কালার ইনসাইড

'আমি এতিম, শিল্পী সমিতিই আমার সব'

প্রকাশ: ০৪:১৩ পিএম, ২৪ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail 'আমি এতিম, শিল্পী সমিতিই আমার সব'

আগামী ২৮ জানুয়ারি অনুসঠিত হতে যাচ্ছে শিল্পী সমিতির নির্বাচন। এবারের  নির্বাচনে  সাধারণ সম্পাদক পদে তৃতীয়বারের মতো নির্বাচন করছেন জায়েদ খান। নির্বাচনে তার বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন চিত্রনায়িকা নিপুণ। রোববার দুপুরে প্যানেল পরিচিতির আয়োজন করে মিশা-জায়েদ পরিষদ। এ সময় দুঃখভারাক্রান্ত মনে নিজের বক্তব্য তুলে ধরেন জায়েদ খান। বক্তব্যের এক পর্যায়ে এই নায়ককে কাঁদতে দেখা গেছে।

জায়েদ খান বলেন, ‘আমার একার সিদ্ধান্তে কোনো সদস্যের সদস্যপদ স্থগিত করা হয়নি। উপদেষ্টা মণ্ডলী ও পুরো কার্যনির্বাহী সদস্যের সিদ্ধান্তে এটা করা হয়েছে। সবাই স্বাক্ষর দিয়েছেন।’

জায়েদ খান কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘কদিন আগে করোনায় মাকে হারিয়েছি। বাবার মৃত্যুর এক বছরের মাথায় মা চলে গেল। এই শিল্পী সমিতিই আমার সব। সমিতির সদস্যরা আমার পরিবার। সিনিয়র শিল্পীরা আমার বাবা-মা। রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়ার আগে মা বলে গেছে, ‘তোমার বিয়ে করা লাগবে না। সমিতি নিয়েই থাক।’

মায়ের এ কথা বলার কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘নিজের জন্য না ভেবে সবসময় এই সমিতি ও এখানকার মানুষদের জন্য কাজ করেছি। করোনার মধ্যে মারা যাওয়া প্রত্যেক শিল্পীর লাশ কাঁধে নিয়ে দাফন করেছি। কিছুদিন আগে মায়ের লাশ কাঁধে নিয়েছি। এখনও আমার ঘাড়ে সেই ব্যথা। কি করিনি এই সমিতির জন্য? কাজ বেশি করেছি বলে আমার দুর্নাম বেশি হচ্ছে। আমি যদি একটাও মিথ্যা কথা বলি আমার বাবা-মায়ের মৃত আত্মা যেন শাস্তি পায়।’

মায়ের এ কথা বলার কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘নিজের জন্য না ভেবে সবসময় এই সমিতি ও এখানকার মানুষদের জন্য কাজ করেছি। করোনার মধ্যে মারা যাওয়া প্রত্যেক শিল্পীর লাশ কাঁধে নিয়ে দাফন করেছি। কিছুদিন আগে মায়ের লাশ কাঁধে নিয়েছি। এখনও আমার ঘাড়ে সেই ব্যথা। কি করিনি এই সমিতির জন্য? কাজ বেশি করেছি বলে আমার দুর্নাম বেশি হচ্ছে। আমি যদি একটাও মিথ্যা কথা বলি আমার বাবা-মায়ের মৃত আত্মা যেন শাস্তি পায়।’

এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হয়েছে দাবি করে এই চিত্রনায়ক বলেন, ‘আমি এখন এতিম। এই শিল্পীরাই আমার পরিবার। সুচরিতা আপা আমাকে বলেছেন- ‘আমি তোর মা।’ তার মতো লিজেন্ডরা আমার পাশে আছেন বলেই আমি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। তা না হলে এবার নির্বাচন করতাম না। কথা দিচ্ছি বিপদ যখনই আসবে তখনই আমি সবসময় পাশে থাকবো।’

অনেক ভালো কাজের ভিড়ে কিছু ভুল থাকতেই পারে। বক্তব্যে ভুলগুলো ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখার অনুরোধ করেন জায়েদ খান।

জায়েদ খান   চলচ্চিত্র   শিল্পী সমিতি  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

চলচ্চিত্র নির্মাণে আসছেন ইলিয়াস কাঞ্চন

প্রকাশ: ০৭:০৪ পিএম, ১৭ মে, ২০২২


Thumbnail চলচ্চিত্র নির্মাণে আসছেন ইলিয়াস কাঞ্চন

দেশের নন্দিত কিংবদন্তি চলচ্চিত্র অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন। রাজপথে ‘নিরাপদ চড়ক চাই’ আন্দোলনের নেতা হিসেবেও সুনাম কুড়িয়েছেন অনেক। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতিও নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

