ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ৫ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ট্রেলারে ভাওয়ালের সন্ন্যাসী রাজার কাহিনী

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ সোমবার, ০৮:৪৪ পিএম
ট্রেলারে ভাওয়ালের সন্ন্যাসী রাজার কাহিনী

ভাওয়াল সন্ন্যাসী রাজার জীবন নিয়ে ‘এক যে ছিল রাজা’ শিরোনামে ছবি নির্মাণ করেছেন কলকাতার পরিচালক সৃজিত মুখার্জী। কিছুদিন আগে ছবির টিজারে দেখা গিয়েছিল জটা চুলের অর্ধনগ্ন সন্ন্যাসী রাজার ঝলক। ঐতিহাসিক এই ঘটনার কিছুটা এবার প্রকাশিত হয়েছে ২ মিনিট ১৩ সেকেন্ডের ট্রেলারে।

সোমবার ( ১০ সেপ্টেম্বর) ইউটিউবে প্রকাশিত হয় ‘এক যে ছিল রাজা’ ছবির ট্রেলার। যেখানে শুরুতেই শোনা যায়, আদালত প্রাঙ্গনের গমগমে শব্দ। বিচারকের অনুমতি নিয়ে কাঠগড়ায় এক মৃতদেহকে ডাকতে চাইছেন আইনজীবী। সেই মৃতদেহই সন্ন্যাসী রাজা মেজকুমার রমেন্দ্র নারায়ণ রায় চৌধুরি। যদিও তিনি মৃত নন, জীবিত। নিজে হেঁটে উপস্থিত হন জবানবন্দী দিতে।

অন্যদিকে রাজাকে ডাকার সঙ্গে সঙ্গে আপত্তি জানান বিপক্ষের নারী আইনজীবী। তাঁর মতে, সন্ন্যাসী এই ব্যক্তি একজন প্রতারক। নাম তাঁর মাল সিং। পঞ্জাবের বাসিন্দা। কিন্তু কেন তাঁকে মৃত বলা হচ্ছে, কি তাঁর পরিচয়? এই জট ছবিতেই খুলবেন পরিচালক।

বিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে অবিশ্বাস্য এক ঘটনার জন্ম দেন গাজীপুর ভাওয়ালের (তৎকালীন ব্রিটিশ ভারত) রাজা মেজকুমার রমেন্দ্র নারায়ণ রায় চৌধুরি। মৃত ঘোষণার পর, প্রায় এক যুগ পর সন্ন্যাসী রূপে ফিরে আসেন ভাওয়াল রাজা। সবাই জানতো দার্জিলিংয়ে বেড়াতে গিয়ে রাজার মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু ১৯২১ সালের ৪ মে ঢাকার সদরঘাটে আগমন ঘটে হুবহু রাজার মতো দেখতে জটা চুলের এক সন্ন্যাসীর। এই খবর পৌঁছে যায় রাজ পরিবারে। রাজভক্ত প্রজাদের মতে তিনিই রাজা মেজকুমার। আবার বিরোধী প্রজারা তা মানতে অস্বীকৃতি জানায়। এ নিয়ে রাজ পরিবারে দেখা দেয় তীব্র বিরোধ। ঘটনা গড়ায় আদালতে। রাজকীয় মামলার বিচারের রীতি ভেঙে ব্রিটিশ আদালত ঢুকে পড়ে রাজ দরবারে। শুরু হয় রাজার মৃত্যুর রহস্য উদঘাটন।

ভাওয়াল সন্ন্যাসীর সম্পর্কে অনেক তথ্য থাকলেও তাঁকে ঘিরে গড়ানো মামলার অনেকটাই অজানা। কলকাতার লেখক পার্থ চট্টোপাধ্যায় তাঁর ‘এ প্রিন্সলি ইম্পোস্টার’ বইয়ে সন্ন্যাসী রাজার অনেক অজানা বিষয় তুলে ধরেছেন। আর এই বই অবলম্বনেই ছবি নির্মাণ করেছেন সৃজিত মুখার্জী।

‘এক যে ছিল রাজা’ ছবিতে ভাওয়াল সন্ন্যাসী রাজার চরিত্রে অভিনয় করেছেন যিশু সেনগুপ্ত। আইনজীবীর ভূমিকায় অঞ্জন দত্ত ও অপর্না সেন। যিশুর স্ত্রীর চরিত্রে অভিনেত্রী রাজনন্দিনী পাল এবং বোনের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাবে জয়া আহসানকে। এছাড়া অন্যান্য চরিত্রে রুদ্রনীল ঘোষ, অনির্বাণ ভট্টাচার্য ও শ্রীনন্দা সরকারকে অভিনয় করতে দেখা যাবে। শ্রীভেঙ্কটেশ ফিল্মসের প্রযোজনায় ছবিটি চলতি বছরের ১২ অক্টোবর মুক্তি পাবে।




বাংলা ইনসাইডার/ এইচপি