ব্যবস্থা করবেন।


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

দেড় বছর আড়াল ভেঙে প্রকাশ্যে এসে যে বার্তা দিলেন পপি

প্রকাশ: ০৫:০৫ পিএম, ২৬ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

ঢাকাই সিনেমার  দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী সাদিকা পারভীন পপি৷ প্রায় দেড় বছর আড়ালে ছিলেন তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী এ তারকা। শোনা গিয়েছে বিয়ে করে সন্তান নিয়ে সংসার নিয়ে ব্যস্ত আছেন তিনি। বহু চেষ্টা করেও তার সাথে যোগাযোগ করতে পারেননি সাংবাদিক থেকে শুরু করে তার কাছেন অনেক মানুষ।  অবশেষে আড়াল ভেঙে ফিরলেন এই অভিনেত্রী। দেখা দিলেন এক ভিডিও বার্তা দিলেন। 

ভিডিও বার্তায় পপি বিগত দুই মেয়াদে ক্ষমতায় থাকা শিল্পী সমিতির ক্ষমতাসীন একজনকে ইঙ্গিত করে কিছু অভিযোগের কথাও তুলে ধরেন। যদিও তিনি সরাসরি তার নাম নেননি।

পপি বলেন, ভেবেছিলাম আর কখনোই ক্যামেরার সামনে আসবো না। কিন্তু একজন শিল্পী হিসেবে এবং নিজের কিছু দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে আজকে কিছু কথা না বললেই না।

পপি বলেন, দীর্ঘ ২৬ বছর ইন্ডাস্ট্রিতে সুনামের সাথে কাজ করার চেষ্টা করেছি। তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছি। আজকে অনেক কষ্ট নিয়ে কথাগুলো বলছি, আজ আমি কোথায়! আমি আছি আপনাদের মাঝেই, হয়তো ভাগ্য থাকলে আবারও ফিরবো।

অভিযোগ করে ‘কুলি’ সিনেমার এই নায়িকা বলেন, বর্তমান শিল্পী সমিতির একটি মাত্র লোকের কারণে, তার পলিটিক্স এবং তার অনেক রকম অসহযোগিতার কারণে আমাকে বার বার অপমানিত হতে হয়েছে। শুধু আমি না, আমার মতো রিয়াজ, ফেরদৌস, পূর্ণিমা, নিপুণও অপমানিত হয়েছেন। আমাদেরকে ব্যবহার করে যে এই চেয়ারটিতে বসেছে- সেখানে বসেই বিভিন্ন রকমের অপকর্মের চেষ্টা করেছে। কিন্তু আমরা গুটি কয়েক তাতে সাঁয় দিইনি। যার কারণে আজকে আমি ভিক্টিম। আমার মতো শিল্পীকে সদস্য পদ বাতিলের জন্য চিঠি দেয়া হয়েছে। এতো বছর কাজ করার পর এমন আচরণ, একটা শিল্পীর জন্য কতোটুকু অপমানের- সেটা আমি বুঝতে পারি। ১৮৪জন শিল্পীরাও এই কষ্টটা বুঝতে পারবে।

পপি জানান, এসব কারণে চলচ্চিত্র থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছি। আমার কাছে সদস্য পদ বাতিলের চিঠিটা এখনও আছে। ওই চিঠিটা যখনই পেয়েছি, তখনই সিদ্ধান্ত নিয়েছি- এই নোংরামির মধ্যে আর আমি যাবো না। ভেবেছি, কখনো যদি পরিবেশ ভালো হয়- তখনই চলচ্চিত্রে ফিরবো।

২০২০ সালের ডিসেম্বর থেকে উধাও তিনি। এরপর তাকে নিয়ে নানা খবর চাউর হয়। গত বছরের ২৮ অক্টোবর জানা যায় তিনি পুত্র সন্তানের মা হয়েছেন। যার কারণে আড়ালে তিনি৷ শোনা গিয়েছিল চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে অংশ নেওয়ার খবর৷ তবে সে পর্যন্ত নির্বাচনে দেখা যায়নি তাকে। তাছাড়া পপি ২৮ জানুয়ারি ভোট দিতে আসছেন না বলেও জানা গেছে।

উল্লেখ্য, পপির আড়াল থাকার কারণে আটকে আছে কয়েকটি সিনেমা। তার মধ্যে রয়েছে- রাজু আলীম ও মাসুমা তানি পরিচালিত ‘ভালোবাসার প্রজাপতি’ ও আরিফুর জামান আরিফের ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’ সিনেমা দুটি।

পপি  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

শিল্পী সমিতির নির্বাচনে বাধা নেই

প্রকাশ: ০৪:৪৩ পিএম, ২৬ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

আগামী ২৮ জানুয়ারি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন হতে বাধা নেই বলে জানিয়েছে হাইকোর্ট। বুধবার বিকালে বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান এ আদেশ দেন। আদেশে বিচারপতি বলেন, ভোটার তালিকা থেকে বাদ পড়াদের বিষয়ে রুল শুনানির পর বিস্তারিত সিদ্ধান্ত জানাবে হাইকোর্ট।

এর আগে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২২-২৪ মেয়াদের নির্বাচন স্থগিত চেয়ে আবেদন করা হয়।  বিচারপতি মো. খসরুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে এ আবেদনের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। ভোটার তালিকা থেকে বাদ পড়াদের মধ্যে ১৬ জন হাইকোর্টে এ আবেদন করেন।

আগামী ২৮ জানুয়ারি শিল্পী সমিতির নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে।


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন