ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

এখনও জ্বলছে সুন্দরবনের আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪ মে ২০২১ মঙ্গলবার, ০১:২২ পিএম
এখনও জ্বলছে সুন্দরবনের আগুন

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের ২৪ নম্বর কম্পার্টমেন্টের আগুন ২৪ ঘণ্টা পার হলেও এখনো পুরোপুরি নেভেনি। তিন মাসের মধ্যে সুন্দরবনে ফের লাগা এই আগুন বিচ্ছিন্নভাবে বনের শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানী টহল ফাঁড়ির দুই একর এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে বলে জানা গেছে।

গতকাল সোমবার বেলা ১১টার দিকে দাসের ভারানী টহল ফাঁড়ির অন্তর্গত বনে ধোঁয়ার কুণ্ডলী দেখতে পেয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে বন বিভাগ ও স্থানীয় কয়েক শ মানুষ। তাঁরা ফায়ার লাইন (আগুন লাগা অংশের সঙ্গে অন্য অংশের মাটি কেটে আলাদা করে ছোট নালা তৈরি) কাটার কাজ শুরু করেন। দুপুরের পরপর যোগ দেয় ফায়ার সার্ভিস। তবে এলাকাটি দুর্গম হওয়াতে সন্ধ্যার আগ পর্যন্ত সেখানে পানি পৌঁছাতে পারেননি তাঁরা।

মঙ্গলবার (৪ মে) সকাল থেকে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট, বন বিভাগের আশপাশের ৭টি ফাঁড়ি, স্টেশনের কর্মীসহ সিপিজি (বন সুরক্ষা কমিটি) ও স্থানীয় লোকজন আগুন নেভাতে কাজ শুরু করেন। সকাল সোয়া ১০টা থেকে ফায়ার সার্ভিস তাদের ব্যবহৃত প্রায় ৫০টি পাইপ যুক্ত করে প্রায় ৩ মাইল দূরে মরা ভোলা নদী থেকে পাম্প করে পানি ছেটানো শুরু করেছে।

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের সহকারী উপপরিচালক গোলাম সরোয়ার জানান, সুন্দরবনের দাসের ভারানী এলাকায় যে গহীন বনে আগুন লেগেছে তার কাছাকাছি পানির কোনো উৎস না থাকায় ৪-৫ কিলোমিটার দূরে পাইপ খাটিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চলছে। ঘটনাস্থলের আশপাশে বেশ কিছু এলাকায় আগুন ও ধোয়ার কুন্ডলি রয়েছে।

আগুনের ব্যাপ্তি যাতে আর না বাড়ে সে বিষয়টি মাথায় রেখেই ফায়ার সার্ভিস ও বনকর্মীরা একযোগে কাজ করছে। গহীন বনে ও মাটির স্তরে লতা জাতীয় গুল্ম উদ্ভিদে লাগা আগুন নেভাতে তাদের বেগ পেতে হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

অপরদিকে সোমবার রাতে বৃষ্টি হওয়ায় বনে লাগা আগুন কিছুটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

সোমবার দুপুরে সুন্দরবনের দাসের ভারানী এলাকার গহীন বনে আগুন লাগে। তবে বনের গহীনে কীভাবে আগুন লেগেছে তার কারণ জানতে বনবিভাগ তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করেছে।

সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের বিভাগীয় কমর্কতা মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন সোমবার রাতে আগুন লাগার ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেন।

সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক জয়নাল আবেদীনকে প্রধান করে এই কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন- শরণখোলা স্টেশন কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান ও দাধসাগর স্টেশন কর্মকর্তা মো. ফরিদুল ইসলাম। আগামী ৭ কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত কমিটিকে তাদের রির্পোট জমা দিতে বলা হয়েছে।