ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৫ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

তাঁরা যে দলের সাপোর্টার ছিলেন

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ জুন ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৫:২৪ পিএম
তাঁরা যে দলের সাপোর্টার ছিলেন

ফুটবল পাগল ছিলেন হুমায়ূন ফরীদি। একটা স্মৃতি তিনি প্রায়ই বলতেন,মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে ৫-৬জনকে কাটিয়ে গোল করলেন ম্যারাডোনা। এমন গোলের দৃশ্য সারা দুনিয়ার মানুষ যে আর দেখেনি, তাতে কোনো সন্দেহ নেই।’ জীবদ্দশায় আর্জেন্টিনার ভক্ত হুমায়ুন ফরীদি কোনোবারই খেলা দেখা থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখতে পারতেন না। বন্ধু বান্ধবদের নিয়ে চলতো তার বাসায় নিয়মিত আড্ডা। নিজেই রান্না করতেন খিচুড়ি আর গোশত। চিৎকার করে উৎসব করতেন। মৃত্যুর আগে শেষ বিশ্বকাপ নিয়ে এক পত্রিকায় বলেছিলেন,‘আর্জেন্টিনা এমনিতে বল পায়ে নিয়ে ভালো খেলে। কিন্তু লং শটে তারা খেলতে পারে না। তার পরও আমি আশাবাদী—এবার আর্জেন্টিনা ভালো খেলা উপহার দেবে।’

আজম খান তো নিয়ম করে ফুটবল খেলতেন। মৃত্যুর কয়েকবছর আগেও ফুটবল খেলতেন মাঠে গিয়ে। ফুটবল ভালোবাসতেন চরমভাবে। বিশ্বকাপ নিয়ে উন্মাদনাও প্রচুর। বিশ্বকাপের প্রতিটি খেলাই দেখতেন অনেক বছর ধরে। ব্রাজিল দলের সমর্থক ছিলেন।

নায়ক মান্নাও ছিলেন ব্রাজিলের সমর্থক। বিশ্বকাপ ফুটবলের সময় তিনি ব্রাজিলের জার্সি পড়ে এফডিসিতে ঘুরতেন। ফুটবল নিয়ে আসতেন এফডিসিতে আর সবাইকে ডেকে খেলার আয়োজন করতেন। ফুটবল নিয়ে তাঁর মাতামাতিটা ছিল চোখে পড়ার মতন।

নায়ক রাজ রাজ্জাকও ছিলেন ব্রাজিলের সাপোর্টার। ছেলেদের নিয়ে রাত জেগে ফুটবল খেলা দেখতেন। সেসব স্মৃতি এখনো মনে করেন দুই ছেলে বাপ্পারাজ ও সম্রাট। ব্রাজিলের খেলা মানেই লক্ষীকুঞ্জে উৎসব লেগে যেত।

দিতি ছিলেন আর্জেন্টিনার সাপোর্টার। মায়ের বদৌলতে ছেলে মেয়েরাও আর্জেন্টিনার সাপোর্টার।



বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