ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৪ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কক্সবাজারের স্থানীয়দের জীবনমান উন্নয়নে জাইকার পার্টনারশিপ প্রোগ্রাম

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ অক্টোবর ২০২১ বুধবার, ০৪:৩৭ পিএম
কক্সবাজারের স্থানীয়দের জীবনমান উন্নয়নে জাইকার পার্টনারশিপ প্রোগ্রাম

জাপান ইন্টারন্যাশনাল কোঅপারেশন এজেন্সি জাইকার অংশীদারিত্বে জাপানি প্রযুক্তিতে কক্সবাজারে মিয়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত মানুষের আগমনের কারণে সঙ্কটে থাকা স্থানীয়দের সহনশীলতা বাড়িয়ে জীবনমান উন্নত করতে প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। “লাইভলিহুড ইম্প্রুভমেন্ট ফর এনহান্স রেসিলিয়েন্স ইন হোস্ট কমিউনিটিজ ইন কক্সবাজার (লাইফ)” এ প্রকল্পটি জাইকার অংশীদারিত্বে বাস্তবায়ন করা হবে। 

জাইকা বাংলাদেশের সিনিয়র রিপ্রেজেনটেটিভ তাকেশি শাহেকি, আইসি নেট লিমিটেডের প্রেসিডেন্ট কেনজি মমতা এবং সেন্টার ফর নেচারাল রিসোর্স স্টাডিজ’র (সিএনআরএস) এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ড. মোখলেসুর রহমান প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সভার কার্যবিবরণীতে স্বাক্ষর করেছেন। 

আজ বুধবার (১৩ অক্টোবর) রাজধানীর বনানীতে সিএনআরএস কার্যালয়ে এই কার্যবিবরণী স্বাক্ষরিত হয়। 

প্রকল্পের উদ্দেশ্য হল মিয়ানমারে নির্যাতন থেকে বাঁচতে ২০১৭ সাল থেকে বিপুল সংখ্যক মানুষের আগমনে কক্সবাজারে খাবারের চাহিদা এবং পরিবহন খরচ বেড়ে যাওয়ায় খাদ্য মূল্য চলে গেছে নাগালের বাইরে। আর এ কারণে খাদ্য সঙ্কটে ভুগছেন স্থানীয়রা। এসব সমস্যা স্থানীয়দের জীবনযাত্রায় নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। এবং এই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে তাদের সাহায্যের প্রয়োজন। এই সমস্যা মোকাবেলায় কাজ করবে এই প্রকল্প। এর মাধ্যমে ঝুঁকিপূর্ণ স্থানীয় পরিবারগুলোকে সক্ষম করে তুলতে প্রযুক্তিগত সহায়তা দেয়া হবে, বিশেষ করে কৃষি, মৎস্য এবং গবাদি পশু পালন ক্ষেত্রে। কৃষি পণ্যের চাষ, তেলাপিয়া চাষ ও ছাগল পালন ও এসব পণ্যের বিপণন ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন করা হবে। পাশাপাশি নানা প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বাসাবাড়ির বাজেট ও পুষ্টি ব্যবস্থাপনা নিয়েও তাদেরকে দক্ষ করে তোলা হবে।

এই প্রকল্প ছাড়াও কক্সবাজারের স্থানীয়দের সহায়তায় জাপানি প্রযুক্তিতে ‘ফিশারিজ ডেভেলপমেন্ট অ্যাডভাইসর’ প্রকল্প চলেছে যার বাস্তবায়নে কাজ করছে জাপানি বিশেষজ্ঞসহ ওয়ার্ল্ডফিশ
এই প্রকল্পগুলো এসডিজির লক্ষ্য ১. দারিদ্র বিমোচন ২. খাদ্য নিরাপত্তা ৩. সকলের জন্য সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করা অর্জনেও অবদান রাখবে