কালার ইনসাইড

অন্তরঙ্গ দৃশ্যের ক্লিপ ফাঁস হওয়া নিয়ে যা বলেলন স্বস্তিকা

প্রকাশ: ০৪:৪৭ পিএম, ২৯ নভেম্বর, ২০২২


Thumbnail

ভারতীয় বাংলা সিনেমার আলোচিত অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখার্জি। তার আরেক পরিচয় তিনি অভিনেতা সন্তু মুখার্জির কন্যা। বাবার কারণে লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশন শুনেই বেড়ে উঠেছেন তিনি। মাত্র ২১ বছর বয়সে অভিনয়ে তার অভিষেক ঘটে। তারপর অসংখ্য সিনেমা উপহার দিয়েছেন এই নায়িকা।

২০১৪ সালে মুক্তি পায় স্বস্তিকা মুখার্জি অভিনীত ‘টেক ওয়ান’ সিনেমা। সিনেমাটিতে একটি অন্তরঙ্গ দৃশ্য ছিল। এ দৃশ্যের শুটিংয়ের ক্লিপ নেটদুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছিল। মানুষ ধরে নিয়েছিল, এটি স্বস্তিকার বাস্তব জীবনের ভিডিও ক্লিপ। এ নিয়ে দারুণ সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন স্বস্তিকা। পরিবার থেকে পাড়াপড়শিরাও তাকে কটূ কথা শুনিয়েছে।



পুরোনো সেই অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ভিডিও ক্লিপ নিয়ে মুখ খুলেছেন স্বস্তিকা। এ অভিনেত্রী ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে বলেন, আমার মনে আছে ‘টেক ওয়ান’ নামে একটা সিনেমায় অভিনয় করছিলাম। একজন নায়িকার জীবন নিয়ে ছিল সেই সিনেমার গল্প। যার একটি অন্তরঙ্গ দৃশ্যের ক্লিপ ফাঁস হয়ে যায় এবং সেটি এমএমএস স্ক্যান্ডাল হিসেবে ছড়িয়ে পড়ে। একজন নায়িকার জীবন তার ক্যারিয়ার সবকিছু নিয়ে তৈরি হচ্ছিল এই সিনেমা। তাই চরিত্রের প্রয়োজনে আমাকে মদ্যপ হতে হয়েছিল। কিন্তু পর্দার এই চরিত্রকে সকলেই সত্য হিসেবে ধরে নিয়েছিলেন।



আত্মীয়-স্বজন ও পাড়াপড়শিদের নিন্দার কারণে দারুণ চাপে পড়েছিল স্বস্তিকার বাবা-মা। তা জানিয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, বেশিরভাগ মানুষ আমার বাবা-মাকে ফোন করে বলতো যে, স্বস্তিকা এসব কি করছে! এ ধরনের ঘটনা কেউ ঘটায়? কেউ কেউ বলেছিল, পরিবারে যত্ন হচ্ছে না বলেই স্বস্তিকা এসব কাজ করতে পারছে। এক পর্যায়ে মা বিরক্ত হয়ে যান। রেগে গিয়ে বলেছিলেন, ‘ইউ’ সার্টিফিকেট যুক্ত সিনেমা করতে পারবে না। বাচ্চাদের জন্য সিনেমা করবে। মাতাল চরিত্রে অভিনয় করবে কেন?
 
১৯৯৮ সালে বিখ্যাত রবীন্দ্র সংগীতশিল্পী সাগর সেনের ছেলে প্রমিত সেনকে বিয়ে করেন স্বস্তিকা। ২০০০ সালে চলচ্চিত্রে নাম লেখান তিনি। আর এরই মাঝে এক কন্যার মা হন স্বস্তিকা। মা হওয়ার পর চলচ্চিত্রে নায়িকা হিসেবে প্রতিষ্ঠা পাওয়া কঠিন! এজন্য মা হওয়ার খবরও অনেকে গোপন রাখতে বলেছিলেন স্বস্তিকাকে। এ বিষয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, আমি যখন কাজ শুরু করলাম, তখন সবাই বলেছিলেন আমার মা হওয়ার কথা যেন কেউ জানতে না পারে। তাহলেই বিপদ। কারণ কেউ আর নায়িকা হিসেবে আমাকে পছন্দ করবে না, আমার চাহিদাও থাকবে না।

২০০৪ সালে প্রমিত সেনের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে স্বস্তিকার। তারপর কন্যাকে সিঙ্গেল মাদার হিসেবে বড় করে তুলছেন তিনি। বিয়েবিচ্ছেদের পর অনেকের সঙ্গে স্বস্তিকার প্রেমের গুঞ্জন চাউর হয়েছে, তবে আর দ্বিতীয় বিয়ে করেননি এই নায়িকা।

অন্তরঙ্গ দৃশ্য   স্বস্তিকা  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

ছেলেকে সোনার চামচে খাওয়াতে পরীর আয়োজন

প্রকাশ: ০৭:২১ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

বর্তমান সময়ের ঢাকাই চলচ্চিত্রের অন্যতম আলোচিত নায়িকা পরীমনি। প্রেম করে গেল বছর নায়ক অভিনেতা শরীফুল রাজকে বিয়ে করেন তিনি। বিয়ের পরে এই তারকা দম্পতির কোলজুড়ে এসেছে ফুটফুটে পুত্রসন্তান। রাজ-পরীর রাজ্যের সবকিছু এখন শাহীম মুহাম্মদ রাজ্যকে ঘিরে। গত বছরের ১১ আগস্ট রাজ-পরীর কোল আলো করে জন্ম নেয় রাজ্য। সে হিসেবে আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি ছয় মাস পূর্ণ হবে রাজ্যের। 

বিশেষ এই দিনটিতে ঘিরে আয়োজনে কমতি রাখছেন না রাজ-পরী। ছয়মাস পরে শিশুদের মুখে বাড়তি খাবার দেয়া হয়। ছেলের মুখেভাত অনুষ্ঠানের আয়োজন নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন এই তারকা দম্পতি। ছেলের মুখে সোনার চামচ দেবেন পরীমনি। তাই রাজ্যের জন্য তার বাবা এরই মধ্যে কিনেছেন সোনার চামচ ও বাটি।

বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) পরিমনি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে স্বর্ণের চামচ ও বাটির ছবি পোস্ট করেন। এর ক্যাপশনে লিখেন, বাজানের মুখে ভাতের আয়োজন। রাজ মিথ নিয়ে ফানটা খুব আরাম করেই করে। এসব ছেলের বাবার কাণ্ড। সুন্দর না?  এসবে কেউ আদিখ্যেতা মনে করলে আমার কিন্তু ভালোই লাগবে।

পরীমনি   রাজ   সন্তান  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

ভয়ঙ্কর পুতুল ‘মেগান’ আসছে বাংলাদেশে!

প্রকাশ: ০৭:০৯ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

ভূতের ছবির ভক্তদের নড়েচড়ে বসার সময় চলে এসেছে। নতুন বছরের শুরুতেই যুক্তরাষ্ট্রের সিনেমা হলগুলোতে রীতিমত তান্ডব চালাচ্ছে পুতুলের মতো দেখতে এক ভয়ঙ্কর ভূত। এবার সেই ভূত আসছে বাংলাদেশে! গত ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পায় বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীনির্ভর ভৌতিক ছবি ‘মেগান’। মুক্তির পর থেকে ছবিটি দেখার জন্য দর্শকদের বিপুল সমাগম ঘটে সিনেমা হলগুলোতে। 

১২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বাজেটের ছবি এরইমধ্যে আয় করেছে ১০৪ মিলিয়ন ডলার। প্রশংসা পেয়েছে সমালোচকদের কাছ থেকেও। যার ফলে বিশ্বজুড়ে ছবিটি নিয়ে দর্শকদের আগ্রহ বেড়ে চলেছে ক্রমাগত। শিগগিরই বাংলাদেশের দর্শকরা ছবিটি দেখার সুযোগ পাবেন। ৩ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের স্টার সিনেপ্লেক্সে মুক্তি পাবে ‘মেগান’। 

ভৌতিক ছবি যারা নিয়মিত দেখেন তাদের ‘অ্যানাবেল’ ছবির কথা মনে আছে নিশ্চয়ই। ছবিতে দেখা গেছে, আদরের মেয়েটির আকস্মিক মৃত্যুর ২০ বছর পরে এক পুতুল-নির্মাতা ও তার স্ত্রী তাদের বাড়িতে এক সন্ন্যাসিনী ও কিছু অনাথ বা”চাকে জায়গা দেন। তারপরে শুরু হয় ভয়ঙ্কর সব কান্ড। ঘটনার কেন্দ্রে রয়েছে অ্যানাবেল নামের পুতুলটি। কি সাংঘাতিক সব দৃশ্য! যারা দেখেছেন তারা জানেন। অ্যানাবেল এমনই আতঙ্ক তৈরি করেছে যে, এ ছবি দেখার পর নিজেদের বাড়ি থেকে অনেকেই ছোটদের খেলার সঙ্গী পুতুলকে বাড়ি থেকে ছুঁড়ে ফেলেছিলেন বলে জানা গেছে। শুধু ছোটরা নয় বাড়ির বড় সদস্যরাও ভয় পেতে শুরু করেন এমন খবরও এসেছে। ভয়ঙ্কর ভূতের ছবি দেখে অবস্থা এমনই হয়। অথচ গবেষণা বলছে ভিন্ন কথা। হরর ছবি ভয় তৈরি করে না, বরং ভয় প্রশমিত করে। সম্প্রতি প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা যায়, স্বে”ছায় হরর বিনোদন বেছে নিলে ভীতিকর পরিস্থিতি থেকে পালানোর প্রবণতা কমে। নিরাপদ পরিবেশে কৃত্রিম ভয়ম তৈরির মাধ্যমে হরর ফিকশন দর্শকদের আবেগ ও মানসিক স্থিতি নিয়ন্ত্রণ চর্চার সুযোগ করে দেয়। ফলস্বরূপ মানসিক স্থিতিশীলতা বাড়তে দেখা যায়। 

‘মেগান’-এর গল্পে দেখা যাবে, একটি খেলনা প্রস্তুতকারক কম্পানির দক্ষ রোবট বিশেষজ্ঞ জেমা (অ্যালিসন উইলিয়ামস) মেগান নামে একটি মানুষের আকারের একটি রোবট পুতুল ডিজাইন করে; এই রোবট পুতুলটি এআই (আর্টিফিশাল ইন্টেলিজেন্স) দ্বারা নিয়ন্ত্রিত, তার মানে মেগান মানুষের মত অনেক ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নিয়ে কাজ করতে পারে। মেগানকে এমন করে ডিজাইন করা হয়েছে যাতে সেটি শিশুদের সার্বক্ষণিক সঙ্গী আর অভিভাবকদের সহায়ক হতে পারে। জেমার বোন ও তার স্বামী সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হলে তাদের একমাত্র কন্যা কেডি (ভায়োলেট ম্যাকগ্রো) জেমার কাছে আশ্রয় পায়। জেমা কেডির অভিভাবক হলেও সব দায়িত্ব দেয়া হয় মেগানকে। মেগানকে নির্দেশ দেয়া হয় সে যাতে কেডির কোনও ক্ষতি না হয় তা নিশ্চিত করে। আর এই দায়িত্বটি মেগান বাড়াবাড়ি ভাবে পালন করতে শুরু করে। সহিংস হয়ে ওঠে মেগান আর একসময় সে গেমার নির্দেশ মানতেও অস্বীকৃতি জানায়। একের পর এক ভয়ংকর ঘটনা ঘটতে থাকে। 

ভূত   ছবি  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

আমাদের আহত করা হয়ত যাবে, কিন্তু ভেঙে ফেলা যাবে না: ফারুকী

প্রকাশ: ০৬:২৮ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

আপিল বোর্ডের অনুমতি পেলেও সময়মতো সেন্সর ছাড়পত্র না পাওয়ায় ‘শনিবার বিকেল’ সিনেমার মুক্তির দিন পিছিয়ে গেল। বেআইনিভাবে সিনেমাটি আটকে রাখার জবাব চেয়েছেন নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী।

বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ফেসবুক স্ট্যাটাসে ফারুকী লিখেছেন, তিন তারিখ শনিবার বিকেল মুক্তি দেওয়া গেল না। কারণ, আমরা এখনও সার্টিফিকেট হাতে পাইনি। এই অত্যন্ত খারাপ কাজটার প্রতিক্রিয়ায় আমরা অধৈর্য হতে পারতাম। কিন্তু আমরা পণ করেছি, ধৈর্য ধরার। কারণ, আমরা জানি, আমাদের লক্ষ্য কি।

তিনি যোগ করেন, আমাদেরকে দেরি করিয়ে দেওয়া হয়তো যাবে, আহত করা হয়ত যাবে, কিন্তু ভেঙে ফেলা যাবে না। কারণ, আমরা উঠে এসেছি এই জাতির দগদগে বাস্তব আর লাল-নীল স্বপ্নের অনেক গভীর থেকে।

নির্মাতার ভাষ্য, ‘তিনের জায়গায় না হয় দশ হবে, কিন্তু বাংলার দামাল ছেলেদের দাবায়ে রাখতে পারবা না! আরেকটা কথা বলা দরকার, যে বা যারা আপিল কমিটি রায় দেওয়ার পরও বেআইনিভাবে সিনেমাটি এখনও আটকে রেখেছে তাদেরকে জবাব দিতে হবে, কোন কারণে আমাদের মুক্তিতে বিলম্ব ঘটানো হচ্ছে?’

শনিবার বিকেল   ফারুকী  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

শর্ত সাপেক্ষে হিন্দি সিনেমায় আপত্তি নেই পরিচালক সমিতির

প্রকাশ: ০৪:১৩ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

শাহরুখ খানের 'পাঠান' বাংলাদেশে  আমদানি নিয়ে আলোচনা যেনো থামছেই না। শুধু পাঠান নয় হিন্দি সিনেমা আমদানি নিয়ে এরই মধ্যে শিল্পী সমিতি দশ পার্সেন্ট দাবি করে আমদানির পক্ষে মত দিয়েছেন।এবার পরিচালক সমিতি বলিউডের সিনেমা আমদানিতে শর্ত জুড়ে দিয়েছেন।এই শর্তগুলো মেনে আমদানি করে হিন্দি সিনেমা প্রদর্শনের পক্ষে মত দিয়েছেন সমিতির নেতারা।

সমিতির পক্ষ থেকে দেওয়া শর্তে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের হলে হিন্দি সিনোমার প্রদর্শনের বেলায় মাসের প্রথম দুই সপ্তাহে হলগুলোতে হিন্দি সিনেমা চালানো যাবে না। বছরের দুই ঈদে মুক্তি দেওয়া যাবে না কোনো হিন্দি সিনেমা। বছরে ৬টি বা ১০টি সিনেমা আসতে পারবে। হিন্দি সিনেমা আমদানির মেয়াদকাল হবে দুই বছর।

সম্প্রতি এফডিসির পরিচালক সমিতির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই শর্তগুলো নিয়ে একমতে আসেন নির্মাতারা। উল্লেখিত শর্ত ছাড়াও হিন্দি সিনেমা আমদানিতে আরও কিছু শর্তের কথা জানিয়েছে সমিতি।

এ বিষয়ে পরিচালক সমিতির সভাপতি কাজী হায়াৎ বলেন, শুধু পাঠান নয় আমরা হিন্দি সিনেমা মুক্তির পুরো প্রক্রিয়া নিয়ে বৈঠক করেছি। আগের কিছু শর্তের সঙ্গে বর্তমান কিছু শর্ত যোগ করে হিন্দি সিনেমা বাংলাদেশে মুক্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত দিয়েছি আমরা। মিটিংয়ের সিদ্ধান্তগুলো শিগগিরই তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় বরাবর পাঠানো হবে। তার আগে চলচ্চিত্র-সংশ্লিষ্ট ১৮ সংগঠনেরও মতামত নেওয়া হবে।'

শারুখ খানের 'পাঠান' সিনেমা মুক্তি নিয়ে এরই মধ্যে চলচ্চিত্রাঙ্গনে নির্মাতা ও শিল্পীরা পক্ষে-বিপক্ষে মত দেন।

আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্ট সিনেমাটি আমদানি করতে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় বরাবর আবেদন করে। বিষয়টি নিয়ে মন্ত্রণালয়ে আমদানি-রপ্তানিসংক্রান্ত কমিটি সভাও করেছে। কিন্তু পাঠান মুক্তির বিষয়ে কোনো সুরাহা হয়নি।



মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

মা হারালেন নিথর মাহবুব

প্রকাশ: ০১:২৩ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

মা হারালেন নিথর মাহবুব মা হারালেন অভিনেতা ও বিনোদন সাংবাদিক নিথর মাহবুব (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৫.২০ মিনিটে তার মা মাস্তুরী খাতুন ৭৬ বছর বয়সে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে না ফেরার দেশে চলে গেছেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নিথর মাহবুব নিজেই।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যায় ভুগছিলেন এই অভিনেতার মা। এছাড়াও মেরুদণ্ডের হাড়ে সমস্যা থাকার কারণে তিনি দীর্ঘ ১৮ বছর যাবত চিকিৎসাধীন ছিলেন। বেশ কয়েক মাস ধরে হাটতে পারছিলেন না তার মা। বাসায় রেখেই তার চিকিৎসা চলছিল। তবে নিয়মিত ডাক্তার দেখাতে হাসপাতালে যেতে হতো।

নিথর মাহবুব জানান, আজ বাদ জোহর নামাজে জানাজা শেষে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের কলাগাছিয়া গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে তার মাকে দাফন করা হবে।

বাবার পর মাকে হারিয়ে ভেঙে পড়েছেন নিথর মাহবুব।  তিনি বলেন, বাবা ছেড়ে যাওয়ার পর একমাত্র মা-ই ছিলেন আমাদের সবটা জুড়ে। এবার তিনিও আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন। ঢাকায় বড় ভাইয়ের বাসায় ছিলেন তিনি। ভোরে আমাদের ছেড়ে মা চিরতরে চলে গেছেন। আমার মায়ের জন্য সবাই দোয়া করবেন আল্লাহ যেন তাকে বেহেশত নসিব করেন।

মাস্তুরী খাতুন তার তিন পুত্রসন্তান ও এক মেয়েসহ আরও অনেক আত্মীয়স্বজন রেখে গেছেন। এর আগে ২০১৯ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর ৮৮ বছর বয়সে নিথর মাহবুবের বাবা কদরুজ্জামান মোল্লা না ফেরার দেশে চলে যান।

বর্তমানে নিয়মিত অভিনয় করছেন নিথর মাহবুব। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ব্যাতিক্রম চরিত্রগুলোতে অভিনয় করতে দেখা যায় তাকে। ছোটদের টিভি চ্যানেল দুরন্ত-এর ‘টিরিগিরি টক্কা’ নাটকে বজলু চোর এবং ‘দুরন্ত সময়’ অনুষ্ঠানে ‘মূকাকু চরিত্রে অভিনয় করে জয় করেছেন শিশু-কিশোরদের মন।



মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন