ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কঠোর লকডাউনের প্রভাব পড়েনি খুলনায়, বাজার কেন্দ্রিক মানুষের ভিড়

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৩ জুলাই ২০২১ শুক্রবার, ১১:০০ এএম
কঠোর লকডাউনের প্রভাব পড়েনি খুলনায়, বাজার কেন্দ্রিক মানুষের ভিড়

করোনাভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে আজ শুক্রবার ভোর ৬টা থেকে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন শুরু হয়েছে। কিন্তু এই কঠোর লকডাউনের তেমন কোনাে প্রভাব লক্ষ্য করা যায় নি খুলনাতে। শুক্রবার (২৩ জুলাই) বৃষ্টি ভেজা সকালে সড়কে ব্যক্তিগত গাড়ি, ইজিবাইক, রিকশাভ্যান চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে। মানুষকেও যত্রতত্রভাবে ঘোরাফেরা করতে দেখা গেছে। ভোরে ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থান থেকে দূরপাল্লার যানবাহন সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে ঢুকেছে। তবে এখনও দূরপাল্লার বাস খুলনা থেকে ছেড়ে যায়নি। 

এদিকে খুলনায় বাজার কেন্দ্রিক ভিড় বেড়েছে। সকাল সাড়ে ৭টার দিকে নগরীর গল্লামারীতে কাঁচা বাজার, মাছ বাজার ও মাংসের দোকানে ক্রেতার ভিড় দেখা গেছে। বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতার মুখে মাস্ক পরিধান বা স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো বাস্তবতা দেখা যায়নি। সড়কে পুলিশে চেকপাস্ট বা টহল দেখা যায় নি খুলনাদে। 

করোনা সংক্রমণ উর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণে খুলনায় গত ২২ জুন থেকে লকডাউন শুরু হয়। এর আগে আরও দুই সপ্তাহের স্বাস্থ্যবিধি দেওয়া হয়। তবে গত ১৩ জুলাই মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপনে ১৪ জুলাই মধ্যরাত থেকে ২৩ জুলাই সকাল ৬টা পর্যন্ত বিধি নিষেধ শিথিল করা হয়। একই প্রজ্ঞাপনে ২৩ জুলাই ভোর ৬টা থেকে ৫ আগস্ট রাত ১২টা পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ দেওয়া হয়। এই বিধিনিষেধে সরকারি-বেসরকারি অফিস, গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী-বিজিবি-পুলিশ-র‌্যাবসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

এদিকে গত ১০ দিনে খুলনার হাসপাতালগুলোতে করোনায় ১৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনায় জেলায় এ পর্যন্ত এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৫৪৪ জনের। মোট করোনা শনাক্ত হয়েছেন ২১ হাজার ৯৫৬ জন। এক প্রকার করোনা হটস্পটে পরিণত হয়েছে খুলনা। জেলা সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য অনুসারে, বর্তমানে নমুনা পরীক্ষার ভিত্তিতে খুলনা জেলায় সংক্রমণের হার ২২-২৭ শতাংশ। 

সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ বলেন, ঈদে ঘরমুখি মানুষের নিয়ন্ত্রণহীন যাতায়াত ও মার্কেট-পশুরহাট ঘিরে কোভিডের সংক্রমণ আবারও বেড়ে যেতে পারে। এজন্য লকডাউন ও স্বাস্থ্যবিধি মানতে কড়াকড়ি হওয়া প্রয়োজন। এদিকে জেলা করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ ও ব্যবস্থাপনা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিধিনিষেধে খুলনা জেলা ও মহানগরীতে ২৩ জুলাই ভোর ছয়টা থেকে ৫ আগস্ট রাত ১২টা পর্যন্ত দোকানপাট, মার্কেট, শপিংমল ও কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে। তিনি সবাইকে এই বিধিনিষেধ মেনে চলার আহবান জানান।