ঢাকা, সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮ , ৪ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ভুয়া ফেসবুক আইডির কবলে তারকারা প্রশ্নবিদ্ধ

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৮ মঙ্গলবার, ০৯:১৮ পিএম
ভুয়া ফেসবুক আইডির কবলে তারকারা প্রশ্নবিদ্ধ

জনপ্রিয় অভিনেতা, নির্মাতা এবং ডিরেক্টরস গিল্ডের সভাপতি গাজী রাকায়েত পড়লেন ফেসবুক বিড়ম্বনায়। তার ফেসবুক আইডি থেকে ইনবক্সের কয়েকটি আপত্তিকর স্ক্রিনশট এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। স্ক্রিনশটগুলোতো দেখা যায়, একটি মেয়ের সঙ্গে গাজী রাকায়েতের কথোপকথন হচ্ছে। সেখানে গাজী রাকায়েত মেয়েটিকে আপত্তিকর কিছু কাজের প্রস্তাব দেন। তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন কেউ তার আইডি হ্যক করেছে হয়তো।

পরবর্তীতে আজ জানা গেল, দেশের বাইরের কেউ এই কাজটি করেছে। আর এ ব্যাপারে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। শুধু ফেসবুক নয়, এতে যে ই-মেইল আইডি ব্যবহার করা হয়, সেটিও হ্যাক হয়েছিল। মূলত ভিপিএন অ্যাড্রেস ব্যবহার করে ই-মেইল ও ফেসবুক প্রোফাইল হ্যাক করা হয়।

তারকাদের সঙ্গে এমন ঘটনা কিন্তু বাংলাদেশে এই প্রথম হয়নি। কিছুদিন আগে অভিনেত্রী শ্রাবন্তীর ফেসুবক আইডি চোখে পড়েছিল। সে আইডিও নাকি হ্যাক হয়েছিল কিছুদিনের জন্য। সেখান থেকে সবার কাছে নানাভাবে টাকা চাওয়া হয়। আলোচিত হয়েছিল মিস বাংলাদেশ জেসিয়া ইসলামের ফেসবুক হ্যাকের ঘটনাও।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়া প্রোফাইলের ছড়াছড়ি এবং এই ব্যাপারে সবচেয়ে বেশি ভুগতে হয় তারকাদের। সম্প্রতি বেশ কিছু ভুয়ো প্রোফাইল নজরে এসেছে এই তারকাদের।

অনেক সময়েই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঠাওর করা মুশকিল হয়ে পড়ে যে কোন প্রোফাইলটি আসল আর কোনটি ফেক। সবাইকেই এই নিয়ে অল্প-বিস্তর ভুগতে হয়। বহু ক্ষেত্রে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট অ্যাকসেপ্ট করে নেওয়ার পরে বোঝা যায় যে প্রোফাইলটি আসল নয়। তারকাদের ভুয়ো প্রোফাইল তৈরি হওয়ার বিষয়টি তো আর নতুন নয়। বরং তাঁদের নামের ভুয়ো প্রোফাইলই সংখ্যায় বেশি। এ নিয়ে বিভিন্ন সময় তারা সতর্কও করেন তার ভক্তদের। কিন্তু কিসের কী। এমনটা নিয়মিত চলছে।

লেখক, নাট্যকার, কথাসাহিত্যিক ও সাংবাদিক আনিসুল হক কিংবা সিনিয়র শিল্পী শাকিলা জাফর। মোনালিসা, তিন্নি, সালমা, ন্যানসি, ফেরদৌস, মিশা সওদাগর, শাকিব খান, কাজী মারুফসহ অসংখ্য জনপ্রিয় তারকারা ফেসবুক নিয়ে বিড়ম্বনায় পরেছেন। তাদের নাম ব্যবহার করে একাধিক আইডি ও ফেসবুক ফ্যান পেজ তৈরি করা হয়েছে। সেখানে নানান সময় কুরুচিপূর্ণ ছবি ও বাজেভাবে তাকে উপস্থাপনা করা হচ্ছে। ফলে প্রতিনিয়ত পরিচিতদের কাছে তিনি বিড়ম্বনায় পরছেন।

আফরান নিশো ও পূর্ণিমাকে কিছুদিন আগে দেখলাম মজা করে তাদের ৫০টির উপর আইডির স্কিনশট ফেসবুকে নিজেদের রিয়েল আইডিতে দিয়েছেন।

এছাড়া অনেক সময় তারকাদের ফাঁদে ফেলতে চায় কিছু চক্র। ‘ভাইয়া-আপু আপনার সাথে তো কথা বললাম। আপনার এই এই খবর! বাহ! আপনি তো এই কাজগুলো করছেন। আপনি আমাকে চিনতে পারছেন না! আমি তো কালই আপনার সাথে কথা বললাম ফেসবুকে।’ এমনভাবে কথা বলতে চায়।

তবে, যাঁরা এগুলি করেন তাঁদের অধ্যবসায় প্রশংসনীয়। তারকারা তাঁদের প্রোফাইলে যা যা ছবি পোস্ট করেন, তা তৎক্ষণাৎ কপি করে নেন তাঁরা এবং পোস্ট করতে থাকেন ফেক প্রোফাইলগুলিতে। এর ফলেই বিড়ম্বনা তৈরি হয় কারণ আসল প্রোফাইলটির খোঁজ যাঁরা রাখেন না, তাঁরা ভাবেন যে এত ঘন ঘন আপডেট হয় যখন, তখন এটিও নিশ্চয়ই তারকারই নিজস্ব প্রোফাইল।

এক্ষেত্রে তারকাদের মত, নাম দেখেই এ্যাড হওয়ার জন্য ব্যাকুল হবেন না। আগে ভালো করে যাচাই করে নিন। ভক্তদের সাথে যোগাযোগের জন্য অনেকেই ফেসবুক ফ্যান পেইজ খুলেছেন। ভক্তরা সেখানে সর্বশেষ খবর জানতে পারবেন কিংবা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন।


বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ/