ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

বাউল সম্রাটের প্রয়াণ দিবস আজ

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ বুধবার, ০৪:০৯ পিএম
বাউল সম্রাটের প্রয়াণ দিবস আজ

সহজ-সরল কথায়, গানে গভীর জীবন দর্শন ফুটিয়ে তোলার আশ্চর্য কারিগর বাউল শাহ আব্দুল করিম। অথচ সেই অর্থে পাঠশালার ছায়াও মাড়াননি। ভাটি অঞ্চলে জন্মেছেন বলে সাধারনের কাছে তিনি ভাটির বাউল হিসেবে পরিচিত। তাঁর গানে ভাটি অঞ্চলের মানুষের সুখ-দুঃখের পাশাপাশি উঠে এসেছে প্রতিবাদ, আধ্যাত্ববাদ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনা। দেশের সীমানা ছাড়িয়ে তাঁর গানের বাণী পৌঁছে গেছে পাশ্চাত্যে। তাঁর আলোচিত ১০টি গান ইংরেজি ভাষায়ও অনুদিত হয়েছে। আজ (১২ সেপ্টেম্বর) তাঁর নবম প্রয়াণ দিবস। ২০০৯ সালের এই দিনে পৃথিবীকে চির বিদায় জানান কিংবদন্তি এই সাধক।

সুনামগঞ্জ জেলার উজানধল গ্রামে ১৯১৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন বাউল আব্দুল করিম।  দারিদ্র ও জীবন সংগ্রামের মধ্য দিয়ে বেড়ে ওঠা আব্দুল করিমের সঙ্গীত সাধনার শুরু ছেলেবেলা থেকেই। গান গাওয়ার সময় অনেকে ধর্মীয় নিষেধাজ্ঞার সম্মুখীন হয়েছিলেন তিনি। সামাজিক বাধা, দারিদ্র কিছুই তাঁর গান রচনায় বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি। গাড়ি চলে না, কোন মেস্তুরি নাও বানাইছে, আগে কি সুন্দর দিন কাটাইতাম, রঙের দুনিয়া তরে চায় না, সখি কুঞ্জে সাজাও গো, বন্দে মায়া লাগাইছে-এমন বহু গানের স্রষ্ঠা বাউল সম্রাট আব্দুল করিম। তাঁর গানের সংখ্যা প্রায় দেড় হাজার। এছাড়া তাঁর গান নিয়ে ৭টি বইও প্রকাশিত হয়েছে।

বাউল আব্দুল করিম ২০০১ সালে ‘একুশে পদক’ লাভ করেন। এছাড়া পেয়েছেন কথা সাহিত্যিক আবদুর রউফ চৌধুরী পদক, রাগীব-রাবেয়া সাহিত্য পুরস্কার,  লেবাক অ্যাওয়ার্ড, মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার আজীবন সম্মাননা, সিটিসেল-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস আজীবন সম্মাননা, বাংলাদেশ জাতিসংঘ সমিতি সম্মাননা এবং  বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননাসহ অসংখ্য পুরস্কার।   

বাংলা ইনসাইডার/ এইচপি