এবার নিজের নামের সঙ্গে জুড়ে দিলেন উদ্যোক্তা। দেশীয় ইলেক্ট্রনিক্স প্রতিষ্ঠান ভিসতায় ‘উদ্যোক্তা পরিচালক’ হিসেবে যোগ দিয়েছেন অভিনেতা। সেখানে হাজির হয়ে এক প্রশ্নের জবাবে জানান শিগগিরই চলচ্চিত্র নির্মাণে হাত দেয়ার কথা।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার (১৭ মে) বিকেলে গুলশানের একটি পাঁচতারকা হোটেলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, সবাইকে প্রডাকশন বানাতে বলছি- আমার নিজেরও প্রডাকশন নির্মাণ করা দরকার। অচিরেই নতুন প্রডাকশন নির্মাণে হাত দিচ্ছি।  এছাড়া শিগগিরই নতুন একটি মিটিং কল করেছি। নির্বাচনের সময় যে কাজগুলো করতে চেয়েছিলাম সেসব বিষয়ে আলোচনা করব।

কী চিন্তা করে এই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন জানতে চাইলে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ওয়ালটনের শুরু থেকেই আমি তাদের সঙ্গে যুক্ত ছিলাম। সে সময় ওয়ালটনকে কেউ চিনতো না। অনেকেই জানতো আমিই ওয়ালটনের মালিক। এখনো অনেকেই তাই মনে করেন। একটা পর্যায়ে সেখান থেকে আমিসহ অনেকেই বেড়িয়ে এসেছি।

যোগ করে তিনি আরও বলেন, সেখান থেকে বেরিয়ে আসা নতুন একটি টিম নতুন এই প্রতিষ্ঠানটি করেছে। সেসময় ওই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলাম ব্যবসার কথা চিন্তা করে নয়। মানুষের কল্যাণের কথা চিন্তা করে যুক্ত হই। প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে নিরাপদ সড়ক চাই জোরালোভাবে উচ্চারিত হতো। একটা পর্যায়ে এটাকে গুরুত্ব দেয়া হয়নি। যার কারণে বেরিয়ে আসি। এরপর বিরতি নিয়ে নতুন এই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত হই। আশা করছি, ভালো কিছুই হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ভিসতা ইলেকট্রনিক্স-এর চেয়ারম্যান সামছুল আলম, ব্যবস্থাপনা পরিচালক লোকমান হোসেন আকাশ, পরিচালক প্রকৌশলী মাে. মইনুল হক, উদয় হাকিম, এইচভ্যাক এর পরিচালক প্রকৌশলী মাে. শহীদ উল্লাহ প্রমুখ।

ইলিয়াস কাঞ্চন  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

নতুন পরিচয়ে আসছেন অঞ্জনা

প্রকাশ: ০৩:৪১ পিএম, ১৭ মে, ২০২২


Thumbnail নতুন পরিচয়ে আসছেন অঞ্জনা

বাংলা চলচ্চিত্রের সোনালী সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অঞ্জনা রহমান। দীর্ঘদিন থেকেই পর্দার আড়ালে তিনি। সিনেমায় কাজ না করলেও তাকে নিয়মিত পাওয়া যায় চলচ্চিত্রের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে। বর্তমানে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কার্যনির্বাহী সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন অঞ্জনা।

নতুন খবর হচ্ছে- এই নায়িকা এবার চলচ্চিত্রে সরব হচ্ছেন ভিন্ন পরিচয়ে। সিনেমা প্রযোজনার পর এবার নাম লেখাতে যাচ্ছেন পরিচালনায়। বর্তমানে চলছে গল্প লেখার কাজ। শিগগিরই সবকিছু চূড়ান্ত করে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন বলে জানান অভিনেত্রী।

এ প্রসঙ্গে অঞ্জনা বলেন, সবাই আমাকে অনুরোধ করছে চলচ্চিত্র পরিচালনায় আসার জন্য। সবকিছু বিবেচনা করে আমিও ভাবছি আমার অঞ্জনা ফিল্মস থেকে সিনেমা পরিচালনা করার কথা। বর্তমানে গল্প রেডি হচ্ছে। গল্প রেডি হলেই অনুদানের জন্য জমা দেব। অনেকেই অনুদান পেয়েছে। আমারও পাওয়া উচিত। আশাবাদী আমিও পাবে। সামাজিক-পারিবারিক গল্পে প্রথম পরিচালনার সিনেমাটি নির্মিত হবে। এখনই কিছু চূড়ান্ত নয়। সবকিছু রেডি হলে সিনেমার নাম ও শিল্পী নির্বাচন করা হবে।

যোগ করে তিনি বলেন, যেহেতু আমি প্রথমবার পরিচালনায় আসতে চলেছি তাই পরিচালনায় গাইড হিসেবে আমারই একজন অভিভাবক থাকবেন। অনুদান না পেলে নিজ অর্থায়নে সিনেমাটি নির্মাণ করব। এবারই প্রথম নয়, আমার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে এর আগেও সিনেমা প্রযোজনা করেছি।

চলচ্চিত্রে কাজ না করলেও এ অঙ্গনের মানুষের পাশে বরাবরই অঞ্জনাকে পাওয়া যায়। নেতৃত্বে আছেন শিল্পী সমিতির। তবে সমিতির ২০২২-২০২৪ নির্বাচন ঘিরে অনেক আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে। এবারের নির্বাচন অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। এখনও ‘সাধারণ সম্পাদক পদ’ নিয়ে সুরাহা হয়নি। এ নিয়ে কী বলবেন? এবার আমাদের নির্বাচন সুস্থভাবেই হয়েছে। তার পর হঠাৎ করে কি যে হয়ে গেল বুঝলাম না। টানা তিনবার আমি নির্বাচিত হয়েছি। কখনো এমন চিত্র দেখিনি।

অঞ্জনা বলেন, এর আগেও উৎসবমুখুর পরিবেশে সবাই ভোট  দিয়েছেন। নির্বাচন ঘিরে ভোটের দিন এফডিসিতে তারকাদের সমাগমে মেতে থাকত পুরো এফডিসি। এবার কেন জানি সবকিছু এলোমেলো হয়ে গেল। এখনও দ্বিধাদ্বন্দ্ব রয়েছে। সেই সঙ্গে চলছে আইনি লড়াই। এখন আইন যে সিদ্ধান্ত নেবে আমরা সেটাই মেনে নেব।

যে পদটি নিয়ে দ্ধন্ধ চলছে, সেই প্রভাব কী শিল্পীদের মনের ভেতর পড়ছে বলে করেন? অবশ্যই পড়ছে। আগে সবাই যেভাবে উৎস নিয়ে ভোট দিতে আসতে কিংবা সমিতিতে আসত সেই রেশটা আর নেই। এসব ঘটনায় অনেকেই বিরক্ত। তবে আমি কোনো বিভাজন চাই না। আশা করি, শিগগিরই এর সমাধান দেখব। এখন চলচ্চিত্রের উন্নয়ন দরকার। সবার এক হয়ে কাজ করে চলচ্চিত্র এগিয়ে নিতে হবে।

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অপ্রাপ্তি বলতে কিছু আছে? না আমার অপ্রাপ্তি বলতে কিছু নেই। যা কিছু অর্জন করেছি তার পুরোটাই প্রাপ্তি। আমার প্রডাকশন থেকে সুন্দর একটি সিনেমা উপহার দেওয়ার আশা ব্যক্ত করেছি। জানি না কতটুকু পারব। তবে আমি আমার সাধ্যমতো চেষ্টা করব। প্রথম পরিচালিত সিনেমাটিতে কাজ করবেন এ সময়েরই দর্শকপ্রিয় নায়ক-নায়িকারা।

নিয়মিত প্রেক্ষাগৃহে সিনেমা দেখেন উল্লেখ করে অভিনেত্রী বলেন, বর্তমানে অনেকেই সিনেমা নির্মাণ করছেন। তবে তাদের অনুরোধ করে বলতে চাই- টাকা খরচ করে কেউ টেলিফিল্ম বানাবেন না। এখনকার দর্শক অনেক আধুনিক ও সচেতন। নাটক-সিনেমার পার্থক্য তারা বুঝেন। বড় পর্দা মানে বড় পর্দাই। যারা বড় পর্দার নির্মাতা তারা সবসময় বড় পর্দা চিন্তা করেই সিনেমা নির্মাণ করেন। 

আক্ষেপ করে অঞ্জনা বলেন, এখন আর আগের মতো প্রেক্ষাগৃহ নেই। যারা প্রেক্ষাগৃহ ভেঙে শপিং মল করছেন তাদের আমাদের মাননীয়  প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন সেখানে একটি সিনেপ্লেক্স রাখার। অনেকদিন ধরেই লক্ষ করছি যে, এখনকার সিনেমা মুক্তির সময় সেভাবে আর প্রচারণা করা হয় না। অথচ আমাদের সময় বিপুল পরিমাণে প্রচারণা হতো। অ্যাডভান্স প্রেক্ষাগৃহ বুকিং হতো। প্রেক্ষাগৃহ হাউজফুল এখন শুধুই অতীত।

অঞ্জনা রহমান একাধিকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কিংবদন্তি অভিনেত্রী। বাংলা চলচ্চিত্রে অঞ্জনাই বাংলাদেশ ছাড়াও বিশ্বের ৯টি দেশের ১৩টি ভাষায় অভিনয় করেছেন। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, তুরস্ক, থাইল্যান্ড, নেপাল, শ্রীলংকা ও হংকংয়ের অসংখ্য ব্যবসা সফল সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি।

এক সময়ের জনপ্রিয় এই নায়িকা তিন শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। শধু তাই নয়, অভিনয়ের পাশাপাশি নাচেও আলাদা করে নিজের প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন অঞ্জনা। বাংলা চলচ্চিত্রে কিংবদন্তি নায়িকা হিসেবেও পরিগণিত হন তিনি।

অঞ্জনা   প্রযোজক   পরিচালক   সিনেমা  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

নিহত অভিনেত্রী পল্লবীর বাসায় মিলেছে মাদকের সন্ধান

প্রকাশ: ০২:৫৩ পিএম, ১৭ মে, ২০২২


Thumbnail নিহত অভিনেত্রী পল্লবীর বাসায় মিলেছে মাদকের সন্ধান

গত রোববার (১৫ মে) সকালে কলকাতার টিভি সিরিয়ালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পল্লবী দে’র ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এর একদিন পর সোমবার (১৬ মে) দুপুরে গড়ফা থানায় আসেন তার বাবা, মা ও পারিবারিক আইনজীবী। এ সময় তারা পল্লবী যার সঙ্গে লিভ-ইন করতেন, সেই প্রেমিক সাগ্নিক চক্রবর্তী ও অভিনেত্রীর এক বান্ধবীর নামে হত্যা মামলা দায়ের করেন।  

তবে এই তারকার মৃত্যুর রহস্য এখনো উদঘাটন হয়নি। এরমধ্যেই পল্লবী দে’র মৃত্যুর ঘটনায় মাদকযোগের তথ্য পেয়েছে পুলিশ। তাকে ঘিরে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে আসছে। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, পুলিশের তদন্তকারী অফিসাররা পল্লবীর গড়ফার ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালিয়ে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছেন। ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার করা হয়েছে হুক্কা, গাঁজাসহ নেশার নানা জিনিসপত্র। একই সঙ্গে এই অভিনেত্রীর ফোন পরীক্ষা করেও নতুন তথ্য পাওয়া গেছে।

এদিকে সাগ্নিক পুলিশি জেরায় জানিয়েছেন, পল্লবীর হাতে নাকি নতুন কোনো কাজ ছিল না। কিন্তু প্রতি মাসেই তার বড় অংকের টাকা ইএমআই শোধ করা লাগত। এই দুশ্চিন্তায় মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন।

কিন্তু কলকাতার শোবিজ অঙ্গনে গুঞ্জন, এই তথ্য একেবারেই সত্য নয়। অভিনেতা ভারত কল গণমাধ্যমকে জানান, গত তিন বছর ধরে একের পর এক কাজ করে যাচ্ছিলেন পল্লবী। কোনও দিন কাজ না পেয়ে বসে থাকেননি তিনি।

নানারকম তথ্যের কারণে পল্লবীর মৃত্যু ঘিরে ধোঁয়াশা আরও বাড়ছে। এখন পুলিশের তদন্তের ওপরই নির্ভর করছে সবকিছু।

নিহত অভিনেত্রী   পল্লবী   মাদকের সন্ধান  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

অভিনেত্রী পল্লবীর মৃত্যুতে নতুন মোড়, প্রেমিক গ্রেফতার

প্রকাশ: ০২:২০ পিএম, ১৭ মে, ২০২২


Thumbnail অভিনেত্রী পল্লবীর মৃত্যুতে নতুন মোড়, প্রেমিক গ্রেফতার

কলকাতার অভিনেত্রী পল্লবী দে'র মৃত্যুর পর তার প্রেমিক সাগ্নিক চক্রবর্তীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে আটক করেছে পুলিশ। তারা নিজেদের ‘বিবাহিত’ পরিচয় দিয়ে গড়ফার গাঙ্গুলি বাগানের একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়েছিলেন। অভিনেত্রী শুটিংয়ে গেলে ওই ফ্ল্যাটে অন্য মেয়েকে আনতেন তার প্রেমিক।

এমনকি কয়েক মাস আগে গোপনে বিয়েও করেছেন সাগ্নিক- এমনটাই দাবি করেছেন পল্লবীর বাবা।

পল্লবীকে মারধরের অভিযোগ এনে তার বাবার দাবি, সাগ্নিক আমার মেয়েকে মারধর করত। পল্লবীর অনেক বন্ধুই সে রকম চিহ্ন দেখে ব্যাপারটা আমাকে জানিয়েছে। আমরাও মেয়ের শরীরে দাগ দেখেছি।

এদিকে পল্লবী দে’র মৃত্যু রহস্যে নতুন মোড় এসেছে। তিনি যার সঙ্গে লিভ-ইন করতেন, সেই প্রেমিক সাগ্নিক চক্রবর্তীর নামে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা করেছেন পল্লবীর বাবা নীলু দে ও মা সংগীতা দে। বর্তমানে সে পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। পুরো বিষয়টি এখন পুলিশি তদন্তের ওপর নির্ভর করছে। পল্লবীর মৃত্যু কি স্রেফ আত্মহত্যা নাকি খুন, সেটা তদন্তের পরই জানা যাবে।

প্রসঙ্গত, পল্লবী-সাগ্নিক যে ফ্ল্যাটে থাকতেন, রোববার (১৫ মে) সকালে সেখান থেকেই অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পল্লবীর আকস্মিক মৃত্যুর খবরে শোকাহত তার সহকর্মীরা।

অভিনেত্রী   পল্লবী   মৃত্যু   নতুন মোড়   প্রেমিক   গ্রেফতার  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

রিভেঞ্জের ডাবিংয়ে বিরক্ত মিশা, চটলেন প্রযোজক ইকবাল

প্রকাশ: ০১:৫৭ পিএম, ১৭ মে, ২০২২


Thumbnail রিভেঞ্জের ডাবিংয়ে বিরক্ত মিশা, চটলেন প্রযোজক ইকবাল

মিশা সওদাগরের আপন ছোট ভাইকে খুন করা হয়, বদলা নিতে কাজী হায়াৎ ও তার ছেলেকে তুলে আনেন মিশা। টান টান উত্তেজনাকর এমন দৃশ্যের ডাবিং করছিলেন খল অভিনেতা মিশা সওদাগর। এক পর্যায়ে বিরক্ত হয়ে বেরিয়ে আসেন তিনি। 

এ সময় তার শরীর থেকে টপটপ করে ঘাম ঝরছিল। মিশা বিরক্তি নিয়ে বলেন, ‘ভেতরে প্রচন্ড গরম। সারা শরীর ঘামে ভিজে গেছে। এমন পরিবেশে কাজ করে কীভাবে? বদ্ধ ঘরে এয়ারকন্ডিশন না থাকলে রিলাক্সে কাজ করা যায় না।’

এফডিসির ডাবিং স্টুডিও বেশ বড়। দুটি এসি আছে সেখানে। কিন্তু একটি বিকল থাকায় ঘর ঠান্ডা হচ্ছিল না বলে জানান সেখানকার এক কর্মকর্তা। এমন বদ্ধ জায়গায়, ভ্যাপসা গরমে কাজ করতে কষ্ট হচ্ছিল মিশা সওদাগরের। 

এদিকে প্রযোজক পরিচালক মোহাম্মদ ইকবাল এ কথা শুনে ভীষণ চটেছেন। তিনি বলেন, ‘কালই এমডির কাছে যাব। আমরা একটু আরামে কাজ করার জন্য এফডিসিতে আসি। বাইরে অনেক ভালো স্টুডিও আছে তারপরও এফডিসিতে আসি। প্রচন্ড গরমের মধ্যে এসি না থাকলে শিল্পীরা কাজ করলেও সেটা ভালো হয় না। এগুলো দেখার কি কেউ নেই? এসি ঠিক করলেই তো হয়। তা না করে স্টুডিও ভাড়া দিয়ে যাচ্ছে!'

ইকবাল পরিচালিত প্রথম সিনেমা ‘রিভেঞ্জ’। এই সিনেমায় জুটিবদ্ধ হয়ে অভিনয় করেছেন জিয়াউল রোশান ও শবনম বুবলী। গত বছরের ১২ জুন বিএফডিসিতে সিনেমার শুটিং শুরু হয়। এতে আরো অভিনয় করছেন—দীপা খন্দকার, এল আর খান সীমান্ত, ইকবালপুত্র সুনান, শশী আফরোজা প্রমুখ।

রিভেঞ্জের ডাবিং   মিশা সওদাগর   ইকবাল   প্রযোজক  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন