ঢাকা, বুধবার, ২০ জানুয়ারি ২০২১, ৭ মাঘ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ভাণ্ডারীকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে ফটিকছড়িতে এমপি নদভী

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫ ডিসেম্বর ২০২০ শনিবার, ১১:৪১ এএম
ভাণ্ডারীকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে ফটিকছড়িতে এমপি নদভী

সংসদ সদস্য সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারীকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েই চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে পা রাখলেন সাতকানিয়ার আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভী। 

গতকাল শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে তিনি ফটিকছড়ির নানুপুর জামেয়া ইসলামিয়া ওবাইদিয়া মাদ্রাসার দুই দিনব্যাপী বার্ষিক মাহফিলে যোগ দেন। তবে মঞ্চে কোনো বক্তব্য রাখেননি তিনি। এই মাহফিলে যোগ দেন হেফাজত ইসলামের আমীর আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীও।

এর আগে নাজিরহাট বড় মাদ্রাসায় মুহতামিম নিয়োগের বিষয় নিয়ে উত্তেজনার মধ্যে হেফাজতের সাবেক মহাসচিব ও বর্তমান আমির মাওলানা জুনায়েদ বাবুনগরীর সরাসরি পক্ষ নেন ভান্ডারী। ওই মাদ্রাসার এক সভায় জুনায়েদ বাবুনগরীকে হেফজতে ইসলামের আমির করার প্রস্তাব দেন ভান্ডারী। একই সঙ্গে তিনি নাজিরহাট বড় মাদ্রাসা ও হেফাজত ইস্যুতে মাথা না ঘামানোর জন্য নদভীকে পরামর্শ দিয়ে হুঁশিয়ারি দেন, ফটিকছড়িতে নদভীকে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

এরপর পাল্টা এক ভিডিওবার্তায় বিদ্রুপের সুরে ভাণ্ডারীকেই হেফাজতের আমির হয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দেন নদভী। এসব ইস্যুতে ভাণ্ডারী ও নদভীর মধ্যে চাপা গ্রুপিং প্রকাশ্যে রূপ নেয়। ফটিকছড়িতে নদভীকে ঢুকতে দেওয়া হবে না এমন হুঁশিয়ারির পরও শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে ফটিকছড়িতে যান নদভী। তবে মঞ্চে তিনি উঠেননি, বক্তব্যও রাখেননি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভী বলেন, ‘আমাকে কেউ বাধা দিয়ে রাখতে পারবে না। প্রতিহতও নয়। কারণ আমি ইসলামের খেদমত করার জন্য ফটিকছড়িতে এসেছি। আমার পরিচালিত ফাউন্ডেশন থেকে ফটিকছড়িতে টিউবওয়েল স্থাপন ও মসজিদ-মাদ্রাসায় দান করা হয়। আমি ফটিকছড়ির সব মাদ্রাসায় যাবো। আমাকে কেউ বাধা দেওয়া মানে ইসলামকে বাধা দেওয়া, ধর্মীয় কাজে বাধা দেওয়া।’