কালার ইনসাইড

অপা‌রেশ‌নের না‌মে কিডনি চু‌রি, বিচারের দাবিতে আদালতে ঘুরছেন নির্মাতা

প্রকাশ: ০৬:১৮ পিএম, ০৭ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail অপা‌রেশ‌নের না‌মে কিডনি চু‌রি, বিচারের দাবিতে আদালতে ঘুরছেন নির্মাতা

প্রায় চার বছর আগে চলচ্চিত্র পরিচালক রফিক শিকদারের মা রওশন আরা মারা গেছেন। চিকিৎসকের অবহেলার কারণে মায়ের মৃত্যু হয়েছে, এমনই অভিযোগ করেন তিনি। এ ছাড়াও অপা‌রেশ‌নের না‌মে কিডনি চু‌রির অভিযোগও তুলেন এই নির্মাতা।

রোববার (৭ আগস্ট) চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট চত্বরে মামলার ফাইল হাতে তোলা একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন রফিক শিকদার। তিনি লিখেছেন, মা হত‌্যার বিচা‌রের দাবি‌তে এখ‌নও ঘুর‌ছি আদালত থে‌কে আদাল‌তে। অপা‌রেশ‌নের না‌মে কিডনি চু‌রির মাধ‌্যমে মা‌কে হত‌্যা করা ঘাতক ডাক্তার‌দের স‌র্বোচ্চ বিচার হ‌বে, ইনশাআল্লাহ।

রফিক শিকদার জানান, সম্প্রতি ডি‌বির তদন্ত কর্মকর্তা আদাল‌তে যে তদন্ত প্রতি‌বেদন দা‌খিল ক‌রে‌ছে তা ঘৃণাভ‌রে প্রত‌্যাখ‌্যান কর‌ছি। একজন জেলা ও দায়রা জ‌জের নেতৃ‌ত্বে হওয়া জাতীয় মানবা‌ধিকার ক‌মিশন কর্তৃক গ‌ঠিত তদন্ত ক‌মি‌টি যে তদন্ত প্রতি‌বেদন প্রকাশ ক‌রে‌ছিল তার স‌ঙ্গে পুলি‌শের অপরাধ তদন্ত বিভা‌গের ওসি মাহবুবের করা তদ‌ন্ত প্রতি‌বেদ‌নের অসঙ্গ‌তি স্পষ্ট! কো‌নো মিল নেই! মূলত ‌ডি‌বির ওসি মাহবুব মে‌ডিকেল সা‌য়েন্সের প‌রিপন্থিমূলক তদন্ত প্রতি‌বেদ‌ন আদাল‌তে দা‌খি‌লের মাধ‌্যমে অভিযুক্ত ডাক্তারদের‌কে বাঁচা‌নোর চেষ্টা ক‌রে‌ছেন। অবাক করার বিষয় হ‌চ্ছে, তদন্ত চলাকাল‌ীন সম‌য়ে এজাহারভুক্ত সা‌ক্ষী‌দের জবানবন্দ‌ি নেওয়া হয়‌নি এবং তা‌দের‌কে সাক্ষী হি‌সে‌বেও রাখা হয়‌নি দা‌খিলকৃত প্রতি‌বেদ‌নে। এখা‌নে যা‌দের‌কে সা‌ক্ষী হি‌সে‌বে রাখা হ‌য়ে‌ছে, তারা প্রত্যেকেই পেশাগত চিকিৎসক এবং তা‌দের বেশীরভাগেরই কর্মঠিকানা অভিযুক্ত অধ‌্যাপক হা‌বিবুর রহমান দুলালের নিয়ন্ত্রণাধীন বিএসএমএমইউ হাসপাতা‌ল।

নির্মাতা আরও জানান, সব‌চে‌য়ে অবাক করা বিষয় হ‌চ্ছে, প্রতি‌বেদন‌টি‌তে মা‌য়ের কিড‌নি জোড়া লাগা‌নো ছিল ব‌লে উল্লেখ করা হ‌য়ে‌ছে। অথচ অপা‌রেশ‌নের পূ‌র্বের সি‌টিস্ক‌্যান, আল্ট্রাসনোগ্রাম, এমআরআই, ডি‌টি‌পিএ রে‌নোগ্রাম রি‌পো‌র্টে মায়ের দু‌টো কিডনিই আলাদা এবং দু‌টো কিড‌নিরই আকৃ‌তি, বৈ‌শিষ্ট‌্য বা ফাংশনাল অবস্থার নিখুঁতভা‌বে বর্ণনা করা আছে। হর্ষসেপ কি‌ড‌নির ক্ষে‌ত্রে মে‌ডিকেল রিপো‌র্টে লেফ্ট অ‌্যান্ড রাইট কিড‌নি কথা‌টি লেখা থ‌া‌কে না। এক্ষেত্রে উল্লেখিত স্থা‌নে লেফ্ট অ‌্যান্ড রাইট কিড‌নি লেখার বদ‌লে হর্ষসেফ কিড‌নি কথা‌টিই লেখা থা‌কে। এছাড়াও স্বাভ‌াবিক কিড‌নির চে‌য়ে এমন‌ বিরল প্রকৃ‌তির কিড‌নির আকৃ‌তি বা গঠনপ্রণালীও ভিন্ন রকম; যা সাধারণ মে‌ডিকেল পরীক্ষা‌তেই স্পষ্ট বোঝা যায়।

আমিও দেখ‌তে চাই, মোড়লের জোর কোথায়! আজ আদাল‌তে হা‌জির হ‌য়ে ডি‌বির করা তদন্ত প্রতি‌বেদন প্রত‌্যাখ‌্যান ক‌রে নারা‌জি পি‌টিশন দা‌য়ের করার অভিপ্রায় ব‌্যক্ত ক‌রে এসেছি। মাননীয় আদালত আগামী ১৭/০৮/ ২০২২ তা‌রিখে নারা‌জি পি‌টিশ‌ন শুনানির দিন ধার্য ক‌রে‌ছেন। সবার দোয়া চাই।’

রফিক শিকদারের অভিযোগ, স্বাভাবিক কিডনি ভুল করে অপসারণ করে তার মাকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (বিএসএমএমইউ) চার চিকিৎসক। ২০১৮ সাল থেকে অভিযোগ করলেও দুই বছর পর মামলা নিয়েছে পুলিশ। ২০২০ সালের ২৭ নভেম্বর রাজধানীর শাহবাগ থানায় এ বিষয়ে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

কিডনি জটিলতার কারণে ২০১৮ বিএসএমএমইউ-তে ভর্তি হন রফিক শিকদারের মা রওশন আরা। চিকিৎসকরা তাকে সুস্থ করে তুলতে তার বাম কিডনি কেটে ফেলার সিদ্ধান্ত নেন। ২০১৮ সালের ৫ সেপ্টেম্বর বিএসএমএমইউ হাসপাতালে রফিক শিকদারের মায়ের অস্ত্রোপচার করেন কিডনি ট্রান্সপ্ল্যান্ট বিভাগের প্রধান হাবিবুর রহমান দুলাল। কিন্তু বাম কিডনির সঙ্গে কেটে ফেলা হয় ডান কিডনিও।

এর কিছুদিন পর গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে রওশন আরাকে রাজধানীর একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে পরীক্ষার পর দেখা যায়, তার দুটি কিডনির একটিও নেই। এর দুই মাস পর রওশন আরার মৃত্যু হয়।

এ প্রসঙ্গে বিএসএমএমইউ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ওই রোগীর জন্মগতভাবে কিডনি কমপ্লিকেশন (জটিলতা) ছিল। তাছাড়া অপারেশনে রক্তক্ষরণ ও ইনফেকশন ছড়িয়ে পড়ায় বাম কিডনি অপসারণ জরুরি হয়ে পড়েছিল। কিন্তু রোগীর কিডনি দুটি নিম্নমুখী ও সংযুক্ত বা জোড়া লাগানো ছিল; যাকে বলা হয় হর্ষ কিডনি। একটা ফেলতে গেলে আরেকটাও বেরিয়ে আসে। যেটা ডাক্তার দুর্ভাগ্যক্রমে ও অনিচ্ছাকৃতভাবে ফেলে দিয়েছিলেন। কারণ আলট্রাসনোগ্রাম ও সিটি স্ক্যানে বিষয়টি ধরা পড়েনি।


কিডনি   চু‌রি   নির্মাতা  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

বিপ্লব সাহার কণ্ঠে ‘পুজোয় ছুটি নাই’

প্রকাশ: ০৭:৪৪ পিএম, ০২ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail বিপ্লব সাহার কণ্ঠে ‘পুজোয় ছুটি নাই’

চলছে দুর্গাপূজা। অনেক গান ও নাটক প্রকাশ পাচ্ছে এই উৎসব উপলক্ষে। ধারাবাহিকতায় এসেছে বিশ্বরঙ-এর কর্ণধার বিপ্লব সাহার কণ্ঠে ‘পুজোয় ছুটি নাই’। গানটি লিখেছেন জীবন ফারুকী। এতে সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন রাজন সাহা। গানটি প্রকাশ হয়েছে মিউজিক ভিডিও আকারে। 

ভিডিওতে মডেল হয়েছেন অভিনেতা আজম খান, শিপন মিত্র, এন কাজলসহ একঝাঁক মডেল। 

এ গান নিয়ে বিপ্লব সাহা বলেন, এপার-ওপার দুই বাংলার একঘেয়েমি পূজার গানে যারা ক্লান্ত, আমাদের গানটি তাদের জন্য। পুজোর ছুটি নাই এটি কোনো গান নয়, অগণিত চাকরিজীবী মানুষের মনের কথা। যারা ছুটি পান না বসদের জন্য।

গত ১ অক্টোবর ইউটিউবে বিপ্লব সাহা ও বিশ্বরঙ-এর অফিসিয়াল চ্যানেলে প্রকাশ হয়েছে ‘পুজোয় ছুটি নাই’ গানটি।

বিপ্লব সাহা  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

প্যারালাইজড হয়ে হাসপাতালে নায়িকা রঞ্জিতা

প্রকাশ: ০৬:৫৬ পিএম, ০২ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail প্যারালাইজড হয়ে হাসপাতালে নায়িকা রঞ্জিতা

আশির দশকের সাড়া জাগানো গান ‘পাথরের পৃথিবীতে কাঁচের হৃদয়’—গানটির কথা অনেকের মনে আছে হয়তো। গানটির ছবির নাম ‘ঢাকা ৮৬’। নায়করাজ রাজ্জাক পরিচালিত এ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন রঞ্জিতা ও বাপ্পারাজ। অকালপ্রয়াত সংগীতশিল্পী জুয়েলের বোন নায়িকা রঞ্জিতার বাঁ পা এবং বাঁ হাত অবশ হয়ে গেছে। বর্তমানে চিকিৎসা করার আর্থিক অবস্থা তার নেই।

রাজধানীর মুগদা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি আছেন। গণমাধ্যমের কাছে জানাচ্ছেন বাঁচার আকুতি। গত ২৮ সেপ্টেম্বর স্ট্রোক করায় রঞ্জিতার পা-হাত অবশ হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

আশির দশকের রঞ্জিতা বলেন, আমার কথা বলতেও কষ্ট হচ্ছে, আমি বাঁচতে চাই। আমি সুস্থ হয়ে উঠতে চাই, আমাকে সাহায্য করুন। এই শহরে আমার থাকার ব্যবস্থা নেই। আমার উপার্জনের পথ নেই। প্রধানমন্ত্রী ছাড়া আমাকে আর কে বাঁচাতে পারেন, তিনি মমতাময়ী।

এই অভিনেত্রী কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার এক ভাই রয়েছে সেও প্রতিবন্ধী। আমার চিকিৎসা ব্যয়বহুল। আমার কোনো পথ নেই, আমি বেঁচে থাকতে চাই। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কাছেও তিনি সহযোগিতার আহবান জানান। 

রাজ্জাক পরিচালিত ‘রাজা মিস্ত্রী’ ও 'জ্বিনের বাদশা’ সিনেমাতেও অভিনয় করেছিলেন রঞ্জিতা। অভিনয় ক্যারিয়ারে ২৯টি সিনেমায় নায়িকা হিসেবে দেখা গেছে তাকে।

নায়িকা   রঞ্জিতা  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

মার্কিন রাজনীতিতে যুক্ত হচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া!

প্রকাশ: ০৫:১৭ পিএম, ০২ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail

বলিউড ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনের জনপ্রিয় মুখ, অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া সম্প্রতি মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের সঙ্গে তাঁর আলোচনা পর্ব থেকে বেশ কয়েকটি ছবি এবং ভিডিও শেয়ার করেছেন। ইনস্টাগ্রামে প্রিয়াঙ্কা একটি দীর্ঘ নোটও লিখেছেন, যাতে তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভোটাধিকারের বিষয়ে কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন যে আমি এ দেশে ভোট না দিলেও আমার স্বামী দেন এবং একদিন আমার মেয়ে দেবে। 

আলোচনায় ভারতে কিভাবে ইন্দিরা গান্ধী থেকে বর্তমান রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু পর্যন্ত নারীরা ‘সর্বোচ্চ নির্বাচিত পদে’ অধিষ্ঠিত হয়েছেন সে সম্পর্কে কথা বলেছেন প্রিয়াঙ্কা।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ এখনো ‘চূড়ান্ত কাচের ছাদ ভেঙে যাওয়া’র মতো পরিস্থিতি দেখেনি বলেও মন্তব্য করেছেন এই অভিনেত্রী। তবে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের সঙ্গে প্রিয়াঙ্কার এমন গুরুত্বপূর্ণ আলোচনায় অনেকের মনেই দানা বাঁধছে একটি প্রশ্ন। তবে কি প্রিয়াঙ্কা মার্কিন রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হচ্ছেন? আপাতদৃষ্টিতে সেটি ধারণা করা হলেও মূলত ডেমোক্রেটিক ন্যাশনাল কমিটির উইমেন লিডারশিপ ফোরামে নারীর ক্ষমতায়ন বিষয়ক একটি আলোচনায় অংশগ্রহণ করেছিলেন এই ভারতীয় অভিনেত্রী।

ইভেন্টের জন্য প্রিয়াঙ্কা একটি দীর্ঘ হলুদ পোশাক এবং সাদা হিল পরেছিলেন। ওয়াশিংটন ডিসিতে ডেমোক্রেটিক ন্যাশনাল কমিটি (ডিএমসি) উইমেন লিডারশিপ ফোরামে  বক্তৃতা করেন প্রিয়াঙ্কা ও কমলা হ্যারিস।  

প্রিয়াঙ্কা তাঁর পোস্টের ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘যেখানে সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে সব জায়গায়ই নারীরা অন্তর্ভুক্ত। নারীরা ব্যতিক্রম নয়। নারীরা সক্ষম। আদিম সময়কাল থেকেই বিশ্ব নারীর ক্ষমতাকে খর্ব করেছে। আমাদের সব সময় এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে এবং নীরব করে রাখা হয়েছে। কিন্তু অনেক নিঃস্বার্থ নারীর সাহস এবং দৃঢ়তার জন্যই আজ নারীমুক্তি ঘটেছে। আমরা আজ এমন একটি জায়গায় আছি, যেখানে আমরা একসঙ্গে আসতে পারি এবং ভুল সংশোধনের জন্য সম্মিলিতভাবে কাজ করতে পারি। গত রাতে ওয়াশিংটন ডিসিতে উইমেনস লিডারশিপ ফোরাম কনফারেন্সে কমলা হ্যারিসের সঙ্গে আলোচনা করার যে সম্মান পেয়েছিলাম, তা একটি গুরুত্বপূর্ণ সুযোগ ছিল আমার জন্য। ’

তিনি আরো লিখেছেন, যদিও আমি এই দেশে ভোট দিই না, কিন্তু আমার স্বামী দেন। একদিন আমার মেয়েও দেবে৷ ভিপি হ্যারিসের সঙ্গে আমার কথোপকথন হয়েছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোকে কেন্দ্র করে, যেগুলোকে সুরাহা করার জন্য একটি পরিষ্কার দৃষ্টিভঙ্গি এবং পরিকল্পনা থাকা দরকার৷ ডাব্লিউএলএফ এবং এই সংগঠনটির একজন প্রতিষ্ঠাতা শক্তি সেক্রেটারি হিলারি ক্লিনটনকে ধন্যবাদ, এই গুরুত্বপূর্ণ কথোপকথনে আমাকে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য। 

এ ছাড়া প্রিয়াঙ্কা ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন, যেখানে তাকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রশাসনের দক্ষিণ এশীয় সদস্যদের সঙ্গে পোজ দিতে দেখা গেছে।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া মার্কিন মুলুকে পাড়ি জমিয়েছেন বহু আগেই। তিনি মার্কিন গায়ক নিক জোনাসকে বিয়ে করেছেন এবং তাদের একটি কন্যাসন্তান রয়েছে। প্রিয়াঙ্কা-নিকির কন্যার নাম মালতি মারি চোপড়া জোনাস। বর্তমানে নিজের পরিবারের সঙ্গেই ব্যস্ত রয়েছেন এই অভিনেত্রী।

মার্কিন   রাজনীতি   প্রিয়াঙ্কা চোপড়া  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

বুবলীর পর সুখবর দিলেন পূজা চেরী

প্রকাশ: ০৪:৩৪ পিএম, ০২ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail বুবলীর পর সুখবর দিলেন

ঢাকাই সিনেমার বর্তমান প্রজন্মের চিত্রনায়িকা পূজা চেরি। সম্প্রতি সময়ে শাকিব খানের সঙ্গে প্রেমের গুঞ্জনে সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। প্রায় পাঁচ দিন ধরে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। অবশেষে স্যোশাল মিডিয়ায় নিজের উপস্থিতির জানান দিলেন নায়িকা। 

রোববার (২ সেপ্টেম্বর) সাড়ে ১২টায় ফেসবুকে নিজের চারটি ছবি পোস্ট করেন পূজা। তার পরনে সাদা গাউন, মাথায় ফুলের ক্রাউন। প্রকৃতির মাঝে পেছন থেকে তোলা পূজার ছবিগুলো অন্তর্জালে শুভ্রতা ছড়াচ্ছে। এই নায়িকার লুক বরাবরই নেটিজেনদের নজর কাড়ে। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি।



ঠিক এর কিছুক্ষণ পরেই তিনি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে যুক্তরাষ্টের ভিসার তিনটা ছবি পোস্ট করেন। এর ক্যাপশনে লেখেন, ‘অবশেষে আমরা এটা পেয়েছি’। ছবিতে দেখা যায় পূজার মাও পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা।

এর আগে জানা যায় দীর্ঘদিন ধরেই দেশটির ভিসা পাওয়ার চেষ্টা করছিলেন এই নায়িকা। তবে বিশ্বস্ত সূত্র থেকে জানা যায়, বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ভিসা পেয়েছেন ‘গলুই’ ছবির এই নায়িকা।

শাকিব   পূজা  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

গান নিয়ে অভিমান করে বাড়ি ছাড়া ছেলেটি আজকের জেমস

প্রকাশ: ০৪:০২ পিএম, ০২ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail

ফারুক মাহফুজ আনাম। বাংলাদেশের রক স্টার, যিনি জেমস নামেই পরিচিত। তিনি তার ভক্তদের কাছে গুরু। জেমস মানেই তারুণ্যের উন্মাদনা। তার বাবরি দোলানো গানের তালে মেতে ওঠে যুবক মন। তার কনসার্টে জেগে ওঠে ভালোবাসার উদ্দীপনা। আজ নগর বাউল খ্যাত জেমস ৫৮ বছরে পা রাখলেন। ২ অক্টোবর এই শিল্পীর জন্মদিন। ১৯৬৪ সালের এদিনে নওগাঁ জেলায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তবে, বেড়ে ওঠেন চট্টগ্রামে।



জেমসের বাবা ছিলেন একজন সরকারি কর্মকর্তা। চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। বাবার সঙ্গে গান নিয়ে অভিমান করে বাড়ি ছাড়েন জেমস। চট্টগ্রামের আজিজ বোর্ডিংয়ে থাকা শুরু করেন। সেখানে থেকেই তার সংগীত জীবনের শুরু।

১৯৮০ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয় ব্যান্ড ‘ফিলিংস’। জেমস ছিলেন সেই ব্যান্ডের প্রধান গিটারিস্ট ও ভোকালিস্ট। ১৯৮৭ সালে তার প্রথম অ্যালবাম ‘ষ্টেশন রোড’ প্রকাশিত হয়। ১৯৮৮ সালে ‘অনন্যা’ নামের অ্যালবাম প্রকাশ করে সুপারহিট হয়ে যান তিনি। এরপর ১৯৯০ সালে ‘জেল থেকে বলছি’, ১৯৯৬ সালে ‘নগর বাউল’, ১৯৯৮ সালে ‘লেইস ফিতা লেইস’ এবং ১৯৯৯ সালে ‘কালেকশন অফ ফিলিংস’ অ্যালবামগুলো ‘ফিলিংস’ থেকে বের করা হয়।

‘নগর বাউল’ ব্যান্ডের অ্যালবামগুলো হলো- ‘দুষ্টু ছেলের দল’ ও ‘বিজলি’। জেমসের একক অ্যালবামগুলো হলো- ‘অনন্যা’, ‘পালাবি কোথায়’, ‘দুঃখিনী দুঃখ করো না’, ‘ঠিক আছে বন্ধু’, ‘আমি তোমাদেরই লোক’, ‘জনতা এক্সপ্রেস’, ‘তুফান’ ও ‘কাল যমুনা’।



প্রতি বছরেই জেমসের জন্মদিনকে কেন্দ্র করে ভক্ত অনুরাগীরা বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী কাজ সহ ছিন্নমূল ও হতদরিদ্র মানুষকে খাবার দেন। এবারও হচ্ছে না তার ব্যতিক্রম।

জেমস-এর মুখপাত্র রুবাইয়াৎ ঠাকুর রবিন জানান, প্রতি বছরেই দেশের বিভিন্ন জেলার ভক্তরা জেমস ভাইয়ের জন্মদিনটি উদযাপনে নানা আয়োজন করে থাকেন। এবারও এরকম বেশকিছু উদ্যোগের কথা জেনেছি।



বিভিন্ন জেলার 'দুষ্টু ছেলের দল' নামে জেমসের ভক্তরা এবার সারা দিনব্যাপী বিভিন্ন আয়োজন রেখেছে। এরমধ্যে ঢাকা, খুলনা, যশোর, নরসিংদী, রংপুর, মেহেরপুর, কুড়িগ্রাম, ভোলা পটুয়াখালী, কিশোরগঞ্জ সহ দেশের বিভিন্ন জেলায় জেমসের দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ কামনায় মসজিদ/মাদ্রাসা সহ বিভিন্ন মিলনমেলায় দোয়ার আয়োজন রখেছে। কেক কেটে সুবিধাবঞ্চিতদের সাথে নিয়ে রেখেছে গান ও আড্ডার আয়োজন।



জেমস   জন্মদিন  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন