কালার ইনসাইড

গান নিয়ে অভিমান করে বাড়ি ছাড়া ছেলেটি আজকের জেমস

প্রকাশ: ০৪:০২ পিএম, ০২ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail

ফারুক মাহফুজ আনাম। বাংলাদেশের রক স্টার, যিনি জেমস নামেই পরিচিত। তিনি তার ভক্তদের কাছে গুরু। জেমস মানেই তারুণ্যের উন্মাদনা। তার বাবরি দোলানো গানের তালে মেতে ওঠে যুবক মন। তার কনসার্টে জেগে ওঠে ভালোবাসার উদ্দীপনা। আজ নগর বাউল খ্যাত জেমস ৫৮ বছরে পা রাখলেন। ২ অক্টোবর এই শিল্পীর জন্মদিন। ১৯৬৪ সালের এদিনে নওগাঁ জেলায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তবে, বেড়ে ওঠেন চট্টগ্রামে।



জেমসের বাবা ছিলেন একজন সরকারি কর্মকর্তা। চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। বাবার সঙ্গে গান নিয়ে অভিমান করে বাড়ি ছাড়েন জেমস। চট্টগ্রামের আজিজ বোর্ডিংয়ে থাকা শুরু করেন। সেখানে থেকেই তার সংগীত জীবনের শুরু।

১৯৮০ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয় ব্যান্ড ‘ফিলিংস’। জেমস ছিলেন সেই ব্যান্ডের প্রধান গিটারিস্ট ও ভোকালিস্ট। ১৯৮৭ সালে তার প্রথম অ্যালবাম ‘ষ্টেশন রোড’ প্রকাশিত হয়। ১৯৮৮ সালে ‘অনন্যা’ নামের অ্যালবাম প্রকাশ করে সুপারহিট হয়ে যান তিনি। এরপর ১৯৯০ সালে ‘জেল থেকে বলছি’, ১৯৯৬ সালে ‘নগর বাউল’, ১৯৯৮ সালে ‘লেইস ফিতা লেইস’ এবং ১৯৯৯ সালে ‘কালেকশন অফ ফিলিংস’ অ্যালবামগুলো ‘ফিলিংস’ থেকে বের করা হয়।

‘নগর বাউল’ ব্যান্ডের অ্যালবামগুলো হলো- ‘দুষ্টু ছেলের দল’ ও ‘বিজলি’। জেমসের একক অ্যালবামগুলো হলো- ‘অনন্যা’, ‘পালাবি কোথায়’, ‘দুঃখিনী দুঃখ করো না’, ‘ঠিক আছে বন্ধু’, ‘আমি তোমাদেরই লোক’, ‘জনতা এক্সপ্রেস’, ‘তুফান’ ও ‘কাল যমুনা’।



প্রতি বছরেই জেমসের জন্মদিনকে কেন্দ্র করে ভক্ত অনুরাগীরা বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী কাজ সহ ছিন্নমূল ও হতদরিদ্র মানুষকে খাবার দেন। এবারও হচ্ছে না তার ব্যতিক্রম।

জেমস-এর মুখপাত্র রুবাইয়াৎ ঠাকুর রবিন জানান, প্রতি বছরেই দেশের বিভিন্ন জেলার ভক্তরা জেমস ভাইয়ের জন্মদিনটি উদযাপনে নানা আয়োজন করে থাকেন। এবারও এরকম বেশকিছু উদ্যোগের কথা জেনেছি।



বিভিন্ন জেলার 'দুষ্টু ছেলের দল' নামে জেমসের ভক্তরা এবার সারা দিনব্যাপী বিভিন্ন আয়োজন রেখেছে। এরমধ্যে ঢাকা, খুলনা, যশোর, নরসিংদী, রংপুর, মেহেরপুর, কুড়িগ্রাম, ভোলা পটুয়াখালী, কিশোরগঞ্জ সহ দেশের বিভিন্ন জেলায় জেমসের দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ কামনায় মসজিদ/মাদ্রাসা সহ বিভিন্ন মিলনমেলায় দোয়ার আয়োজন রখেছে। কেক কেটে সুবিধাবঞ্চিতদের সাথে নিয়ে রেখেছে গান ও আড্ডার আয়োজন।



জেমস   জন্মদিন  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

ভক্তদের চাপে স্কুটি নিয়ে পালালেন অজয়

প্রকাশ: ০২:৩৩ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

স্কুটি চালিয়ে যাচ্ছেন অজয় দেবগন। স্কুটি যখন ধীর গতিতে চলছে তখন কেউ কেউ সেলফি তুলছেন। স্কুটির গতি কিছুটা বেড়ে যাওয়ায় তার পেছনে মোবাইল হাতে ছুটছেন অসংখ্য মানুষ। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে এমন দৃশ্য দেখা যায়। মূলত, অজয় দেবগনের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের অফিশিয়াল ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে প্রথমে এ ভিডিও পোস্ট করা হয়। যা পরবর্তীতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে।

পিংকভিলা এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, পরিচালক অজয় দেবগন নির্মাণ করছেন ‘ভোলা’ সিনেমা। বর্তমানে এ সিনেমার শুটিং নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। এ সিনেমার শুটিং সেটে অজয় ভক্তরা তাকে এভাবে তাড়া করেন।

অভিনয়ের পাশাপাশি ‘ভোলা’ সিনেমা প্রযোজনাও করছেন অজয়। সিনেমাটির কেন্দ্রীয় নারী চরিত্রে অভিনয় করছেন— টাবু, অমলা। কিছুদিন আগে এ সিনেমার টিজার মুক্তি পায়। টিজার মন কেড়েছে দর্শকদের। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী বছরের ৩০ মার্চ মুক্তি পাবে এই সিনেমা।

অজয় দেবগন অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা ‘দৃশ্যম টু’। গত ১৮ নভেম্বর মুক্তি পাওয়া এ সিনেমা ভারতজুড়ে মোট ৩ হাজার ৩০২টি স্ক্রিনে প্রদর্শিত হচ্ছে। মুক্তির পর থেকে বক্স অফিস দাপিয়ে বেড়াচ্ছে সিনেমাটি। মুক্তির প্রথম সপ্তাহে সিনেমাটি শত কোটির ক্লাব পেরিয়েছে; এখন দুই শত কোটির ক্লাবের দ্বারপ্রান্তে এ সিনেমা। দীর্ঘদিন পর এ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডের বক্স অফিসে কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে।  

অজয়  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’র দর্শকদের জন্য দুঃসংবাদ

প্রকাশ: ০১:৫৪ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

বহুল জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’। নাটকে নানা চরিত্রে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় সব অভিনেতারা। তাদের অভিনয়ের কারণে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছে ধারবাহিকটি।

জনপ্রিয়তার কারণেই একে একে তিনটি পর্ব নির্মাণ করেছেন পরিচালক কাজল আরেফিন অমি। বর্তমানে চলছে সিজন-৪। তবে ১১৭ তম পর্বের মধ্য দিয়ে শেষ হতে যাচ্ছে ধারবাহিকটির সিজন- ফোর।

গুঞ্জন উঠেছে, সিজন- ফোর দিয়েই শেষ হচ্ছে জনপ্রিয় ধারাবাহিকটি। সেই সঙ্গে দর্শক জনপ্রিয়তার কারণে সিজন-ফাইভ নির্মাণ হতে পারে বলে জানা গেছে। কিন্তু এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত মুখ খোলেননি নির্মাতা আরেফিন।

২০১৮ সালে ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ ধারাবাহিকটি শুরু হয়েছিল। নাটকটিতে অভিনয় করেছেন- চাষী আলম, জিয়াউল হক পলাশ, মারজুক রাসেল, মিশু সাব্বির, তৌসিফ, শামীম হাসান সরকার প্রমুখ।

ব্যাচেলর পয়েন্ট  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

মেয়ে ওলিজার ‘জিম্মি’তে ডিপজল

প্রকাশ: ০১:০০ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল। চলচিত্রে নায়ক হিসেবে যাত্রা শুরু করেছিলেন এই অভিনেতা। পরে ভিলেন চরিত্রে অভিনয়ের মধ্যে দিয়ে দর্শকের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। শুধু খল নায়ক নয় প্রযোজক হিসেবেও তিনি সফল। 

ডিপজলের মেয়ে ওলিজা মনোয়ার মেঘলা যুক্তরাজ্যে বিজনেস স্টাডিজ নিয়ে পড়াশোনার পাশাপাশি ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া এবং মেকআপ নিয়ে পড়াশোনা করেছেন। লন্ডনে একটি সরকারি কলেজে ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়ার উপর শিক্ষকতাও করেছেন।

দেশে ফিরে আসার পর ওলিজা মনোয়ার চলচ্চিত্র নির্মাণের পরিকল্পনা করলেও পরবর্তীতে তা নিয়ে আর সামনে এগোননি। তবে চলচ্চিত্র প্রযোজনায় নাম লেখান ডিপজলকন্যা। 

ওলিজা মনোয়ার প্রযোজিত সিনেমা ‘জিম্মি’ নির্মাণ করেছেন ডিপজল নিজেই। এরই মধ্যে সিনেমাটির নির্মাণ কাজ শেষ করে সেন্সরে জমা দেওয়া হয়েছে। দু-একদিনের মধ্যে সেন্সর বোর্ড সদস্যরা সিনেমাটি দেখবেন বলে সেন্সর বোর্ড সদস্যরা জানান। 

অ্যাকশন, সাসপেন্স ও থ্রিলার ধাঁচের এই সিনেমাটির গল্প লিখেছেন আব্দুল্লাহ জহির বাবু। এর চিত্রগ্রহণ করেছেন সবুজ। ডিপজলের পাশাপাশি এতে অভিনয় করছেন শহিদুজ্জামান সেলিম, বড়দা মিঠু, শিরিন শিলা, তারেক, মানতাসা মিম, মাসুম বাশার, মিলি বাশার, দিপু রায়হানসহ আরও অনেকে।


ডিপজল   ওলিজা  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

সিনে স্টার ফোরাম'র সাধারন সম্পাদক নায়িকা মৌসুমী

প্রকাশ: ০৬:০৫ পিএম, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

চলচ্চিত্রের তারকা শিল্পী-কুশলীদের নিয়ে  সংগঠন 'বাংলাদেশ সিনে স্টার ফোরাম'। শনিবার (৩ ডিসেম্বর) সকাল দশটায় এফডিসির জহির রায়হান প্রজেকশন হলে সংগঠনটির ৫ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। ফোরামের সভাপতি বিশিষ্ট চলচ্চিত্রকার শফি বিক্রমপুরী এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক চলচ্চিত্র পরিচালক কাজী হায়াৎ। 

অনুষ্ঠানে নতুন করে সাধারন সম্পাদক হিসেবে চিত্রনায়িকা মৌসুমীর নাম ঘোষণা করেন সংঘঠনটির সাবেক সাধারন সম্পাদক ইলিয়াস কাঞ্চন। ফোরামের ৫ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এফডিসির জহির রায়হান প্রজেকশন হলে সকাল দশটায় এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করে সংগঠনের সভাপতি বিশিষ্ট চলচ্চিত্র ব্যাক্তিত্ব শফি বিক্রমপুরী। অনুষ্ঠান পরিচালনা করবেন সিনেস্টার ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী হায়াৎ। এসময় উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি,সাধারন সম্পাদক,পরিচালক সমিতির সাধারন সম্পাদকসহ চলচ্চিত্র অঙ্গনের ব্যক্তিবর্গ। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে সিনেস্টার ফোরাম একটি স্মরণিকা প্রকাশ করেছে। এতে সংগঠনের সার্বিক কর্যক্রমসহ নানা বিষয় তুলে ধরা হয়েছে। এ ছাড়া তাদের কার্যক্রমের একটি ফটো অ্যালবামও এ স্মরণিকায় রয়েছে।

ফোরামের সভাপতি বিশিষ্ট চলচ্চিকার শফি বিক্রমপুরী জানান, গত ২০১৬ সালের ২৩শে জানুয়ারি মরহুম নায়করাজ রাজ্জাকের ৭৫তম জন্মদিনের অনুষ্ঠানে চলচ্চিত্রের অতীত ও বর্তমান বিষয় নিয়ে আলোচনার একপর্যায়ে চলচ্চিত্রকার শফি বিক্রমপুরী একটি সংগঠন করার প্রস্তাব করেন । তার প্রস্তাবের ফলেই গঠিত হয়েছে 'সিনে স্টার ফোরাম'। শফি বিক্রমপুরী আরো জানান, ১৯৫৬ সাল থেকে ১৯৮০ সাল পর্যন্ত চলচ্চিত্রের প্রথম ২৫ বছরে যে সকল পরিচালক, প্রযোজক, সংগীত পরিচালকসহ নানান শাখায় শিল্পী-কলাকুশলীরা বেঁচে আছেন তাদের নিয়েই এই সংগঠন করার উদ্দেশ্য ছিল। এরই মধ্যে আমরা নায়করাজ রাজ্জাক, গায়ক আবদুল জব্বার, গায়িকা শাম্মী আখতার, অভিনেতা সিরাজ হায়দারসহ অনেককে হারিয়ে ফেলেছি। 

নতুন সাধারন সম্পাদক দায়ীত্বপ্রাপ্ত চিত্রনায়িকা মৌসুমী বলেন, এই ফোরামের কার্যক্রম অনেক আগে থেকেই দেখেছি। আমার অনেক ভালো লেগেছে। আমি এবার এই ফোরামের সদস্য পদ পেয়েছি ,ওমর সানীও এবার সদস্য হয়েছে এই ফোরামে। আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ এই বরেণ্য মানুষদের সাথে থাকতে পেরে। প্রথমেই একটা কথা বলতে চাই এই ফোরাম থেকে অনুপ্রাণিত হওয়া বা না হওয়া খুব বেশি জরুরী তানা। কিন্তু এই ফোরামের সাথে যুক্ত হওয়াটা খুব বেশি জরুরী সেটা আমার কাছে মনে হয়েছে। প্রত্যেকটা স্বপ্ন একটা মানুষ দেখে যখন সাথে সাথে সফল হয়ে যায় না। এই ফোরামের যা স্বপ্ন রয়েছে আমরা সবাই যখন যুক্ত হব কেউ না কেউ সফলতা একদিন আনবেই ইনশআল্লাহ । এটা আমার বিশ্বাস। আমরাতো শিল্পী মানুষ আমরা জানি স্বপ্ন গুলো সবসময় সুপ্ত থাকে না কখনো কখনো জেগে উঠে সেটা সফল হয়েই ছাড়ে। এই ফোরামের আর একটা সুন্দর বিষয় হচ্ছে এখানে শুধু সিনিয়রদের আড্ডাবাজীর একটা জায়গা শুধু তা না, এখানে সুন্দর বাণিজ্যের একটা ব্যাপার রয়েছে। আমি শুনছিলাম আমার খুব ভালো লেগেছে। এখানে সফল ব্যবসায়ীরা আছেন, তারা সফলতার সাক্ষর রেখেছেন স্ব স্ব জায়গা থেকে । সেসব মানুষদের সান্নিধ্যে আসতে পেরে খুব ভালো লেগেছে। আমরা যারা চলচ্চিত্র শিল্পী কলাকুশলীরা আছি আমরা আমাদের কাজের মধ্য দিয়েই এই ফোরামের সাথে থেকে এই মানুষগুলোর পাশে থেকে তাদের সাহায্য সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে যেতে পারব এটাই অনেক বড় ব্যাপার।আমাদের শিল্পী সমিতি এটা শুধুই চ্যারিটি এখানে আমাদের বিশেষ কিছু করার নেই। বিশেষ কিছু করতে গেলেও পা ধরে টেনে নিয়ে যাবে এটাই স্বাভাবিক। আমার ছোট বোন নিপুন কাজ করছে বর্তমানে সে ভালো বলতে পারবে। এখানে কাজ করতে কতটা দখল নিতে হচ্ছে এবং কতটা কঠিন।  তারপরও আমাদের করতে হবে। কারন আমরা শিল্পী। এখান থেকেই আমাদের শুরু । এখানে যারা কাজ করছেন তাদের সকলের ভালোবাসা নিয়েই আজকে আমরা এখানে এসেছি। চলচ্চিত্র থেকে অনেক কিছু পেয়েছি। তাই এখানে কিছু করা আমাদের দায়ীত্ব। যেমন ছোট বেলায় বাবা মা আমাদের লালন পালন করতেন এখন আমরা বাবা মাদের লালন পালন করব এটাই হওয়া উচিত। চলচ্চিত্রে যাদের হাত ধরে আমরা এসেছি প্রত্যেকটা মানুষদের এখানে দেখতে পাচ্ছি। আমার খুব ভালো লাগছে। 

অনুষ্ঠানে সংগঠনের সভাপতি শফী বিক্রমপুরী, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক কাজী হায়াৎ,সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস কাঞ্চন, চিত্রনায়িকা মৌসুমী ছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন দেলোয়ার ঝাহান ঝন্টু,নাদের খান, খুরশিদ আলম,অনুপম হায়াৎ, সুচন্দা,অঞ্জনা, রিনা খান, ডিপজল, ওমর সানী, বাপ্পা রাজ, শাহিন সুমন, আনোয়ার সিরাজী,নিপুন, সায়মন সাদিক সহ চলচ্চিত্র অঙ্গনের ব্যাক্তিবর্গ।
]

নায়িকা   মৌসুমী   সিনে স্টার ফোরাম  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

প্রয়াত হলেও ফের টিভি পর্দায় নিয়মিত দেখা যাবে ঐন্দ্রিলাকে

প্রকাশ: ০৫:২৩ পিএম, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

পশ্চিমবঙ্গের টেলিভিশন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা আজ ১৩ দিন হলো পাড়ি দিয়েছেন না ফেরার দেশে। মাত্র ২৪ বছর বয়সি এই অভিনেত্রীর মৃত্যুর শোক আজও ভুলতে পারছে না ভক্তরা। 

ঐন্দ্রিলা দ্বিতীয়বার ক্যানসার জয় করার পর তাকে আবারও ছোটপর্দায় দেখতে মুখিয়ে ছিল তার ভক্তরা। একটু একটু করে কাজের জগতে ফিরছিলেন অভিনেত্রী। ‘ভাগাড়’ ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেন, কালার্স বাংলার মহালয়া-তে হাজির হোন তিনি। এইসবের মাঝে হঠাৎ পাল্টে গেল সবকিছু। গত ১ নভেম্বর ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার বিশ দিন পর প্রয়াত হলেন ঐন্দ্রিলা।

কিন্তু কথায় আছে শিল্পীর মৃত্যু হয় না। নিজেদের কাজের মধ্যে দিয়েই বেঁচে থাকেন। মাত্র কয়েক বছরের অভিনয় জীবনে বাংলা টেলিভিশনে কিছু না-ভোলবার মতো কাজ উপহার দিয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা।

হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ঐন্দ্রিলাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে সান বাংলায় আবারও সম্প্রচারিত হতে যাচ্ছে ‘জিয়ন কাঠি’। এই সিরিয়ালে জাহ্নবীর চরিত্রে দেখা গিয়েছিল ঐন্দ্রিলাকে। দ্বিতীয়বার ক্যানসার আক্রান্ত হওয়ার পর নিজের অসুস্থতা সত্ত্বেও এই ধারাবাহিকের শুটিং করেছিলেন তিনি। তার অভিনীত শেষ সিরিয়াল এটি। 

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) সান বাংলা কর্তৃপক্ষ সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে ‘জিয়ন কাঠি’র কিছু অবিস্মরণীয় মুহূর্তের কোলাজ তুলে ধরে জানানো হয়, “ঐন্দ্রিলা আমাদের মধ্যেই আছে, আমাদের মন-প্রাণ জুড়ে, জাহ্নবীর রূপে। চলুন আরেকবার দেখি জাহ্নবীর গল্প ‘জিয়নকাঠি’, ৫ ডিসেম্বর সোমবার থেকে বিকেল ৫.৩০টায়।”

অর্থাৎ আগামী সোমবার থেকেই সান বাংলার পর্দায় আবারো দেখা যাবে ‘জিয়ন কাঠি’। চ্যানেলের এই সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন ঐন্দ্রিলার ভক্তরা। ‘জিয়ন কাঠি’র পরশেই টেলিভিশনের পর্দায় ফের ‘জীবন্ত’ হবেন প্রয়াত অভিনেত্রী।

দুইবার ক্যানসার জয় করা ঐন্দ্রিলা গত ১ নভেম্বর হঠাৎ ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হোন। এরপর কোমায় চলে যান অভিনেত্রী। গত ২০ নভেম্বর দুপুরে মাত্র ২৪ বছর বয়সে মৃত্যু হয় ঐন্দ্রিলা শর্মার।

অভিনেত্রী   ঐন্দ্রিলা শর্মা  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন